শনিবার, ১৬ অক্টোবর, ২০২১
দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চল
মিঠু শেখ হত্যা মামলা
জামিন পেলেন সবুজ, প্রকৃত আসামি জনি কারাগারে
কাগজ সংবাদ :
Published : Thursday, 23 May, 2019 at 6:42 AM
প্রকৃত আসামি না হয়েও তিন মাস চার দিন কারাগারে আটক থেকে  সবুজ বিশ্বাস বুধবার জামিন পেয়েছেন। একই দিন এ মামলার প্রকৃত আসামি খোলাডাঙ্গা গ্রামের লুৎফর রহমানের ছেলে জনি হোসেনকে আটক করে আদালতে সোপর্দ করেছে পুলিশ। আদালত জনিকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দিয়েছেন ও সবুজের জামিন মঞ্জুর করেছেন। বুধবার অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ প্রথম আদালতের ভারপ্রাপ্ত বিচারক আয়শা নাসরিনের এজলাসে শুনানী শেষে এ আদেশ দেয়া হয়। এছাড়া এদিন সবুজকে আটককৃত কর্মকর্তা এ এস আই সোহেল রানা আদালতে লিখিত জবানবন্দি দাখিল করেন। পাশাপাশি মিঠু শেখ হত্যা মামলায় সম্পূরক চার্জশিট দাখিলের জন্যে থানা পুলিশের প্রতি আদেশ দেয়া হয়।
২০০৯ সালের ২৫ সেপ্টেম্বর পুলেরহাট বাজার থেকে বেড়বাড়ি গ্রামের মিঠু শেখকে অপহরণ করে নিয়ে যায় তফসিডাঙ্গার ইসমাইল ও খোলাডাঙ্গা কদমতলার জনি। পরদিন আরিচপুর বিলের হলুদ ক্ষেতের মধ্যে মিঠুর লাশ পাওয়া যায়। এ ব্যাপারে নিহতের ভাই ইসরাইল বাদী হয়ে নয়জনের নাম উল্লেখ করে কোতোয়ালী থানায় একটি হত্যা মামলা করেন। এ মামলার তদন্ত শেষে  আটজনকে অভিযুক্ত করে আদালতে চার্জশিট জমা দেন তদন্তকারী কর্মকর্তা। চার্জশিটভুক্ত পাঁচ নম্বর আসামি খোলাডাঙ্গা কদমতলা এলাকার লুৎফরের ছেলে জনি (২৬)। জনি পলাতক থাকায় এ আদালত থেকে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করা হয়। তার প্রেক্ষিতে গত ১৭ ফেব্রুয়ারি পুলিশ এ মামলার আসামি না হলেও সবুজকে আটক করে জনি বলে আদালতের সোপর্দ করে। পরে আদালত সবুজকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন। বিষয়টি জানাজানি হলে বিভিন্ন মহলে সমালোচনার ঝড় ওঠে। এক পর্যায় পুলিশের পক্ষ থেকে সবুজকে আটকের বিষয়ে ভুল স্বীকার করা হয়। পাশাপাশি মিঠুর খুনি জনিকে খুঁজতে থাকে পুলিশ। এরই মধ্যে নিজেকে আড়াল করতে জনি প্রেসক্লাব যশোরে সংবাদ সম্মেলন করেন। আর সেই দিনই সংবাদ সম্মেলন শেষে পুলিশের খাঁচায় বন্দি হন জনি। গত মঙ্গলবার জনিকে মিঠুর প্রকৃত খুনি হিসেবে আদালতে সোপর্দ করে থানা পুলিশ। পাশাপাশি বুধবার জনি আটক এবং জামিন শুনানী শেষে সবুজকে জামিন দেয়া হয়েছে। এরই মধ্যে পুলিশ প্রকৃত আসামি জনিকে আটক করে আদালতে সোপর্দ করে। আদালত জনিকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন  ও সবুজকে জামিনে মুক্তি দেন। উল্লেখ্য, চার্জশিটে জনির পিতার নাম লুৎফরের জায়গায় ভুল করে খায়রুল লিখেছে। 



সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft