বৃহস্পতিবার, ২২ অক্টোবর, ২০২০
আক্কেল চাচার চিঠি (আঞ্চলিক ভাষায় লেখা)
বিকাশের পিন নম্বর কলিই ঘের..
Published : Wednesday, 14 October, 2020 at 1:35 AM
বিকাশের পিন নম্বর কলিই ঘের..বিকাশে এট্টা একাউন খুলিলাম  সুমায় অসুমায়তি টাকা আনা নিয়া করার জন্যি। পেত্তম দিকি সিরাম খারাপ কিচু শুনিনি কিন্তুক কেরমে কেরমে বিকাশের নামে নানা বদরাম রটতেচে চারিদিকি। সেদিন পিপারে পড়লাম নানা টাকা কড়ি বিষয়ক অনিয়মে জড়ায় যাচ্চে বিকাশ। যা নিয়ে তদন্তে নামেচে কেন্দ ব্যাংক। এই কয়দিন আগে দুপার বেলায় খাতি বইচি। আনকা নম্বরত্তে এট্টা কল আইসলো। মুলাম গলায় স্যার স্যার কত্তি লাইগলো। মুক্কু স্ক্কুু মানুস আমি, আমারে স্যার কবে কি জন্যি। ভাবলাম ভুল কইরে মনে হয় আমার কাচে চইলে আইয়েচে। খানিকবাদে জানালো যে বিটা কল কইরেচে সে বিকাশের হেড অপিসির ইঞ্জিয়ার। আমারে কয় স্যার বিকাশের এট্টা নতুন সংখ্যা যোগ হয়েচে জানেন কিনা? আমি কয় না রে বাপু অত জিনিস ঘুটাঘুটির সুমায় কনে। সি বিটা কলে স্যার কোন সমিস্যা নেই। আপনার নম্বরে এই নতুন সিবা যোগ কইরে দিচ্চি। এর জন্যি যা কত্তি হবে সিডা হলো অইন্য এট্টা নম্বর দিয়ে ঐ বিটারে কল কইওে কতি হবে আমার বিকাশের পিন নাম্বার কত। তারপর কয় মিনিট আমার নম্বরডা বন্দ কইরে রাকতি হবে। ৫ মিনিট বন্দ কইরে রাকার পর ফোন চালু কল্লি সিবাডা যোগ হবে। আমি কলাম বাপু সব বুজলাম কিন্তুক স¹লি যে কয় পিন নম্বর গোপন জিনিস কারো কতি নেই তুমারে কব ক্যান? সে বিটা কলে না কলি তো আপনার মুবালি সেটিং দিয়া যাবে না। আমি কলাম তালি বাপু খাচ্চিলাম, খাওয়া শেষ হলি তারপর যা কইলে তাই কত্তিচি। পাশের এক ভাইপোরে বিষয়ডা জানাতি কলে খবরদার চাচা পিন কারো কবানা। ইরা কিন্তুক চিটার। আমি কলাম কচ্চিস কি আমারে যে যত্ন কইরে স্যার স্যার কলে। ভাইপো কলে চাচা, পিন নম্বর কইয়ে মুবাল বন্দ রাকতি কয় ক্যান জানো ঐ কয় মিনিটির মদ্দি তুমার টাকা উরা তুইলে নিয়ে হাওয়া হয়ে যাবে বিলে। গাছিক খানিক পর সেই বিটা আবার ফোন দিয়ে তাগেদা দেচ্চে। আমি কলাম বাপু আমি ভালো মুবাল চালাতি পারিনে। এট্টু পরে কোন বুজো লোকের কাচে যাইয়ে শুনে মেইলে দেকে দিচ্চি। এতক্ষন মিঠে মিঠে কতা কচ্চিল আমার এই কতা শুইনে হটাস খাররা হয়ে গ্যালো। কচ্চে আমরা একন লাইন ঠিক কচ্চি। এক্কনি না দিলি আপনার বিকাশ নম্বর বন্দ কইরে দেবে। ঝাড়ি খাইয়ে কলাম দিলি দেও কি আর করবো। কইয়ে দিলাম লাইন কাইটে। তারপর ভয়তে থুলাম মুবাল বন্দ কইরে। ঘন্টা খানেক মুবাল খুইলে টিপেটাপে দেকি না বিকাশ বন্দ হয়নি চইলতেচে।
ইতি
অভাগা আক্কেল চাচা
০১৭২৮৮৭১০০৩




সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft