বুধবার, ২৫ নভেম্বর, ২০২০
সারাদেশ
চাঁদপুরে রাতের বেলা পানের মেলা!
এ কে আজাদ, চাঁদপুর থেকে :
Published : Saturday, 14 September, 2019 at 9:14 PM
চাঁদপুরে রাতের বেলা পানের মেলা!চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জ উপজেলার এক প্রত্যন্ত গ্রাম পশ্চিম লাঢ়ুয়া। এ গ্রামের রামপুর বাজারে গভীর রাতে বসে জেলার সবচেয়ে বড় পানের হাট। সপ্তাহে শনিবার ও বুধবার দুই দিন মধ্যরাতে বসে হাট। রাতের গভীরতার সাথে পাল্লা দিয়ে ক্রেতা-বিক্রেতাদের হাক ডাকে জেগে ওঠে হাট ও আশপাশের জায়গা। দিনের আলো ফোটার আগেই প্রতি হাটে লাখ লাখ টাকার পান বেঁচাকেনা হয় এখানে। সকালের আলো ফুটতেই মিলিয়ে যায় এই পানের হাট। রামপুরের ঐতিহ্যবাহী রাতের এই পানের হাট এখন দেশখ্যাত।
স্থানীয়রা জানায়, চাঁদপুরের হাইমচর উপজেলা মিঠা পান চাষাবাদের জন্য বিখ্যাত। সারা দেশে এ পানের চাহিদাও বেশ ভালো। দিনের বেলা যাতে কৃষকরা কৃষি কাজে সময় দিতে পারে, সেজন্য প্রায় ৬৫ বছর আগে হাইমচর-ফরিদগঞ্জ উপজেলার সীমান্তবর্তী পশ্চিম লাঢ়ুয়া গ্রামে রাতের বেলা পান বেঁচাকেনার হাটের প্রচলন করা হয়। মধ্যরাতে ঘুম থেকে জেগে পানচাষীরা তাদের পান বিক্রি করতে নিয়ে আসে হাটে। দূর-দূরান্ত থেকে আসা পাইকাররা চাষীদের নিকট থেকে পান কিনে ভোর রাতেই রওনা দেয় তাদের গন্তব্যে।
সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, চাঁদপুর, লক্ষ্মীপুর, কুমিল্লাসহ আসপাশের বিভিন্ন জেলা-উপজেলা থেকে পাইকাররা হাটে আসেন পান কিনতে। বেঁচাকেনা করতে আসা শত শত ক্রেতা-বিক্রেতার হাকডাকে মধ্যরাতে জেগে ওঠে প্রত্যন্ত গ্রামের এই পানের হাট। লাখ লাখ টাকার পান বেচাকেনা শেষে সকাল হতেই হাটের কার্যক্রম সমাপ্ত হয়। প্রতিহাটে এক লক্ষাধিক বিড়া পান বিক্রি হয় এখানে।
পান কিনে ভোর রাতেই দেশের বিভিন্ন জায়গায় রওনা দেন পাইকাররা। আর চাষীদের ব্যস্ততা বাড়ে তাদের কৃষি কাজ নিয়ে। এতে করে ক্রেতা-বিক্রেতারা দিনের পুরোটা সময় কাজে ব্যয় করতে পারে। তাই দিন দিন জনপ্রিয় হয়ে উঠছে এই পানের হাট।
লক্ষ্মীপুর জেলার রামগঞ্জ উপজেলা থেকে পান কিনতে আসা পাইকার আব্দুর রহমান, আলী বেপারী ও ওহিদুর রহমান বলেন, আমরা দীর্ঘকাল থেকে এই হাটে আসি পান কেনার জন্য। মধ্যরাতে পান ক্রয় করে সকাল সকাল রওনা হয়ে যাই পান নিয়ে। এই হাটে পানের দাম তুলনামূলক কম পাওয়া যায়। তাছাড়া এখানকার নিরাপত্তা ব্যবস্থাও অনেক ভালো। হাইমচর ও এর আশপাশে উৎপাদিত মিষ্টি পানের চাহিদা অনেক। আমরা এই বাজার থেকে পান কিনে তা দেশের বিভিন্ন স্থানে বিক্রি করে থাকি।চাঁদপুরে রাতের বেলা পানের মেলা!
হাইমচর উপজেলার আলগী বাজার এলাকার পান চাষী ফারুক হোসেন ও হারুন মিয়া বলেন, স্বাধীনতা যুদ্ধেরও অনেক আগে থেকে এই বাজারে পানের হাট বসে আসছে। আমরা ভোর সকালের মধ্যে পান বেঁচে দিয়ে সকাল থেকে নিজেদের কৃষি কাজ করতে পারি। এতে করে আমাদের সময় অপচয় হয় না বলে জানান তারা।
রামপুর বাজারের ইজারাদার মো. তাফায়েল ভূইয়া বলেন, প্রায় ৬৫ বছর আগে থেকে এই বাজারে পানের হাট বসে আসছে। স্থানীয় পানচাষীদের সুবিধার্থে মধ্যরাতে পান বেঁচাকেনার প্রচলন হয়। যাতে করে তারা পান বিক্রি করে নিজেদের কাজে সময় দিতে পারেন। বর্তমানে প্রতিহাটে এখানে প্রায় ৬০ থেকে ৭০ লক্ষ টাকার পান বেঁচাকেনা হয়ে থাকে। ক্রেতাবিক্রেতাদের নিরাপত্তায় এখানে দুইজন নাইটগার্ড নিয়োজিত রয়েছে। এই হাট থেকে পাইকাররা পান কিনে দেশের বিভিন্ন স্থানে বিক্রি করে থাকে বলে জানান তিনি।



সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft