শিরোনাম: `রোহিঙ্গাদের জন্য আর এক ইঞ্চিও বনভূমি দেয়া হবে না'       বঙ্গবন্ধু ফিল্ম সিটি হবে বিশ্বমানের : তথ্যমন্ত্রী       প্রত্যক্ষ বিদেশী বিনিয়োগ প্রবাহ বেড়েছে ১৯%       বাবরি মসজিদ মামলায় নতুন মোড়       দেশে ‘আওয়ামী অর্থনীতি’ প্রণীত হয়েছে : খসরু       উড্ডয়নের অপেক্ষায় বিশ্বের দীর্ঘতম বিরতিহীন ফ্লাইট       ‘শেখ হাসিনার আমলে সব ধর্মের মানুষ নিরাপদ’       আসামে বন্দিশালায় নিহত ২৬       জামায়াতকে তালাক দিয়ে রাস্তায় নামুন       পাকিস্তানের চাপ বাড়াতে সৌদি সফরে যাচ্ছেন মোদী      
পায়রা তাপ বিদ্যুৎকেন্দ্র উৎপাদনে যাচ্ছে ডিসেম্বরে
কাগজ ডেস্ক :
Published : Sunday, 6 October, 2019 at 7:18 PM
পায়রা তাপ বিদ্যুৎকেন্দ্র উৎপাদনে যাচ্ছে ডিসেম্বরে পটুয়াখালীর কলাপাড়ায় নির্মাণাধীন পায়রা তাপ বিদ্যুৎকেন্দ্র আগামী ডিসেম্বরে উৎপাদন শুরু করতে যাচ্ছে। উৎপাদন শুরু হলে প্রথম পর্যায়ে ৬৬০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ জাতীয় গ্রিডে যোগ হবে।
সংশ্লিষ্টরা বলছেন, দুটি ইউনিটে ভাগ করে পায়রা তাপ বিদ্যুৎকেন্দ্রের নির্মাণ কাজ শুরু করা হয়েছে। এরই মধ্যে প্রথম ইউনিটের কাজ শতকরা ৯০ ভাগ শেষ হয়েছে। আগামী দুই মাসে বাকি ১০ ভাগ কাজ শেষ করা সম্ভব হবে।
দেশের ক্রমবর্ধমান বিদ্যুতের চাহিদা পূরণে ২০১৬ সালে ২ বিলিয়ন মার্কিন ডলার বরাদ্দ নিয়ে পটুয়াখালীর কলাপাড়া উপজেলার ধানখালী ইউনিয়নের নিশানবাড়িয়া এলাকায় কয়লাভিত্তিক এই বিদ্যুৎকেন্দ্র স্থাপনের উদ্যোগ নেয় সরকার। ১ হাজার একরের বেশি জমিতে বাংলাদেশ ও চীনের দু’টি প্রতিষ্ঠান নর্থওয়েস্ট পাওয়ার জেনারেশন কোম্পানি এবং ন্যাশনাল মেশিনারি ইম্পোর্ট অ্যান্ড এক্সপোর্ট করপোরেশন (সিএমসি) যৌথভাবে এ বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণ করছে।
সূত্র জানায়, ডিসেম্বরে উৎপাদনে যেতে দ্রুত গতিতে চলছে নির্মাণ কাজ। এরই মধ্যে প্রকল্পের ইউনিট-১ ও ইউনিট-২ এর টারবাইন-জেনারেটর বসানো হয়েছে। প্রকল্পের মালামাল লোড-আনলোডের জন্য জেটির কাজও শেষ করা হয়েছে। এ ছাড়া প্লান্টের গুরুত্বপূর্ণ ওয়াটার ইন্টেক, কোল ডোম, কুলিং টাওয়ার, পানি পরিশোধন প্লান্ট, কনভেয়ার বেল্ট স্থাপনের কাজও প্রায় শেষ হয়ে এসেছে বলে জানান প্রকল্প পরিচালক শাহ মো. গোলাম মাওলা।
তিনি জানিয়েছেন, কাজ দ্রুত এগিয়ে চলছে, আগামী দুইমাসের মধ্যে বাকি কাজ শেষ করে প্রথম ইউনিট উৎপাদনের জন্য খুলে দেওয়া সম্ভব হবে। এখানে উৎপাদিত ৬৬০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ যুক্ত হবে গোপালগঞ্জের সাবস্টেশনে। সেখান থেকে সরবরাহ করা হবে জাতীয় গ্রিডে।
তিনবছর মেয়াদি প্রকল্পটি চলতি বছরে শেষ করার কথা ছিল। তবে শ্রমিক অসন্তোষ প্রকল্পের কাজ প্রায় ছয় মাস কাজ পিছিয়ে দিয়েছে। সর্বশেষ অবস্থা অনুযায়ী, ডিসেম্বরে প্রকল্পের প্রথম ইউনিট চালু হবে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা। বাকি ৬৬০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ পাওয়া যাবে ২০২০ সালে।
এ প্রসঙ্গে বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ জানিয়েছেন, দেশের প্রতিটি ঘরে নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সরবরাহের যে পরিকল্পনা সরকারের রয়েছে, সে উদ্যোগ বাস্তবায়ন হচ্ছে। প্রাথমিক পর্যায়ে পায়রা তাপ বিদ্যুৎকেন্দ্রের ইউনিট-১ উৎপাদনে যাচ্ছে। ইউনিট-২ এর কাজও দ্রুত শেষ করা হবে। এ কেন্দ্রটি পুরোপুরি চালু হলে এখান থেকে ১৩২০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ পাওয়া যাবে। পর্যায়ক্রমে অন্যান্য প্রকল্পগুলোর কাজও শেষ করা হবে।





« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »


সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft