শনিবার, ২৭ নভেম্বর, ২০২১
ওপার বাংলা
পঞ্চম দফা লোকসভা নির্বাচনেও পশ্চিমবঙ্গে সহিংসতা
কাগজ ডেস্ক :
Published : Monday, 6 May, 2019 at 8:22 PM
পঞ্চম দফা লোকসভা নির্বাচনেও পশ্চিমবঙ্গে সহিংসতাভারতের লোকসভা নির্বাচনের পঞ্চম দফায় বিক্ষিপ্ত অশান্তির মধ্যেই পশ্চিমবঙ্গে চলছে ভোটগ্রহণ। এদিন ভোট গ্রহণ শুরুর সঙ্গে সঙ্গেই সব থেকে বেশি অশান্তি হয় পশ্চিমবঙ্গের ব্যারাকপুর লোকসভা কেন্দ্রে।
এই কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী অর্জুন সিং রাজ্য পুলিশের সঙ্গে ধস্তাধস্তিতে জড়িয়ে পড়েন। তার অভিযোগ, পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য পুলিশ রাজ্যের শাসক দল তৃনমূল কংগ্রেসের হয়ে কাজ করছে। এই অভিযোগে রাজ্য পুলিশের কর্মকর্তাদের সঙ্গে প্রথমে তর্কাতর্কি এবং পরে হাতাহাতিতেও জড়িয়ে পড়েন তিনি।
বিজেপি প্রার্থী অর্জুন সিংয়ের অভিযোগ, স্থানীয় টিটাগড় থানার পুলিশ ইন্সপেক্টরের উপস্থিতিতেও তৃনমূলের সমর্থকরা তার ওপড় ইট ছুঁড়ে হামলা চালায়। হামলায় তার ঠোঁট ফেটে রক্তাক্ত হন তিনি। এই ঘটনার পরই ব্যাপক উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে ব্যারাকপুর লোকসভা কেন্দ্রে।
এই কেন্দ্রে বিজেপি ও সিপিএমের অভিযোগ, এলাকার বহু বুথে তাদের দলের এজেন্টদের বসতে দেয়নি তৃণমূল। এমনকি খবর পেয়ে স্বয়ং বিজেপি প্রার্থী অর্জুন সিং বুথে ঢুকতে গেলে তৃণমূলের এক এজেন্ট তাকে বাধা দেন। এই ঘটনায় রিপোর্ট চেয়ে পাঠিয়েছে নির্বাচন কমিশন।
অন্যদিকে, এদিন বনগাঁ লোকসভা কেন্দ্রে বিজেপির বাইক বাহিনীর তাণ্ডবের অভিযোগ উঠলো। বনগাঁর গাইঘাটার ফুলসরা খড়ের মাঠ এলাকার ১২৮ নম্বর বুথে বিজেপির বাইক বাহিনী তাণ্ডব চালায় বলে অভিযোগ।
তৃণমূলের উপর চড়াও হয়ে তাদের বাইক গুঁড়িয়ে দেয় বলেও জানা যায়। ঘটনায় আহত হন চারজন। এমনকী বিজেপির বাইক বাহিনী, নিরীহ মানুষদের জয় শ্রীরাম বলানোর চেষ্টা করে বলেও অভিযোগ। যদিও সেই অভিযোগ অস্বীকার করেছে বিজেপি।
অন্যদিকে, এদিন ব্যারাকপুরের বীজপুরের একটি বুথে ভোটাররা দুইবার করে ভোট দিলেন। প্রায় ৮৫ জন ভোটার একই দিনে দ্বিতীয়বার ভোট দিলেন বলে জানা যায়। বীজপুরের ১১৬ নম্বর বুথে ইভিএম-এ মকপোলের সংখ্যা না মুছেই ভোটগ্রহন শুরু হয়ে যায়। ফলে পুরনো ভোটের চিহ্ন থেকে যায় ইভিএমের মধ্যে। এরপর বিষয়টি খেয়াল হতেই ফের ইভিএম ফরম্যাট করে শুরু হয় দ্বিতীয়বার ভোটগ্রহন।
এদিন হুগলি লোকসভা আসনের ধনেখালিতে বিজেপির পোলিং এজেন্টকে বের করে দেওয়ার অভিযোগে প্রিসাইডিং অফিসারের সঙ্গে বচসায় জড়ান এই কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী অভিনেত্রী লকেট চট্টয়াপধ্যায়।
এছাড়াও এদিন পশ্চিমবঙ্গের বিভিন্ন কেন্দ্র থেকে ছাপ্পা ভোট, ভোটারদের প্রভাবিত করা এবং বিরোধী ভোটারদের ভোটদানে বাধা দেওয়ার অভিযোগ ওঠেছে রাজ্যটির শাসক দল তৃণমূলের বিরুদ্ধে।
এদিন ভোটগ্রহন শুরুর পর বজু কেন্দ্রে ইভিএম মেশিন খারাপ হয়ে ভোট গ্রহণে বিলম্ব ঘটে বলেও জানা যায়। পশ্চিমবঙ্গের বনগাঁ, ব্যারাকপুর, হাওড়া, হুগলি, উলুবেড়িয়া, শ্রীরামপুর ও আরামবাগ কেন্দ্রে চলছে ভোটগ্রহণ। এ দিন পশ্চিমবঙ্গের ৭টি লোকসভা কেন্দ্রে ভোটাররে সংখ্যা ১ কোটি ৬১ লক্ষ ৯১ হাজার ৮৮৯ জন। প্রার্থীর সংখ্যা রয়েছেন ৮৩ জন।
অন্যদিকে, এদিন কাশ্মীরে গ্রেনেড হামলার ঘটনা ঘটলো। এদিন সকালে জম্মু-কাশ্মীরের লাদাঘ লোকসভা আসনের পুলওয়ামা ও শোপিয়ান ভোটগ্রহন চলছিলো। সকালে ভোটগ্রহন শুরুর পরেই সোপিয়ানের দুটি বুথের সামনে গ্রেনেড হামলা হয় বলে জানা গিয়েছে। এই দুটি বুথই ছিলো স্থানীয় একটি স্কুলে। তবে এই গ্রেনেড হামলা জঙ্গিদের কিনা সেটা স্পষ্ট নয়। ঘটনায় হতাহতের কোনও খবর পাওয়া যায়নি।
প্রসঙ্গত, গত শুক্রবার সোপিয়ানে হিজবুলের দুই কম্যান্ডারকে নিকেশ করে ভারতীয় সেনা। যার জেরে এদিনের এই হামলা বলে মনে করা হচ্ছে। এই জম্মু কাশ্মীরে এক দিন আগেই স্থানীয় এক বিজেপি নেতাকে গুলি করে খুন করেছে জঙ্গিরা। ফলে লোকসভা ভোট বানচাল করাই যে জঙ্গিদের মুখ্য উদ্দেশ্য তা এদিনের গ্রেনেড হামলা থেকেই স্পষ্ট।
এমনিতেই জম্মু-কাশ্মীরে গত দফাগুলিতে ভোট পড়ার হার ছিলো একেবারেই কম। এখানে ভোট প্রচারেও তেমন উৎসাহ দেখা যায়নি রাজনৈতিকদলগুলির মধ্যে। তার মধ্যেই এদিন সকালে নিরাপত্তারক্ষীদের নজর এড়িয়ে গ্রেনেড বিস্ফোরন ঘটানো হয়। ফলে আতঙ্কের বাতাবরণ তৈরি হয়েছে।



সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft