শিরোনাম: কাঠালিয়ায় মুজিব বর্ষ উপলক্ষে ভাতাভোগী বাছাই কার্যক্রম        বিএনপি জনগণের দল নয় : তথ্যমন্ত্রী       এক হাজার কোটি টাকা পরিশোধ করলো গ্রামীণফোন       আমাদের সমাবেশ করতে দেয়া হয় না : ফখরুল       ভারতে সিএএ বিরোধী সমাবেশে ‘পাকিস্তান জিন্দাবাদ’ স্লোগান       সরকারের ভয়ে আমরা প্রতিবাদ করতে পারছি না : খসরু       খোকসা ইউএনওর আশ্বাসে ভাইরাল শিক্ষকদের বহিষ্কার আন্দোলন স্থগিত       গোপালগঞ্জে প্রাইমারি শিক্ষার্থীদের ‘স্টুডেন্ট কাউন্সিল নির্বাচন’       ‘মাদকসেবীরা সরকারি চাকরি পাবে না’       সরকার আরো বেশি দানবীয় রূপ ধারণ করেছে : ফখরুল      
‘সরকার সমৃদ্ধ রাষ্ট্র গড়তে দৃঢ়প্রতিজ্ঞ’
কাগজ ডেস্ক :
Published : Thursday, 20 June, 2019 at 7:52 PM
‘সরকার সমৃদ্ধ রাষ্ট্র গড়তে দৃঢ়প্রতিজ্ঞ’বস্ত্র ও পাট মন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী, বীরপ্রতীক বলেছেন, সরকার ২০৪১ সালের মধ্যে বাংলাদেশকে একটি উন্নত ও সমৃদ্ধ রাষ্ট্র হিসেবে গড়তে দৃঢ়প্রতিজ্ঞ এবং সুশাসন সংহত করার জন্য সচেষ্ট। এ জন্য একটি কার্যকর, দক্ষ এবং গতিশীল প্রশাসনিক ব্যবস্থা গঠনে সরকার কাজ করছে।
বৃহস্পতিবার সচিবালয়ে বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব গুলনার নাজমুন নাহারের (সচিবের অন্তঃবর্তিকালীন দায়িত্ব) সাথে এ মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন দপ্তর/সংস্থা প্রধানগণের (আগামি ১ জুলাই ২০১৯ থেকে ৩০ জুন ২০২০ অর্থবছরের জন্য) বার্ষিক কর্মসম্পাদন চুক্তি (এপিএ) স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন।
অনুষ্ঠানে মন্ত্রণালয়ের সকল কর্মকর্তা ও দপ্তর/সংস্থার প্রধানগণ উপস্থিত ছিলেন।
তিনি বলেন, ‘স্বচ্ছতা ও দায়বদ্ধতা বৃদ্ধি, সম্পদের যথাযথ ব্যবহার নিশ্চতকরণ এবং প্রাতিষ্ঠানিক সক্ষমতা উন্নয়নের জন্য দপ্তর/সংস্থাসমূহে এই কর্মসম্পাদন ব্যবস্থাপনা পদ্ধতি প্রবর্তনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এই বার্ষিক কর্মসম্পাদন চুক্তির (এপিএ) মূল লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য হল প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনা বাস্তবায়ন। এর মাধ্যমে সফলতার সাথে দ্রুতগতিতে বর্তমান সরকারের নির্বাচনী ইশতেহার, ২০১৮ সালে বর্ণিত লক্ষ্য ও পরিকল্পনা রূপকল্প ২০২১, টেকসই উন্নয়ন লক্ষমাত্রা (এসডিজি), ৭ম পঞ্চবার্ষিক পরিকল্পনা এবং সময়ে সময়ে সরকার কর্তৃক ঘোষিত কর্মসূচি বাস্তবায়ন। এই বার্ষিক কর্মসম্পাদন চুক্তি প্রত্যেককে কর্মমুখী সংস্কৃতির দিকে ধাবিত করবে। যা পর্যায়ক্রমে বাংলাদেশকে উন্নত দেশে পরিণত হতে সাহায্য করবে। এতে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর স্বপ্নের আধুনিক ও সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়ার কাজ আরো বেগবান হবে।’
মন্ত্রী বস্ত্র ও পাট খাতের উন্নয়নের লক্ষ্যে মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন সব দপ্তর/সংস্থা প্রধানকে চাহিদাভিত্তিক ও যৌক্তিক প্রকল্প প্রণয়নের পরামর্শ দেন। এছাড়া প্রত্যেককে তার নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানের কার্যক্রমকে আরো গতিশীল করে বস্ত্র, রেশম, তাঁত ও পাট শিল্পের হারানো ঐতিহ্য ফিরিয়ে আনতে কার্যকর ভূমিকা পালনের আহ্বান জানান।




« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »


সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft