শনিবার, ২৬ সেপ্টেম্বর, ২০২০
আক্কেল চাচার চিঠি (আঞ্চলিক ভাষায় লেখা)
রাস্তা একন টিরাক্টারের দকলে!
Published : Tuesday, 1 September, 2020 at 12:18 AM
রাস্তা একন টিরাক্টারের দকলে!চারিদিকি হুড়োয় চলতেচে টিরাক্টর। আগে জানতাম টিরাক্টার ভুই চষার কাজে লাগে। একন টিরাক্টর পাকা রাস্তা চইষতেচে। পেত্তেমে দেইকে বুজ পালাম না কি হচ্চে।
পিপারে পড়িলাম আমাগের কামখুলা ছুটিপুর রাস্তা এক লাইনিত্তে দুই লাইন হবে। কিন্তু যা যবর যা তা যবর তা। যে রাস্তা যিরাম ছিলো সিরামই থাকচে। শুদু রাস্তার দুইপাশে খুটোগাড়ার মতো ইট পুতে দেচ্চে। দুইপাশে ইট পোতচে ইডাই দুইলেন কিনা কবে কিডা। একন রাস্তায় হুড়োয়ে টিরাক্টর দিয়ে ভুই চষার মতো রাস্তা চইষে তার ওপর রুলার গাড়ি দিয়ে ডইলে সুমান কইরে দিয়ে যাচ্চে। স¹লি তাগায় তাগায় দেকচে কিন্তুক কেউ কিচু কচ্চে না। এই টিরাক্টরের অত্যাচার হালি কইরে না। বেশ কয়দিন আগেত্তে ভুইচষা বাদ দিয়ে পেচনে টলি লাগায়ে মাটি টানার কাজ চালাচ্চিল। চাষের ভুইর মাটি কাইটে চুয়া কইরে দেচ্চে উরা। দলদারীর নাম কইরে গিরাম গঞ্জের কিচু সুবিদেবাদীরা এই সব মাটি কাটা আর গত্তগাড়া বুজোনোর কন্টাক্টর সাজেচে। বেপরোয়া গতিতে চলা টলি লাগানো টিরাক্টারে পেত্তেকদিন ঘটচে কোন না কোন দূরঘটনা।
শুনিলাম রাস্তাঘাট দুই লাইনতে চার লাইন ছয়লাইন হবে, কবে হবে জানিনে কিন্তুক এর মদ্দি রাস্তায় টিরাক্টার চার লাইন ছয় লাইন হয়ে গেচে। আগে তো গিরাম গঞ্জের রাস্তা দাবড়ায় বেড়াতে একন সুমানে দাবড়াচ্চে সড়ক বড় সড়কগুলোতে। চোকির সুমকি দিয়ে হুড়োয় চইলে যাচ্চে। কিন্তুক এ নিয়ে কারো কোন মাতায় ব্যাতা নেই। এই নিয়ে একজনের সাতে কতা উসাইলাম, সে কলে যারা দেকপে তাগের চোকি টিনির চশমা, আর যারা কবে তাগের গালে আলো চাইল। তাই দেকতি চালিও দেকতি পাবে না, আবার কতি চালিও কোন কতা কতি পাবে না। বুজবাজেই সব কাজ হইয়ে যাচ্চে। গিরাম গঞ্জে মাটিকাটা নিয়ে চলে মুস্তানী। যাগের ধুরোয় জোর বেশী তারাই মাটি কাটার কাজ করে। গিরামের নিরীহ চাষাভুষোগের বুজোয় ভুই উইচো হয়ে আচে বিলে পানি দাড়ায় না, ফসল ভালো হয় না। এককোপ মাটি কাইটে নিলি ভুইডা যুইত হবেনে। পোকপাক দিয়ে ভুইতি লোক উলায়ে মনের ইচ্চেমত মাটি কাইটে ভুই হকসায় দেচ্চে। মাটি ব্যবসায়ালাগের বিনা পুজির ব্যবসায় দুনো লাভ। মাটি দেব বিলে পাটির কাচেত্তে টাকা টাইনে নেচ্চে, আবার ভুইয়ালাগের কোন কিচু না দিয়েই মাটি খুইচে নিয়ে যাচ্চে।
ইতি-
অভাগা আক্কেল চাচা
০১৭২৮৮৭১০০৩






সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft