সোমবার, ৩০ নভেম্বর, ২০২০
জাতীয়
বার্ড হিট আতঙ্ক:
বিমানবন্দরে পাখি তাড়াতে আসছে বন্দুক
কাগজ ডেস্ক :
Published : Monday, 18 November, 2019 at 5:14 PM
বিমানবন্দরে পাখি তাড়াতে আসছে বন্দুকমশা মারার মত এবার পাখি তাড়াতেও দেখা মিলবে কামানের। তবে মশা মারার কামান থেকে ধোঁয়া বের হলেও পাখি তাড়ানোর কামানের বের হবে শব্দ। ‘দুম দুম’ আওয়াজ শুনে ধারেকাছে আসবে না পাখি।
শীত এলেই দেশে অতিথি পাখির আগমন ঘটে। পাখির আগমন সুখকর হলেও উড়োজাহাজে যাতায়াতকারীদের জন্য তারা বড় ঝুঁকির কারণ।
এয়ারলাইন্স ও সিভিল এভিয়েশন কর্তৃপক্ষ মনে করছে, দেশের বিমানবন্দরগুলোয় পাখি তাড়ানোর কার্যকর ব্যবস্থা না থাকায় বার্ড হিটের (পাখির আঘাত) কারণে সামনে উড়োজাহাজ ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার পাশাপাশি বড় ধরনের দুর্ঘটনার ঝুঁকি রয়েছে।
বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের (বেবিচক) চেয়ারম্যান এয়ার ভাইস মার্শাল মো. মফিদুর রহমান বলেন, উড়ন্ত পাখি উড়োজাহাজ চলাচলের জন্য ঝুঁকি। বার্ড হিটের কারণে বিমান চলাচলে ঝুঁকির বিষয়টি মাথায় রেখে সমস্যা উত্তরণে অচিরেই জার্মানি থেকে অত্যাধুনিক ২১টি সাউন্ড বার্ড গান আনা হচ্ছে। এই শব্দ বন্দুক ব্যবহারে পাখি মরবে না, তবে বিকট আওয়াজের কারণে ভয়ে পালিয়ে যাবে। প্রাথমিকভাবে শাহজালাল বিমানবন্দরে এগুলো ব্যবহার করা হবে। পর্যায়ক্রমে অন্যান্য বিমানবন্দরেও এই গান বসানো হবে।
এয়ারলাইন্স সংশ্লিষ্টরা বলছেন, বিমান চলাচল নির্বিঘ্ন করতে আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরগুলোয় আধুনিক ‘বার্ড শুটার’ ইউনিট রয়েছে। এই শুটাররা সপ্তাহে সাতদিন বিমানবন্দরের আকাশে নিয়মিত পাখি শিকার বা তাড়িয়ে উড়োজাহাজ চলাচল ঝুঁকিমুক্ত রাখেন। কিন্তু বাংলাদেশের বিমানবন্দরগুলোয় বার্ড শুটার বা এর চেয়ে আধুনিক কোনো পদ্ধতি নেই। হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর চলছে মান্ধাতা আমলের ৬টি বন্দুক দিয়ে। সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত এগুলো চালান সাতজন বার্ড শুটার। চট্টগ্রামের শাহ আমানত আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরসহ অন্যান্য বিমানবন্দরের অবস্থা আরও খারাপ। ফলে পাখির আঘাতের কারণে প্রায়ই যাত্রীবাহী ফ্লাইট চলাচল ব্যাহত হচ্ছে। পরিস্থিতি এতটাই ভয়াবহ যে, গত ৫ বছরে দেশের বিভিন্ন বিমানবন্দরে উড়োজাহাজের ইঞ্জিনে পাখি ঢোকা এবং সংঘর্ষের অন্তত ২০টি ঘটনা ঘটেছে।
গত ২ নভেম্বর শাহ আমানত আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণের আগে ইঞ্জিনে পাখির আঘাতে ইউএস বাংলার এয়ারলাইন্সের একটি যাত্রীবাহী ফ্লাইট দুর্ঘটনার কবলে পড়ে। পাইলট দক্ষতার সঙ্গে অবতরণ করালেও উড়োজাহাজটি ক্ষতিগ্রস্ত হয়। এরপর গত ১৪ অক্টোবর উড্ডয়নের পর পাখির আঘাতের কারণে শাহজালাল বিমানবন্দরে জরুরি অবতরণে বাধ্য হয় বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের বোয়িং ‘ময়ূরপঙ্খী’।
২০১৭ সালে বিমানবন্দরে পাখি নিয়ন্ত্রণে বাংলাদেশে ন্যাশনাল সিভিল এভিয়েশন ওয়াইল্ড লাইফ/বার্ড হ্যাজার্ড কন্ট্রোল কমিটি তৈরি করেছিল বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়। কোন ধরনের পাখি কোন মৌসুমে কেন আসে এসব বিষয় নিয়ে গবেষণা, বিমানবন্দর ও এর আশপাশ এলাকার বর্জ্য ব্যবস্থাপনা নজরদারি, নিয়মিত বার্ড স্ট্রাইক নজরদারিসহ বিভিন্ন সমস্যা চিহ্নিত ও সমাধান করার বিষয়েও তাদের কাজ করার কথা। তবে তার সুফল এখনো মেলেনি।




সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft