শিরোনাম: খালেদার জন্য স্বেচ্ছায় কারাবরণের ডাক আমানের       নির্বাচন হলে প্রধান নির্বাচন কমিশনার মাছ ধরতে যান : দুদু       সীমান্ত থেকে কুর্দিদের সরিয়ে নিতে সম্মত এরদোগান-পুতিন       শেখ হাসিনার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করে কোনো লাভ হবে না       পেঁয়াজের নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করছে ভারত       শক্তি সম্পর্কে জানান দিতে সামরিক মহড়া শুরু করল ভারত       এবার হত্যা মামলায় ৭ দিনের রিমান্ডে খালেদ       কাশ্মীর নিয়ে আবারও যুক্তরাষ্ট্রের উদ্বেগ       প্রত্যর্পণ বিল বাতিল করল হংকং       ‘আদালত না থাকায় উপজেলার প্রকৃত সুফল থেকে বঞ্চিত জনগণ’      
স্বাচিপ নেতা ডা. তারিম আটক
খুলনা ব্যুরো :
Published : Friday, 11 October, 2019 at 12:58 AM
মেডিকেল কলেজে এমবিবিএস ভর্তি পরীক্ষায় প্রশ্নপত্র ফাঁসের সঙ্গে জড়িত সন্দেহে খুলনায় মেডিকেল ভর্তি কোচিং সেন্টার থ্রি ডক্টরসের পরিচালক ইউনুস খান তারিমকে আটক করা হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুর ১টার দিকে নগরীর বেনুবাবু রোড়ের জাহান মঞ্জিলে অবস্থিত  কোচিং সেন্টার থেকে তাকে আটক করা হয়। 
নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. ইমরান খান ও মো. মিজানুর রহমান ওই কোচিং সেন্টারে অভিযান চালিয়ে তারিমকে আটক করেন। এ সময় কার্যালয়ের সিসি ক্যামেরার ফুটেজ এবং কম্পিউটারের হার্ডিক্স জব্দ করা হয়। একই সময় একই ভবনের তৃতীয় তলায় অবস্থিত বিজ্ঞান প্রযুক্তি লাইব্রেরি অফিসেও অভিযান চালানো হয়। এই অফিসটাও থ্রি ডক্টরর্সের নিয়ন্ত্রণে ডা. রানা কর্তৃক পরিচালিত হয়। বেলা ১২টা থেকে দুপুর আড়াইটা পর্যন্ত এ অভিযান চলে।
আটক ডা. তারিম বিএমএর সদস্য, স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদের (স্বাচিপ) খুলনা জেলা সাংগঠনিক সম্পাদক ও খুলনা মেডিকেল কলেজ ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি।  
জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ইমরান খান বলেন, ১১ অক্টোবর (শুক্রবার) অনুষ্ঠিতব্য সরকারি ও বেসরকারি মেডিকেল কলেজের ভর্তি পরীক্ষাকে কেন্দ্র করে এক মাস দেশের সব কোচিং সেন্টার বন্ধ রাখার নির্দেশ দিয়েছে সরকার। সরকারি নির্দেশ উপেক্ষা করে থ্রি ডক্টরস খোলা রেখে তার পরিচালক ডা. তারিম শিক্ষার্থীদের নিয়ে ক্লাস চালাচ্ছেন।
তিনি জানান, এমবিবিএস ভর্তি পরীক্ষায় প্রশ্নপত্র ফাঁসে পরিচালক তারিম যুক্ত কিনা এ বিষয়ে তাকে জিজ্ঞাসাবাদ ও বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে। 
মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে এমবিবিএস ভর্তি পরীক্ষায় প্রশ্নপত্র ফাঁস রোধসহ সকল প্রকার অপ্রীতিকর ঘটনা প্রতিরোধে খুলনা জেলা প্রশাসন এই অভিযান পরিচালনা করে বলে জানান ইমরান খান। তিনি বলেন, পরে বিস্তারিত জানানো হবে।
রাষ্ট্রের একটি গোয়েন্দা সংস্থার প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, থ্রি ডক্টরস কোচিং সেন্টারের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা মেডিকেলের ভর্তি পরীক্ষার উত্তরপত্রে কারসাজি করে কয়েক বছর ধরে শিক্ষার্থী ভর্তি করে আসছেন। খুলনার এই কোচিং সেন্টার ভর্তি বাণিজ্যের মাধ্যমে ‘মেধাহীন’, ‘অযোগ্য’ ছাত্রছাত্রীদের মেডিকেলে ভর্তির সুযোগ করে দিচ্ছে। জনপ্রতি ৩৫ থেকে ৪০ লাখ টাকা করে নিয়ে যাচ্ছে। এই ভর্তি বাণিজ্যের মাধ্যমে বছরে শতকোটি টাকার বেশি অবৈধ লেনদেন চলছে।
খুলনা মহানগরীর কেন্দ্রস্থলে ফুল মার্কেটের কাছে একটি বহুতল ভবনে এ কোচিং সেন্টার অবস্থিত। এর মালিক ইউনুস খান তারিম একজন সরকারি চিকিৎসক। তিনি খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের একজন মেডিকেল অফিসার। 




« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »


আরও খবর
সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft