সোমবার, ২৮ সেপ্টেম্বর, ২০২০
দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চল
হতদরিদ্র নারীদের পুষ্টি ও স্বাস্থ্য শিক্ষায় অবদান রাখছেন ২৮পুষ্টিযোদ্ধা এলএসপিগণ
টিপু সুলতান, কালীগঞ্জ (ঝিনাইদহ) :
Published : Wednesday, 16 September, 2020 at 6:10 PM
হতদরিদ্র নারীদের পুষ্টি ও স্বাস্থ্য শিক্ষায় অবদান রাখছেন ২৮পুষ্টিযোদ্ধা এলএসপিগণসোমা দেবনাথ একজন গৃহবধু। বাড়ির অন্য কাজের পাশাপশি তিনি নিজে বাড়ির আঙিনায় সবজি চাষ, হাস মুরগি পালনসহ নানা কাজ করেন। একই সাথে এলাকার হতদরিদ্র নারীদের পুষ্টি,স্বাস্থ্য রক্ষা, পুষ্টিগুণ বজায় রেখে রান্নার কৌশল জানাসহ নিজের বাড়ির পরিত্যক্ত আঙিনা ব্যবহার করে কিভাবে নিরাপদ উপায়ে সবজি উৎপাদন করা যায় সে বিষয়ে সহায়তা প্রদান করছেন। সোমা দেবনাথের মতো পুর্ব বলামপুর গ্রামের  স্মৃতি দেবনাথও একজন গৃহবধু। বাড়ির কাজের পাশাপাশি পাশ্ববর্তী ভোলপাড়া গ্রামের হতদরিদ্র লক্ষিত নারীদের তিনিও একই ধরনের সেবা দিচ্ছেন। আগমুন্দিয়া গ্রামের ফারহানা সাকিনসহ  ঝিনাইদহ জেলার কালীগঞ্জ উপজেলার নিয়ামতপুর ইউনিয়নের ১২টি গ্রামে এবং রায়গ্রাম ইউনিয়নের একটি গ্রামে ২৮জন এলএসপি  (লোকাল সার্ভিস প্রোভাইডার) প্রায় ৩৮৮জন হতদরিদ্র লক্ষিত নারীদের মাঝে পুষ্টি ও স্বাস্থ্য সুরক্ষায় সচেতনতা বৃদ্ধির জন্য কাজ  করছে গত দুই বছর ধরে।
২৮জন এলএসপি এলাকার ১৩টি গ্রামের ৪০০ জন লক্ষিত নারীকে সহায়তা করছেন। এলএসপিদের এই কার্যক্রমে বেড়ে। এই ২৮জন এলএসপিকে সার্বিক সহযোগিতা করছেন জাপান ভিত্তিক স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা হাঙ্গার ফ্রি ওয়ার্ল্ড। হাঙ্গার ফ্রি ওয়ার্ল্ড এর ডেভলপমেন্ট প্রকল্পের এর চলমান প্রজেক্ট এর সহযোগী হিসেবে নিজেরা আলোকিত হয়ে অন্যের মাঝে আলো ছড়িয়ে দেয়ার মধ্য দিয়ে এলএসপিগণ ব্রত নিয়েছেন পরিবর্তনের।
ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ উপজেলার আড়–য়াশলুয়া গ্রামের শিখা খাতুন। পড়াশোনা করেন। পাশাপাশি লোকাল সার্ভিস প্রোপাডার হিসেবে কাজ করনে। মাসে ২দিন তিনি গ্রামের হতদরিদ্র লক্ষিত নারীদের নিয়ে উঠান বৈঠক করেন। তিনি জানান, সপ্তাহের নির্ধারিত দিনে এই বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। সেখানে আলোচনা হয় খাদ্যের পুষ্টি রক্ষা করা, নারীদের স্বাস্থ্য বিষয়ক, সমবায় গঠন,সঞ্চয় করা, বাড়ির আঙিনায় সবজি চাষসহ বিভিন্ন বিষয়ে। এরকমভাবে জেসমিন আক্তারও তার জীবনে পরিবর্তন আনয়নের পাশাপাশি লক্ষিত নারীদের সহায়তা প্রদান করে আসছেন।
অধিকাংশ এলএসপি তাদের বাড়িটাকে মডেল তৈরি করেছে। এরপর অন্য নারীদের সেই ভাল কাজগুলো করার জন্য উঠান বৈঠকের মাধ্যমে উৎসাহ প্রদান করছেন। তিনি জানান, নিয়ামতপুর ইউনিয়নের নিয়ামতপুর গ্রামের জেসমিন আক্তার ১৫জন, রোজিনা বেগম ১৪ জন,মুন্নি খাতুন ১৩জন, মহিষাডেরা গ্রামের নাহিদা আক্তার ১০জন, অনুমপুর গ্রামের অঞ্জনা রানী ১৬জন, শাহনাজ পারভীণ ১৪জন, হরিগবিন্দপুর গ্রামের রতœ খাতুন ১৫জন, মোজাহিদ ইসলাম ১৫জন, ভোলপাড়া গ্রামের স্মৃতি দেবনাথ ১৪জন, মাধুরী বিশ্বাস ১৫জন, বলরামপুর গ্রামের  সোমা দেবনাথ ১৫জন, ফরিদা বেগম ১২জন, মরিয়ম খাতুন ১৩জন, সাথী ঘোষ ১২জন, মল্লিকপুর গ্রামের আফরোজা বেগম ১৮ জন, আম্বিয়া খাতুন ১৫জন, নাসরিন আক্তার ১৬জন, আড়–য়াশলুয়া গ্রামের শিখা খাতুন ১৪জন, সাথী খাতুন ১৩জন, বলাকান্দর গ্রামের মর্জিনা আক্তার  ১৭জন, মহেশ্বরচাদা গ্রামের লিপিকা ঘোষ ১৪জন, কবিতা খাতুন ১২জন, দাপনা গ্রামের রেবেকা খাতুন ১৫জন, মোস্তবাপুর গ্রামের রোজিনা আক্তার ১৪জন, খাদিজা খাতুন ১৪জন এবং রায়গ্রাম ইউনিয়নের আগমুন্দিয়া গ্রামের ফারহানা সাকিন  ১০জন, বিউটি আক্তার ১৩জন ও তাজরিন ফারহানা ১০ জন লক্ষিত বা হতদরিদ্র নারীদের এই কাজে সম্পৃক্ত করেছেন।



সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft