শিরোনাম: ইউএনও ও পৌর মেয়রের সহযোগিতায় চিকিৎসার জন্য ঢাকায় প্রেরণ       গ্রেনেড হামলার দায় খালেদা জিয়ারও রয়েছে : তথ্যমন্ত্রী       কৃষি যন্ত্রের মানের দিকে গুরুত্ব দিতে হবে : কৃষিমন্ত্রী       জেলের তালা ভেঙেই খালেদা জিয়াকে মুক্ত করে আনতে হবে : দুদু       ‘হত্যার পর কাশ্মীরিদের অচিহ্নিত কবরে দাফন করছে ভারত’       ‘ডেঙ্গুতে মৃতের সংখ্যা প্রকাশ না করে সরকার গুজব আবিষ্কারে ব্যস্ত’       মিয়ানমারে ভয়াবহ সংঘর্ষে ৩০ সেনা নিহত       পশ্চিমবঙ্গে সোনার বিস্কুটের লোভে ডাকাতি, ৩ বাংলাদেশি গ্রেফতার       ইরান একটি অজেয় শক্তিতে পরিণত হবে       চীনে বাংলাদেশের নতুন রাষ্ট্রদূত মাহবুব উজ জামান      
কে হচ্ছেন ব্রিটেনের নতুন প্রধানমন্ত্রী, জনসন না হান্ট?
আন্তর্জাতিক ডেস্ক :
Published : Tuesday, 23 July, 2019 at 9:11 PM
কে হচ্ছেন ব্রিটেনের নতুন প্রধানমন্ত্রী, জনসন না হান্ট?যুক্তরাজ্যের নতুন প্রধানমন্ত্রীর নাম ঘোষণা এখন কেবল সময়ের ব্যাপার। মঙ্গলবার আরো পরের দিকে থেরেসা মের উত্তারাধিকারীর নাম জানা যাবে। অনেকে মনে করছেন, ব্রিটেনের নতুন প্রধানমন্ত্রী হয়ে ১০ ডাউনিং স্ট্রিটে প্রবেশ করতে চলেছেন সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী বরিস জনসন। তবে কিছু কিছু সংবাদমাধ্যম আবার দাবি করছে, বরিস জনসনের পক্ষে সংখ্যাগরিষ্ঠতা পাওয়া মুশকিল।
কনজ়ারভেটিভ পার্টির নেতা বাছাইয়ের জন্য ভোট পর্ব বন্ধ হয়েছে সোমবার। প্রধানমন্ত্রী পদপ্রার্থী হিসেবে দল থেকে অন্য যে নামটি বেশি শোনা যাচ্ছে তিনি বর্তমান পররাষ্ট্রমন্ত্রী জেরেমি হান্ট।
বরিস জনসন বা জেরেমি হান্ট, যারই নাম ঘোষণা হোক, ব্রিটেনের নতুন প্রধানমন্ত্রী শপথ নেবেন আগামীকাল বুধবার। ওই দিনই থেরেসা মে আনুষ্ঠানিক ভাবে রানি দ্বিতীয় এলিজ়াবেথের কাছে গিয়ে পদত্যাগপত্র জমা দেবেন। তার পরে ১০ ডাউনিং স্ট্রিট থেকে তিনি শেষ বারের জন্য বক্তৃতা দেবেন। নতুন প্রধানমন্ত্রী রানির সঙ্গে দেখা করবেন এবং তার পর তিনিও প্রধানমন্ত্রীর বাসভবন থেকে প্রথম বক্তৃতা দেবেন।
প্রধানমন্ত্রীর পদে কঠিন চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি হতে হয়েছে থেরেসা মে-কে। কিন্তু বিশেষজ্ঞরা বলছেন, বরিস জনসনের সামনে রাস্তাটাও খুব মসৃণ হবে না। ইতিমধ্যেই শাসক দলেরই ফিলিপ হ্যামন্ড হুমকি দিয়েছেন, বরিস প্রধানমন্ত্রীর পদে এলে তিনি পদত্যাগ করবেন। হ্যামন্ডের দাবি, বরিসের ব্রেক্সিট নীতির সঙ্গে তিনি সহমত নন। একই ভাবে ইস্তফার কথা জানিয়েছেন আইনমন্ত্রী ডেভিড গোক।
চুক্তি হোক বা না হোক, ৩১ অক্টোবর ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ) ছেড়ে বেরিয়ে যাবে ব্রিটেন— বরিস এই নীতিরই পক্ষে। তিনি বলেছেন, যে করে হোক, ৩১ অক্টোবর ইইউ ছেড়ে বেরোতেই হবে ব্রিটেনকে। তবে জেরেমি হান্ট অবশ্য বলেছেন, ব্রেক্সিট প্রক্রিয়া আরও পিছানোয় তার আপত্তি নেই। তিনি বেরিয়ে যাওয়ার জন্য নতুন চুক্তি তৈরিতেও পিছপা নন।
এর মধ্যে লেবার পার্টির প্রাক্তন দুই প্রধানমন্ত্রী টনি ব্লেয়ার এবং গর্ডন ব্রাউন জানিয়েছেন, ইইউ থেকে বেরনোর জন্য চুক্তিহীন ব্রেক্সিট অত্যন্ত বিপজ্জনক। তারা মনে করেন, কঠিন পরিস্থিতি থেকে ব্রিটেন আরও ভয়ঙ্কর জায়গায় পৌঁছবে। সূত্র: আনন্দবাজার





« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »


সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft