সোমবার, ৩০ নভেম্বর, ২০২০
দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চল
দড়াটানা থেকে হযরত গরীবশাহ (র.) মাজার পর্যন্ত
ভৈরব পাড়ে সড়ক নির্মাণ শুরু
ভৈরব অংশে প্রশস্ত হচ্ছে ১৭ ফুট
জাহিদ আহমেদ লিটন :
Published : Sunday, 8 December, 2019 at 6:20 AM
ভৈরব পাড়ে সড়ক নির্মাণ শুরুযশোর শহরের ভৈরব নদের পাড়ে সড়ক নির্মাণ কাজ শুরু হয়েছে। দড়াটানা থেকে হযরত গরীবশাহ (র.) মাজার পর্যন্ত এক হাজার ফুট সড়ক ডাবল লেনে উন্নতি করা হচ্ছে। ভৈরব নদের অংশে সড়কটি প্রশস্ত হচ্ছে ১৭ ফুট। এ লক্ষ্যে গত এক সপ্তাহ যাবৎ সড়কের পাশে মাটি ভরাটের কাজ চলছে। সড়কটির নির্মাণ ব্যয় ধরা হয়েছে আড়াই কোটি টাকা। যশোর সড়ক ও জনপথ বিভাগ শহরের যানজট নিরসনে এ প্রকল্প বাস্তবায়ন করছে।
সূত্র জানায়, যশোর পানি উন্নয়ন বোর্ড কর্তৃপক্ষ শহরের ওপর দিয়ে বয়ে যাওয়া ভৈরব নদ খনন ও দখলদার উচ্ছেদ অভিযান অব্যাহত রেখেছে। সর্বশেষ গত ২৮ মার্চ ভৈরব নদের পাড়ে উচ্ছেদ অভিযান চালিয়েছে জেলা প্রশাসন। তারা নদের পাড় থেকে ৮৪টি অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করে। এছাড়া উচ্ছেদের তালিকায় রয়েছে আরও ৫৯টি অবৈধ স্থাপনা। ইতোমধ্যে দড়াটানামোড় থেকে রেজিস্ট্রি অফিসের সামনে পর্যন্ত হযরত গরীবশাহ সড়কের বই মার্কেটসহ বিভিন্ন স্থাপনা বুলড্রোজার দিয়ে অপসারণ করা হয়। এরপরই দড়াটানামোড় থেকে হযরত গরীব শাহ মাজার পর্যন্ত সড়কটির ভৈরব নদের অংশ ফাঁকা হয়ে যায়। এ অবস্থায় যশোর সড়ক ও জনপথ কর্তৃপক্ষ শহরের যানজট নিরসনে সড়কটি প্রশস্তকরণ প্রকল্প গ্রহণ করে। তারা শহরের দড়াটানামোড় থেকে হযরত গরীবশাহ মাজার পর্যন্ত সড়কটি ডাবল লেনে উন্নয়নের পরিকল্পনা গ্রহণ করে। প্রায় এক হাজার ফুট দৈর্ঘের এ সড়কটির উন্নয়ন ব্যয় ধরা হয়েছে ২ কোটি ৬১ লাখ টাকা।
সড়ক ও জনপথ বিভাগের তথ্যানুযায়ী, বর্তমানে হযরত গরীব শাহ সড়কটি ১৮ ফুট চওড়া রয়েছে। এটি ডাবল লেন করে ৩৬ ফুটে উন্নিত করা হচ্ছে। সড়কের মাঝখানে থাকবে ডিভাইডার। সড়কটি দড়াটানামোড় থেকে হযরত গরীবশাহ (র.) মাজার পর্যন্ত লম্বা হচ্ছে তিনশ মিটার (প্রায় এক হাজার ৫০ ফুট) ও নতুন করে চওড়া হচ্ছে পাঁচ মিটার (১৭ ফুট)। ভৈরব নদের অংশেই সড়কটি প্রশস্থ করা হচ্ছে। নদের পাড় বাঁধাই করে বর্ধিত অংশ নির্মাণ করা হবে। তবে নদের পাড়ের এ অংশের সড়কটি বিশেষভাবে ও টেকসই পদ্ধতিতে নির্মাণ করা হবে বলে সূত্রটি জানিয়েছে।
কর্তৃপক্ষ বলেছেন, এ সড়কের পাশ থেকে অবৈধ দখলদার উচ্ছেদ হবার পর সওজ কর্তৃপক্ষ শহরের যানজট নিরসনে প্রশস্তকরণের উদ্যোগ গ্রহণ করে। এতে একপাশে ভৈরবপাড়ের সৌন্দর্য বৃদ্ধি পাবে ও ব্যস্ততম সড়কটি থেকে যানজট নিরসন হবে। টেন্ডারে এ সড়কের উন্নয়ন কাজ পেয়েছেন খুলনার খানজাহান আলী রোডের ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান মেসার্স মোজাহার এন্টারপ্রাইজ। গত ২৩ সেপ্টেম্বর ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানকে উন্নয়ন কাজ করার ওয়ার্কঅডার দেয়া হয়েছে। ঠিকাদার দু’মাস পর গত ২৮ নভেম্বর থেকে এ কাজ শুরু করেন। প্রথমেই তারা বুলডোজার দিয়ে নদের মাটি কেটে পাড় বাঁধাইয়ের কাজ করছেন। নদের এ অংশেই তারা সড়কটি ১৭ ফুট বর্ধিত করছেন।
এ ব্যাপারে যশোর সড়ক ও জনপথ বিভাগের সহকারী প্রকৌশলী মাহবুব হায়দার খান বলেন, পর্যায়ক্রমে যশোরাঞ্চলের সকল সড়ক ডাবল বা ফোর লেনে উন্নিত করার জন্য কর্তৃপক্ষের পরিকল্পনা রয়েছে। তিনি বলেন, দড়াটানামোড় থেকে হযরত গরীবশাহ মাজার পর্যন্ত তিনশ মিটার সড়ক ডাবল লেনে উন্নয়ন করা হচ্ছে দু’কোটি ৬১ লাখ টাকা ব্যয়ে। ভৈরবের পাড় বেধে নদের অংশে নতুনভাবে এ সড়কটি নির্মিত হচ্ছে। এতে শহরের গুরুত্বপূর্ণ এ সড়কটির যানজট অনেকাংশে রোধ হবে। একইসাথে ভৈরবপাড়ের সৌন্দর্য বৃদ্ধি পাবে বলে তিনি জানান। তবে এটি ভৈরব নদ প্রকল্পের কাজ নয়। সড়ক ও জনপথ বিভাগের নিজস্ব অর্থায়নের কাজ বলে তিনি জানান।
বিষয়টি নিয়ে সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী এসএম মোয়াজ্জেম হোসেন বলেন, যশোর শহরের যানজট নিরসনে তারা সকল ছোট সড়ক পর্যায়ক্রমে ডাবল লেনে উন্নিত করবেন। এ কাজেরই অংশ হিসেবে দড়াটানামোড় থেকে হযরত গরীবশাহ মাজার পর্যন্ত সড়কটি ডাবল লেনে উন্নয়ন করা হচ্ছে। 



সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft