আজ বৃহস্পতিবার, ৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, ২৩ নভেম্বর ২০১৭ খ্রিস্টাব্দ
শিরোনাম: ‘নোলক’এ ওমর সানি-মৌসুমী       'স্বামী-সন্তান আঁকড়ে ধরে বেঁচে থাকতে চাই'       কবে মুক্তি মিলবে জনগনের ?       নিবিড় পর্যবেক্ষণে মহিউদ্দিন চৌধুরী       কূটনৈতিক তৎপরতার মাধ্যমে রোহিঙ্গা সমস্যার সমাধান হবে : প্রধানমন্ত্রী       নিশ্চিত নাজমুল হুদা, অপেক্ষায় কাদের সিদ্দিকী        ২০ শিক্ষার্থীকে পিটিয়েছে ছাত্রলীগ নেতা!       মোদির গলা ও হাত কাটতে প্রস্তুত বিহারের অনেকেই!       ঘোড়ামারা আজিজসহ ৬ জনের মৃত্যুদণ্ড       এসএসসি পরীক্ষা শুরু ১ ফেব্রুয়ারি      
লেখাপড়ার স্বপ্নপূরণে রিক্সা চালিয়ে কলেজ করে রাসেল
স্বপ্না দেবনাথ :
Published : Tuesday, 24 October, 2017 at 2:32 AM, Update: 24.10.2017 1:43:30 AM
লেখাপড়ার স্বপ্নপূরণে রিক্সা চালিয়ে কলেজ করে রাসেলএপিজে আবদুল কালাম তাঁর অসামান্য কিছু উক্তির মধ্যে বলেছেন, ‘যারা মন থেকে কাজ করে না, তারা আসলে কিছুই অর্জন করতে পারে না। আর করলেও সেটা হয় অর্ধেক হৃদয়ের সফলতা। তাতে সব সময়ই একরকম তিক্ততা থেকে যায়।’ সে দিক বিবেচনায় আমরা অনেকেই এক রকম তিক্ততার সাথে পড়াশুনা শেষ করি। কিন্তু আমাদের চারপাশে এমন কিছু মানুষ আছেন যারা পড়াশুনার জন্য মন থেকে কাজ করেন। নিজের স্বপ্ন বাস্তবে রূপ দিতে ভিন্নভাবে চিন্তা করার সাহস নিয়ে যে পথে কেউ যায় নি, সে পথে চলেন। অসম্ভবকে সম্ভব করার সাহস নিয়ে এগিয়ে যান সামনের দিকে।
যশোর সরকারি এমএম কলেজের দ্বাদশ শ্রেণীর শিক্ষার্থী রাসেল আকরাম সেই ব্যতিক্রম মানুষদের মধ্যে একজন। এ বয়সে সংসার ও সমাজের নানা ঘাত প্রতিঘাতকে প্রতিনিয়ত মোকাবিলা করে যে তার পড়াশুনা চালিয়ে যাচ্ছেন রিক্সা চালিয়ে।
সন্তানের অনিচ্ছা সত্ত্বেও অনেক বাবা মা যখন হাজার হাজার টাকা খরচ করে পাঁচ সাতটা প্রাইভেট শিক্ষক রাখছেন তাদের ছেলে মেয়ের পড়াশুনার জন্য, তখন একটি কলম কিংবা খাতা কেনার জন্য রাসেলকে অপেক্ষা করতে হয় রিক্সার যাত্রির জন্য। নিয়মিত কলেজ করার পর বাড়ির বৃদ্ধ দাদা-দাদী, ছোট ভাই-বোনের মুখে অন্নের সংস্থান আর নিজের পড়া লেখার জন্য রাসেল রিক্সা চালায়।
যশোর এমএম কলেজের মানবিক শাখায় ৭৮১ রোল তার। তাদের আদি বাড়ি ছিল সাতক্ষীরা জেলার শ্যামনগরের শৈলখালির কৈখালি গ্রামে। বাবা মিজানুর রহমান এবং মা রাজিয়া খাতুন। তার বাবা মা থেকেও নেই। কেননা তারা দু’জনেই আলাদা সংসার পেতেছেন। মা বাবার সম্পর্কের চিড় রাসেলকে সহ্য করতে হয়েছে অনেক ছোট বয়সে। তাই বাবা মা থেকেও ষষ্ঠ শ্রেনী থেকে এতিম হিসেবে থাকতে হয়েছে খড়কী পীরবাড়ি আঞ্জুমানে ই খালেকিয়া এতিমখানায়। সেখানে থেকেই রাসেল যশোর মুসলিম একাডেমী থেকে পড়াশুনা করেছে। জেএসসিতে ৪.৬৯ এবং এসএসসি তে ৪.৩৩ নিয়ে পাশ করেছে। বর্তমানে সে খড়কীতে সাদেক আলী নামে এক ব্যক্তির বাড়িতে প্যারালাইস্ড রোগী দাদা, দাদী আর ছোট ভাই বোনের সাথে থাকে।    
নিজের বর্তমান অবস্থা নিয়ে রাসেল জানায়, যে কোনভাবে সে তার লেখা পড়া চালিয়ে যাবে। পাশাপাশি তার দাদা দাদীর প্রতি দায়িত্ব পালনে যতটুকু শ্রম দেয়ার তা সে দিয়ে যাবে। ছলছল চোখে হাস্যউজ্জ্বল রাসেল আরো জানায়, প্রতিদিন ঠিক মতো রিক্সা চালাতে পারলে দেড়শ’ থেকে ২শ’ টাকা আয় হয়। এর মধ্যে রিক্সা মালিককে তার চুক্তির টাকা দিতে হয়। প্রশাসনের সিদ্ধান্তের কারণে এখন আর ইঞ্জিন চালিত রিক্সা চালাতে পারছে না বলে বেশ কষ্ট হচ্ছে রাসেলের। দ্বাদশ শ্রেণীর শিক্ষার্থীকে কেউ টিউশুনিও দেন না উল্লেখ করে রাসেল আরো বলেন, যা দু’একজন ছেলে মেয়েকে পড়াতে চান তাদের দেয়া পারিশ্রমিকের চেয়ে রিক্সা চালানো ভালো।
আগামীতে রাসেল দেশের জন্য ভালো কিছু করার স্বপ্ন দেখে। সে জন্য তার পড়াশুনা চালিয়ে যাওয়াটা জরুরী। সে জানে না কত দিন অভাব আর প্রতিকূলতার সাথে তাকে লড়াই করতে হবে। আদৌ সে তার লড়াইয়ে জয়ী হবে কিনা! লাখো মানুষের ভিড়ে এমন এক দু’জন রাসেলের স্বপ্নকে বাস্তবে রূপ দান করা তেমন কোন কঠিন কাজ নয়। সমাজের বিত্তবান ব্যক্তিসহ সচেতন মহল যদি রাসেলের পাশে থাকে তবে তার স্বপ্ন বাস্তবে পরিণত হবে।





« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »


সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : gramerka@gmail.com, editor@gramerkagoj.com
Design and Developed by i2soft