শনিবার, ২৪ অক্টোবর, ২০২০
আক্কেল চাচার চিঠি (আঞ্চলিক ভাষায় লেখা)
ইডা কি সংশোদন না নিযযাতন কেন্দ্র ?
Published : Monday, 17 August, 2020 at 1:14 AM
ইডা কি সংশোদন না নিযযাতন কেন্দ্র ?বচর পচিশেক আগে যশোরের পলিরহাটে গড়া হইলো শিশু উন্নয়ন কেন্দ্র। কিন্তুক স¹লি সিডারে চেনে শিশু জেলখানা বিলে। কারো ছাবাল বাইরোপানে হইয়ে গেলি বাড়িত্তে মুরুব্বীরা হুমকি দিয়ে কয়, দাড়া তোরে শিশু কারাগারে দিয়াসতিচি। বাইড়োন খালি স্বভাব ঠিক হইয়ে যাবেনে। ভয়তে ছিলেপিলে থির হইয়ে যায়। আসলেই সিডা জেলখানা?
দেশে শিশু আইন ২০১৩ মুতাবেক উটতি বয়সের ছাবাল মাইয়েরা অপরাধে জড়ায় পড়লি তাগের সংশোদন, উন্নয়ন আর স্বাভাবিক জীবনে ফিরোয় আনার জন্যি দেশে দুডো কিশোর উন্নয়ন কেন্দ্র চালাচ্চে সরকার। যার এট্টা যশোরের পলিরহাটে, আরাট্টা গাজিপুরির টঙ্গিতি। সমাজসিবা অধিদপ্তর চালানো এই কেন্দ্রোয় শিশু ও কিশোরগের কেস কামারি দেকাশুনো, তদারকি, তাগের সাতে মিশে ভালো ভালো কতা বাত্তার কইয়ে তাগের মন মানসিকতা বদলানো, আর দশজনের মতো স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসতে সহযোগিতা করার কতা। সেই সাতে তাগের থাকা খাওয়া, আয় করা কাজের টেরিং দিয়া এই সবের জন্যি তাগের একেনে রাকা হয়। কিন্তুক লোকমুকি চাউর, হ্যানে ছিলেপিলের জব্দ করার এট্টাই ওষুদ সিডা হচ্চে বাইড়োন। সেই কারনে ইডার নাম মুকি মুকি শিশু জেলাখানা হইয়ে গেচে। সাধারণ মানুস বহুতদিন ধইরে জানতি চাইয়েচে ইডা কি সংশোদন কেন্দ্র, না নিযযাতন কেন্দ্র ?
গ্যালো বিসসুদবার বাইড়োন খাইয়ে ৩ শিশু মইরে গেচে। আর আহত হইয়েচে গুটা ১৫। ইডায় পেত্তম ঘটনা তা কিন্তুক না। এর আগেও ২০১১ সালের ২৯ আগস্ট আকাশ (১২) নামে এক শিশুরে টুকরো টিন দিয়ে গলা কাইটে খুন করা হইলো। ২০১৯ সালের ৩০ জুন নূর ইসলাম (১৫) নামে আরাক শিশু নিযযাতন সহ্য কত্তি না পাইরে আত্মহত্যা করিল। ২০১৪ সালে ৫ মে কেন্দ্রে থাকা শিশুগের সাতে আনসার বাহিনীর মারামারি হইলো। ওই সময় নিযযাতিত শিশুরা কেন্দ্র ভাঙচুর কইরে ভাঙা কাচ দিয়ে শরীল কাইটে পোতিবাদ জানায়লো।
ইবারের ঘটনাডা আরো মারাত্মক। শুনা যাচ্চে কত্তিরপক্ক আগে মিটিং কইরে বাইড়োন জুড়িল। মাত্তি মাত্তি মাইরেই ফেলায়েচে। আগে এট্টা আদ্দেক মইত্তো, ধাপা দিয়ে চাপা দিতি পাইত্তো। এবার তিনডে মাইরেচে। ধামায় আর আটিনি, বাইরোয় গেচে। কি সব্বোরাশে কতা কওদিনি বাপু। ভালো করার জন্যি ছাবাল পাঠায়ে যদি লাশ নিতি মা বাপগের আসতি হয় তালি কিরামডা লাগে।
ইতি-
অভাগা আক্কেল চাচা
০১৭২৮৮৭১০০৩



সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft