শিরোনাম: রাজশাহীর চারঘাটে পাঁচ হাজার মিটার কারেন্ট জাল জব্দ       তৃতীয় সমুদ্র বন্দর পায়রা সার্ভিস জেটি ও মোবাইল হারবার ক্রেনের কার্যক্রম শুরু       কলকাতার বাজার থেকে ৫০০ টন ইলিশ উধাও!       চাঁদপুর শহর রক্ষা বাঁধে ভাঙন প্রতিরোধে ফেলা হচ্ছে বালিভর্তি বস্তা       পড়াশোনা করে নিজেকে উচ্চ শিক্ষায় শিক্ষিত হতে হবে : হুইপ ইকবালুর রহিম এমপি       বাতিল হল আইসিসির সেই 'হাস্যকর' নিয়ম       নৌকার চেয়ে তিনগুণ বেশি ভোটে ধানের শীষের জয়       টাঙ্গাইলে বাঁশের সাঁকো ভেঙ্গে ১জন নিহত : আহত ৬       সুন্দরবনে র‌্যাব-জলদস্যু ‘গোলাগুলি’, নিহত ৪       ফ্রান্সকে রুখে দিল তুরস্ক      
বাংলাদেশের ইলিশ পেয়ে আনন্দে মাতোয়ারা পশ্চিমবঙ্গের মানুষ
কাগজ ডেস্ক :
Published : Wednesday, 2 October, 2019 at 8:26 PM
বাংলাদেশের ইলিশ পেয়ে আনন্দে মাতোয়ারা পশ্চিমবঙ্গের মানুষদীর্ঘ সাত বছর পর বাংলাদেশের সুস্বাদু ইলিশ পেয়ে আনন্দে মাতোয়ারা পশ্চিমবঙ্গের মানুষ। সোমবার সন্ধ্যায় বাংলাদেশের বেনাপোল ও ভারতের পেট্রাপোল স্থল বন্দর হয়ে মোট পাঁচটি ট্রাকে করে প্রথম চালানে ১০০ টন ইলিশ এসে পৌঁছায় ভারতে। যে ইলিশকে ঘিরে পশ্চিমবঙ্গের আম জনতার মধ্যে এখন রীতিমতো উতসাহ ও উদ্দীপনা তুঙ্গে। বাংলাদেশের ইলিশ এসে পৌঁছানোর সঙ্গে সঙ্গেই হাওয়ার গতিতে সেই খবর চাউর হয়ে যায় রাজ্যজুড়ে। সীমান্তে বাংলাদেশের ইলিশকে কার্যত স্বাগত জানাতে মানুষের ঢল নামে। রসনা তৃপ্ত না হোক একবার অন্তত বাংলাদেশের রুপোলি ফসলকে চোখে দেখতে ভিড় জমান বহু মানুষ।
বাংলাদেশের সেই ইলিশের স্বাদ পেতে চলেছে ভারতের পশ্চিমবঙ্গবাসী। অবশেষে সনাতন হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের অন্যতম উৎসব দুর্গাপূজায় বাংলাদেশ সরকারের শুভেচ্ছা হিসেবে ভারতে এলো পদ্মার ইলিশ মাছ। আর বাংলাদেশের ইলিশ আসার আনন্দে ভারতের পশ্চিমবঙ্গের মানুষ খুশিতে মাতোয়ারা। পশ্চিমবঙ্গের রাজনৈতিক নেতা-নেত্রী থেকে সেলেব দুনিয়া; ক্রীড়াজগৎ থেকে শুরু করে সংস্কৃতিজগৎ তথা ভোজনরসিক বাঙালির কাছে এবারের পূজায় পদ্মার ইলিশ যেন অনেকটাই উপরি পাওনা।
শনিবার থেকে বাংলাদেশের ইলিশের অপেক্ষায় পথ চেয়ে ছিল পশ্চিমবঙ্গের মানুষ। বাংলাদেশ থেকে ৫০০ টন ইলিশের প্রথম চালান গত সোমবার সন্ধ্যায় এসে ঢুকল পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যে। বাংলাদেশের বেনাপোল ও ভারতের পেট্রাপোল স্থলবন্দর দিয়ে ইলিশের প্রথম চালান হিসেবে ১০০ টন ইলিশ এদিন সন্ধ্যায় ভারতে এসে পৌঁছায়। মোট পাঁচটি ট্রাকে করে ভারতে আসে বাংলাদেশের ইলিশ। মঙ্গলবার সকালেই ঢুকে পড়ে কলকাতা ও সংলগ্ন বাজারগুলোতে। বাকি ইলিশ আগামী ১০ অক্টোবরের মধ্যে রাজ্যে ঢুকবে বলে জানা গেছে।
ভারত-বাংলাদেশ দুই দেশের কাস্টমস থেকে শুল্কমুক্ত সুবিধায় প্রথম চালানে আসা ১০০ টন ইলিশ রাজ্যে ঢুকে পড়ায় উৎসাহ আর উদ্দীপনায় মেতেছে পশ্চিমবঙ্গবাসী। রাজ্যটির অধিকাংশ আমজনতার ধারণা, পূজার মৌসুমে বাঙালির পাতে বাংলাদেশের ইলিশ এসে পড়ায় এবার পূজার আবহটাই বদলে যেতে চলেছে। কবজি ডুবিয়ে এবার ইলিশের হরেক পদের সঙ্গে জমবে পূজার খাওয়া-দাওয়া।
জানা গেছে, বাংলাদেশি মুদ্রায় ৫০০ টাকা কেজি দরে এই ইলিশ বিক্রি হবে কলকাতা ও কলকাতাসংলগ্ন বাজারগুলোতে। যা ভারতীয় রুপিতে কেজিপ্রতি দাম পড়বে ৪৩০ রুপির কিছু বেশি। প্রতি কেজি ইলিশের মূল্য ধরা হয়েছে আন্তর্জাতিক দরে ছয় ডলার, যা শুল্কমুক্ত সুবিধায় বাংলাদেশি টাকা হিসেবে কেজিপ্রতি দাম পড়বে ৫০০ টাকা। কলকাতা ও কলকাতাসংলগ্ন বাজারগুলোতে মূলত বাংলাদেশের ইলিশ ব্যাবসায়ীরা এই ইলিশ বিক্রি করবেন বলেও জানা গেছে। দুর্গাপূজা উপলক্ষে এই ইলিশ বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সরকার ভারতকে শুভেচ্ছা উপহার পাঠিয়েছেন। বাংলাদেশের ব্যবসায়ীরা কলকাতায় ইলিশ নিয়ে আসবেন। পরে কলকাতা ও কলকাতাসংলগ্ন বাজারে তা বিক্রি করবেন। মূলত কলকাতার বড় ও উল্লেখযোগ্য বাজারগুলোতেই এই বাংলাদেশি ইলিশ সবচেয়ে বেশি পাওয়া যাবে।
বাংলাদেশি ইলিশ পশ্চিমবঙ্গে আসায় খুশি ব্যক্ত করেছেন পশ্চিমবঙ্গের খাদ্যমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক। তিনি বলেন, ‘আমরা দীর্ঘদিন ধরে বাংলাদেশ সরকারের কাছে ইলিশের আবেদন জানিয়ে আসছিলাম। এবারে ঠিক পূজার মৌসুমে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এপার বাংলার মানুষের জন্য পূজার শুভেচ্ছা হিসেবে ৫০০ টন ইলিশ পাঠানোয় তাঁকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানাই। সেইসঙ্গে এবারের পূজায় পশ্চিমবঙ্গের বাঙালিরা বাংলাদেশের ইলিশ খেতে পারবেন, সেটা আমাদের কাছে পূজায় অবশ্যই একটা বাড়তি পাওনা।’
উল্লেখ্য, ২০১২ সালের পর থেকে ভারতে ইলিশ রপ্তানি বন্ধ করে দেয় বাংলাদেশ। তার পর থেকে বৈধভাবে বাংলাদেশের ইলিশ আর পশ্চিমবঙ্গে আসেনি। এবার ফের বৈধভাবে বাংলাদেশের ইলিশ আসার খবরে স্বভাবতই খুশি এপারের ইলিশপ্রিয় মানুষ।





« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »


সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft