বুধবার, ২১ অক্টোবর, ২০২০
দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চল
যে কোন মুহুর্তে প্লাবিত হতে পারে রোপা আমনসহ ঘরবাড়ি
দাকোপে নদী ভাঙ্গনে ওয়াপদা বেড়িবাঁধ মারাত্মক ঝুঁকিপূর্ণ
জিএম, আজম,দাকোপ (খুলনা) প্রতিনিধি :
Published : Friday, 18 September, 2020 at 5:22 PM

দাকোপে নদী ভাঙ্গনে ওয়াপদা বেড়িবাঁধ মারাত্মক ঝুঁকিপূর্ণভয়াবহ নদী ভাঙ্গনে খুলনার দাকোপে পানখালী ফেরিঘাটের পূর্ব পাশে সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় কাম সাইক্লোন সেল্টার সংলগ্ন প্রায় ৫০ থেকে ৬০ ফুট ওয়াপদা বেড়িবাঁধ মারাত্মক ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে পড়েছে। যে কোন মুহুর্তে বেড়িবাঁধ ভেঙ্গে ঝপঝপিয়া নদীগর্ভে বিলিন হয়ে কয়েক হাজার হেক্টর জমির রোপা আমনসহ ঘরবাড়ি প্লাবিত হতে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। এছাড়াও মৌখালী, বটবুনিয়া, কামনিবাসিয়াসহ কয়েকটি পয়েন্টে প্রায় একই অবস্থা বিরাজ করছে।
সরেজমিনে পানখালী এলাকার ফাল্গুনী হালদার, রাজেন রায়সহ একাধিক ব্যক্তি জানায়, সম্প্রতি ভাঙ্গন কবলিত ঝুঁকিপূর্ণ স্থানটির ওয়াপদা বেড়িবাঁধের অর্ধেকাংশ ইতোমধ্যে ঝপঝপিয়া নদীগর্ভে বিলিন হয়েছে। জোয়ারের তোড়ে বাকি অংশে ১৭ সেপ্টেম্বর বৃহস্পতিবার রাতে বড় বড় ফাঁটল দেখা দিয়েছে। যা দিয়ে চুয়ে চুয়ে পানি ভিতোরে প্রবেশ করছে। যে কোন মুহুর্তে ওই অংশ ভেঙ্গে বিলিন হয়ে পানখালী, চালনা পৌরসভার ১ ও ২ নম্বর ওয়ার্ডসহ ব্যাপক এলাকা প্লাবিত হতে পারে বলে আশঙ্কা করছেন। ভাঙ্গন কবলিত ঝুঁকিপূর্ণ স্থানটি দ্রুত মেরামত করা প্রয়োজন বলে তারা মনে করেন। আর তা না হলে কয়েক হাজার হেক্টর জমির রোপা আমনসহ অসংখ্য ঘরবাড়ি তলিয়ে মানুষের অ-পূরনিয় ক্ষতি হতে পারে। একে তো করোনার কারণে মানুষের অর্থসংকট লেগে আছে আর এক মাত্র আমন ফসল হারালে এলাকার লোক দিশেহারা হয়ে পড়বে বলে তারা জানান।
স্থানীয় ইউপি সদস্য জ্যোতি শংকর রায় বলেন নদী ভাঙ্গনের বিষয় পানি উন্নয়ন বোর্ডকে বার বার জানিয়েও কোন প্রতিকার পাচ্ছেন না। প্রত্যেক দিন এলাকার প্রায় ১৫০ থেকে ২০০ জন লোক সেচ্ছাশ্রমে ভাঙ্গন কবলিত স্থানে কাজ করছেন।
এবিষয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার আবদুল ওয়াদুদ জানান, ভাঙ্গন কবলিত ঝুঁকিপূর্ণ স্থানে এলাকার লোকজন সেচ্ছাশ্রমে কাজ করছেন। তিনি দ্রুত বেড়িবাঁধ মেরামতের জন্যে চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন।
এব্যাপারে পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী পলাশ কুমার ব্যানার্জী বলেন ভাঙ্গন কবলিত স্থানে আমার লোক গিয়েছিল। স্থানীয় লোকজনের সাথে আমার কথা হয়েছে তারা কিছু জিও ব্যাগ চেয়েছেন। আমি অফিসের নিয়োম মেনে কিছু ব্যাগ দিবো।



সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft