শিরোনাম: যশোর ডায়াগনস্টিক সেন্টার বন্ধ ঘোষণা        করোনায় যশোরে আরও একজনের মৃত্যু        যশোরে সরবরাহ বাড়লেও দাম কমছে না ইলিশের       যশোরে ২৫ কোটি টাকার চামড়া বিক্রি       নিষিদ্ধ পোল্ট্রি লিটার সরবরাহের দায়ে ২০ হাজার টাকা জরিমানা       মণিরামপুরে বাল্যবিয়ে বন্ধ করলেন ইউএনও       স্বপ্ন দেখোর মাদকবিরোধী প্রীতি ফুটবল ম্যাচ        ডুমুরিয়ায় সড়ক দুর্ঘটনায় সাবেক স্কুলশিক্ষক নিহত       মহেশপুরে ভারতীয় মদ ও ফেনসিডিলসহ ব্যবসায়ী আটক       পর্বতারোহী রেশমার দাফন নড়াইলে সম্পন্ন      
ঝাঁপা বাওড়ের জেলের উপর সোনার বাংলা মৎস্যজীবী সমবায় সমিতির হামলার অভিযোগ
অমারেশ বিশ্বাস,ঝাঁপা (মণিরামপুর) থেকে :
Published : Saturday, 25 January, 2020 at 6:50 AM
ঝাঁপা বাওড়ের জেলের উপর সোনার বাংলা মৎস্যজীবী সমবায় সমিতির হামলার অভিযোগমণিরামপুর উপজেলার ঝাঁপা বাওড়ের এক অসহায় জেলের উপর হামলা করা হয়েছে এই মর্মে অভিযোগ উঠেছে। হামলায় শিকার অসহায় জেলে উপজেলার রাজবাড়ি গ্রামের মৃত কার্ত্তিক বিশ্বাসের ছেলে সাধন বিশ্বাস (৪৫)। হামলাকারীরা হলেন ঝাঁপা বাওড়ের বর্তমান সভাপতি হানুয়ার গ্রামের অজিত বিশ্বাসের ছেলে শ্যামল বিশ^াস ও সাধারণ সম্পাদক রাজবাড়ি গ্রামের মৃত ধিরেন্দ্র নাথের ছেলে  দুলাল বিশ্বাস। সাধন বিশ্বাস অভিযোগ করে বলেন, গতকাল আমি ঝাঁপা বাওড়ে মাছ ধরতে গেলে আমাকে প্রথমে বাওড়ের পাহারাদার মোস্ত হোসেন মাছ ধরতে বাধা দেন। এরপর মোস্ত ফোন করে বাওড়ের সভাপতি শ্যামল বিশ্বাস ও সাধারণ সম্পাদক দুলাল বিশ্বাসকে ডেকে আনেন। এদের সাথে তখন আরো কিছু মস্তান ঘটনা স্থানে এসে কোন কিছু না বলে আমার উপর হামলা করে। এরপর তারা আমার একমাত্র সম্বল মাছ ধরা নৌকা করাত দিয়ে কেটে তিন টুকরা করে। নৌকা তিন টুকরা করেও তারা ক্ষান্ত হয়নি এরপর তারা আমার শেষ সম্বল মাছ ধরা জাল কেটে টুকরা টুকরা করে দেয়। আমি প্রতিবাদ করতে গেলে তারা আমার উপর আরো অত্যাচার করতে থাকে। এই সময় আমাকে বাঁচাতে এগিয়ে আসা  প্রফুল্ল বিশ্বাস, মনিশংকর বিশ্বাস, রাজকুমার বিশ্বাস, হারান বিশ্বাস ,বিনয় বিশ্বাস সবাইকে মারধর করে দুলাল বিশ্বাস ও শ্যামল বিশ্বাসের মস্তান বাহিনী। তিনি আরো বলেন, সোনার বাংলা মৎস্যজীবী সমবায় সমিতির ১১২ জন সদস্য ঝাঁপা বাওড়ের ৬০৫ একক জলমহালটি সরকারি ভাবে ইজারা নিয়ে মাছ চাষ করা হচ্ছে। আমি এই সমিতির অন্যতম একজন সদস্য। ৩ বছর আগে এই বাওড়ের ইজারা নিতে আমি অনেক সংগ্রাম করেছি। আমাকে দিয়ে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক সব ধরনের কাজ করিয়ে নিয়েছেন।  কিন্তু আমাকে তারা কোন দিন হিসাব দেননি। ঝাঁপা বাওড় তাদের দখলে চলে আসলে তারা সবাই মিলে আমার উপর অত্যাচার শুরু করে। আমি এর আগেও  কয়েকবার তাদের অত্যাচারের শিকার হয়েছি। 




« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »


সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft