শিরোনাম: যশোরের ১৯৩ মিলারের তালিকা অধিদপ্তরে       যশোরে আরও তিনজন করোনায় আক্রান্ত       ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগর: ২০০ বছরের মানুষটি       খুলনাকে মডেল বিভাগ হিসেবে গড়ে তুলতে চাই : জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী       দেশে তুন মৃত্যু ৩২, শনাক্ত ১২৭৫       ঝিনাইদহে গাঁজাসহ আটক ২       মাগুরায় দেয়াল চাপায় নিহত ২        খুলনায় রিফ্রেশার্স কোর্সের উদ্বোধন       প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে রীভা গাঙ্গুলির বিদায়ী সাক্ষাৎ       রাজশাহী সুগার মিলে কর্মকর্তা-কর্মচারী তিন মাস বেতন বন্ধ      
যশোরে করোনায় আরও দু’জনের মৃত্যু
সদরে ৭২ জনসহ নতুন ১৩৮ জন শনাক্ত
কাগজ সংবাদ
Published : Wednesday, 5 August, 2020 at 1:23 AM
সদরে ৭২ জনসহ নতুন ১৩৮ জন শনাক্তঈদের ছুটিতে গত পাঁচ দিনে যশোরে একশ’ ৩৮ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। মৃত্যু হয়েছে দু’জনের। মৃতরা হলেন যশোর সিভিল সার্জন অফিসে কর্মরত মেডিকেল অফিসার ডাক্তার জাহিদ হাসানের বাবা সরকারি সিটি কলেজের অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক অধ্যাপক আব্দুস সামাদ খান (৮৩) এবং যশোর বাগদহ গ্রামের ইসমাইল হোসেন (৭০)। এনিয়ে জেলায় মৃতের সংখ্যা দাঁড়াল ২৯ জনে।
সিভিল সার্জন ডাক্তার শেখ আবু শাহীন জানিয়েছেন, ৩০ জুলাই রাতে যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (যবিপ্রবি) জিনোম সেন্টার থেকে একশ’ ২৩টি নমুনা পরীক্ষার রিপোর্ট পাঠিয়েছে। এর মধ্যে পজিটিভ রেজাল্ট এসেছে ২৯ জনের। ৩১ জুলাই রাতে আরও দু’শ’ ৮৯টি নমুনার রিপোর্ট দেয়া হয়েছে। তার মধ্যে করোনা সংক্রমিত রোগী শনাক্ত হয়েছেন একশ’ পাঁচজন। দু’দফায় চারশ’ ১২টি নমুনা পরীক্ষায় একশ’ ৩৪ জন নতুন রোগী শনাক্ত হয়েছে। দুআগস্ট দুটি নমুনার মধ্যে একজন ও তিন আগস্ট ১১ জনের নমুনার মধ্যে তিনজনের করোনা শনাক্ত করা হয়েছে। মোট আক্রান্তের সংখ্যা একশ’ ৩৮ জন। নতুন শনাক্তদের মধ্যে সর্বোচ্চ সংখ্যক সদর উপজেলার বাসিন্দা রয়েছেন ৭২ জন। এছাড়াও কেশবপুরের ২২ জন, শার্শার ২১ জন, ঝিকরগাছার ১১ জন, মণিরামপুরের পাঁচজন, অভয়নগরের চারজন এবং চৌগাছা উপজেলার তিনজন রয়েছেন।
সিভিল সার্জন নিশ্চিত করেছেন ঈদের ছুটি থাকা সত্ত্বেও স্বাস্থ্য বিভাগের তরফ থেকে নতুন শনাক্ত হওয়া রোগীদের সাথে যোগাযোগ করে সুচিকিৎসা নিশ্চিত করতে যাবতীয় পদক্ষেপ বাস্তবায়ন করা হচ্ছে। এ ব্যাপারে প্রশাসন ও জনপ্রতিনিধিদের সহযোগিতা নেয়া হচ্ছে।
তিনি আরও জানিয়েছেন, করোনায় আক্রান্ত যশোর সিটি কলেজের অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক অধ্যাপক আব্দুস সামাদ খানের (৮৩) মৃত্যু হয়েছে। শুক্রবার সন্ধ্যায় মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। প্রফেসর আব্দুস সামাদ খান সিভিল সার্জন অফিসে কর্মরত মেডিকেল অফিসার ডাক্তার জাহিদ হাসানের বাবা। গত ১৭ জুলাই অধ্যাপক আব্দুস সামাদ করোনা শনাক্ত হয়েছিল। অবস্থা গুরুতর হওয়ায় তাকে যশোর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের করোনা ওয়ার্ডে ভর্তি রেখে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছিল। শুক্রবার সন্ধ্যার তিনি মারা যান। অপরদিকে, বাগদহ গ্রামের ইসমাইল হোসেন ২৬ জুলাই করোনা আক্রান্ত হয়ে যশোর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি হন। তখন তাকে করোনা ডেডিকেটেড যশোর বক্ষব্যাধী হাসপাতালে রেফার করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সোমবার সন্ধ্যায় তার মৃত্যু হয়।
এদিকে, মঙ্গলবার বিকেল পাঁচটা পর্যন্ত যশোরে নয় হাজার চারশ’ ৭১ জনের নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। রিপোর্ট পাওয়া গেছে আট হাজার একশ’ ৯৫ জনের। এদের মধ্যে করোনা আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা এক হাজার আটশ’ ৯৬ জন।  সুস্থ হয়েছেন এক হাজার একশ’ ৩৮ জন। হাসপাতাল আইসলেশনে আছেন ২২ জন। হোম কোয়ারেন্টাইনে আছেন সাতশ’ জন। রেফার করা হয়েছে আটজনকে।






« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »


সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft