শুক্রবার, ১৫ জানুয়ারি, ২০২১
তথ্য ও প্রযুক্তি
বাংলাদেশের বিজ্ঞানী ভাসমান ট্রেন আবিষ্কার করে তাক লাগালেন
কাগজ ডেস্ক :
Published : Wednesday, 20 November, 2019 at 6:49 AM
বাংলাদেশের বিজ্ঞানী ভাসমান ট্রেন আবিষ্কার করে তাক লাগালেনবাংলাদেশের বিজ্ঞানী ভাসমান ট্রেন আবিষ্কার করে তাক লাগালেন বাংলাদেশি গবেষক ড. আতাউল করিম
বাংলাদেশি গবেষক ড. আতাউল করিম ভাসমান ট্রেন আবিষ্কার করে সারা বিশ্বকে তাক লাগিয়ে দিয়েছেন। এমন একটি ট্রেনের নকশা করেছেন বাংলাদেশের এই বিজ্ঞানী- যা চলার সময় ভূমিই স্পর্শ করবে না! ফলে পৃথিবী জুড়ে রীতিমত সাড়া ফেলে দিয়েছে তার এ অভিনব আবিষ্কার।
বিজ্ঞাপন
বিভিন্ন দেশে ইতিমধ্যেই এ ট্রেন বাণিজ্যিকভাবে উৎপাদনের চিন্তা ভাবনা চলছে। জানা গিয়েছে, তিনি ২০০৪ সালে এ ভাসমান ট্রেনের প্রকল্পটি হাতে নেন। দেড় বছরের মাথায় ট্রেনটির প্রোটোটাইপ তৈরি করতে সক্ষম হন। যেখানে ৭ বছর চেষ্টা করেও ওল্ড ড্যামিয়ান ইউনিভার্সিটির গবেষকেরা সফলতা পায়নি।
পরের সময়টায় নাম করা বিজ্ঞানীরা এ মডেলটি পরীক্ষা নিরীক্ষা করে দেখেছে। কিন্তু কোন খুঁত খুঁজে না পাওয়ায় এটা বাণিজ্যিকভাবে উৎপাদনের সিদ্ধান্ত হয়েছে। ড. আতাউল করিম ট্রেনের প্রচলিত ধারাকে পেছনে ফেলে সম্পূর্ণ নতুন এক পদ্ধতিতে এই ট্রেনের ডিজাইন করেছেন। খুবই আকর্ষণীয় এ ট্রেনের গঠনশৈলী। এর প্রধান বৈশিষ্ট্য, এটা চলার সময় ভূমিই স্পর্শ করবে না। ট্রেনটি চুম্বক শক্তিকে কাজে লাগিয়ে সাবলীলভাবে চলবে।
এর গতিও অনেক বেশি হবে। অনেকটা বুলেট ট্রেনের মত! জার্মানি, চিন ও জাপানে আবিষ্কৃত হয়েছে ১৫০ মাইলের বেশি গতির ট্রেন। তবে এগুলির সাথে আতাউল করিমের ভাসমান ট্রেনের পার্থক্য হচ্ছে, ওই ট্রেনে প্রতি মাইল ট্র্যাক বসানোর জন্য গড়ে ১১ কোটি ডলার খরচ পড়ে। আর সে জায়গায় আতাউল করিমের আবিষ্কৃত এই ট্রেনে খরচ হবে ১ কোটি ২০ লাখ থেকে ৩০ লাখ ডলার মাত্র।




সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft