মঙ্গলবার, ২৭ অক্টোবর, ২০২০
দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চল
পাট ও পাটখড়ি থেকে মূল্যবান কার্বন উদ্ভাবন করলেন কেশবপুরের দু’গবেষক
মোতাহার হোসাইন, কেশবপুর (যশোর)
Published : Saturday, 19 September, 2020 at 12:51 AM
পাট ও পাটখড়ি থেকে মূল্যবান কার্বন
উদ্ভাবন করলেন কেশবপুরের দু’গবেষকপাট ও পাটখড়ি থেকে কার্বন উদ্ভাবন করে বিশ্বব্যাপী আলোচিত হয়েছেন কেশবপুরের দু’ কৃতি সন্তান গবেষক ডক্টর আব্দুল আজিজ ও ডক্টর আবুল কাশেম। মূল্যবান এ কার্বন দূষিত বায়ু, পানি পরিশোধনে ব্যাপকভাবে ব্যবহার করা সম্ভব। এই দু’ গবেষক পাট থেকে তৈরি এই কার্বন পৌঁছে দিতে চান বিশ্বব্যাপী। এটি হলে বাংলাদেশের অর্থনীতিতে যোগ হবে এক নতুন মাত্রা।  
তারা বিভিন্ন বৈজ্ঞানিক পদ্ধতির সহায়তায় পাট ও পাটখড়ি দিয়ে অধিক মূল্যবান উপাদান কার্বন তৈরি এবং তার ব্যবহার নিয়ে একটি রিভিউ পেপার লিখেছেন। যা বিশ্ববিখ্যাত উইলি কর্তৃক প্রকাশিত খ্যাতনামা জার্নাল ঞযব ঈযবসরপধষ জবপড়ৎফ এ (ইমপ্যাক্ট ফ্যাক্টর ৬.১৬৩,২০১৯) স¤প্রতি প্রকাশিত হয়েছে। উইলি রিভিউ পেপারটি অত্যধিক গুরুত্বপুর্ণ মনে করে এটিকে কার্বন, গ্রাফাইট এবং গ্রাফিন (অফাধহপবফ গধঃবৎরধষং) বিভাগে ঐড়ঃ ঞড়ঢ়রপ হিসেবে শ্রেণিভুক্ত করেছে। তাদের এ কাজে সহায়তা করেছেন ডক্টর আব্দুল আজিজের পিএইচডির ছাত্র সাঈদ শাহিন শাহ।  
বিশিষ্ট রসায়ন বিজ্ঞানী ডক্টর আব্দুল আজিজ যশোরের কেশবপুর উপজেলার হাসানপুর ইউনিয়নের মমিনপুর গ্রামের শাহাবাজ মোড়লের ছেলে। তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে রসায়নে প্রথম শ্রেণিতে ডিগ্রি লাভ করে উচ্চতর শিক্ষার জন্যে দক্ষিণ কোরিয়ায় যান। সেখানে পুশান জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ন্যানোম্যাটিরিয়াল বেইজড ইলেকট্রো অ্যানালাইটিক্যাল কেমিস্ট্রিতে পিএইচডি ডিগ্রি অর্জন করেন। এরপর জাপানের কিয়োটো বিশ্ববিদ্যালয়ের ম্যাটেরিয়াল কেমিস্ট্রি বিভাগের ন্যানোম্যাটরিয়াল ল্যাবরেটরিতে দু’বছরের গবেষণা শেষ করেন। ডক্টর আজিজ সৌদি সরকারের আহŸানে কিং ফাহাদ বিশ্ববিদ্যালয়ে যোগদান করেন এবং সেখানে কর্মরত রয়েছেন।
বিশিষ্ট বায়োসেন্সর ও পরিবেশ গবেষক ডক্টর আবুল কাশেম কেশবপুরের একই ইউনিয়নের আওয়ালগাতি গ্রামের জামিরুল ইসলামের ছেলে। তিনি খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের এনভায়রনমেন্টাল সায়েন্স ডিসিপ্লিন থেকে এমএস (প্রথম শ্রেণিতে প্রথম ডিসটিনশানসহ) ডিগ্রি অর্জন করে সেখানে খন্ডকালীন শিক্ষক হিসেবে যোগদান করেন। পরবর্তীতে উচ্চতর পড়াশোনার জন্যে জাপানে যান। জাপানের তয়মা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পিএইচডি (ইঞ্জিনিয়ারিং) ডিগ্রি অর্জন করেন। পরে জাপানের নাগোয়া বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পোস্ট ডক্টরেট স¤পন্ন করেন তিনি। বর্তমানে জাপানে কর্মরত আছেন।
ডক্টর আব্দুল আজিজ বলেন, পাট ও পাটখড়ি  থেকে অপঃরাধঃবফ ঈধৎনড়হ বা কার্যকরী কার্বন, গ্রাফিন ও অন্যান্য মূল্যবান কার্বন তৈরি করা সম্ভব। যা বিভিন্ন ক্ষেত্রে ব্যবহার হয়ে থাকে। পাট ও পাটখড়ি থেকে এই কার্বন তৈরিতে খরচ কম। পদ্ধতিটা সহজ ও পরিবেশবান্ধব। এছাড়া, তৈরিকৃত কার্বনের পৃষ্ঠতলের আয়তন বেশি হওয়ায় কর্মক্ষমতা অনেক বেশি।
বায়োসেন্সর ও পরিবেশ গবেষক ডক্টর আবুল কাশেম বলেন, পৃথিবীব্যাপী বাড়ছে পরিবেশ দূষণ। দূষিত হচ্ছে পরিবেশের মূল্যবান উপাদান পানি, বায়ু ও মাটি। ব্যাহত হচ্ছে প্রকৃতির ভারসাম্য। আর এই দূষিত বায়ু ও পানি পরিশোধনে অধিক মূল্যবান এনার্জি স্টোরেজ (শক্তি সঞ্চয় ) ডিভাইসে অপঃরাধঃবফ ঈধৎনড়হ ব্যাপকভাবে ব্যবহার করা সম্ভব।
হাসানপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান অধ্যাপক জুলমত আলী বলেন, কোনো জিনিসের নানামুখি ব্যবহার উপযোগী করতে পারলে তার কদর বাড়ে। পাট নিয়ে এমনি সম্ভাবনাময় একটি কাজ করেছেন এই ইউনিয়নের দু’ কৃতি সন্তান স্বনামধন্য গবেষক  ডক্টর আব্দুল আজিজ ও ডক্টর আবুল কাশেম। পাট অর্থকরী স¤পদ। কিন্তু নানামুখি ব্যবহারের ক্ষেত্র তৈরি না হওয়ায়, বর্তমানে তার অতীত ঐতিহ্য কিছুটা হলেও হারাতে বসেছে।




সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft