রবিবার, ২৫ জুলাই, ২০২১
তথ্য ও প্রযুক্তি
দেশের এক কোটি মোবাইলের ব্যালেন্স শূন্য হতে চলেছে
কাগজ ডেস্ক :
Published : Friday, 24 April, 2020 at 7:26 PM
দেশের এক কোটি মোবাইলের ব্যালেন্স শূন্য হতে চলেছে দেশের অন্তত এক কোটি মোবাইল নম্বরের ব্যালেন্স শূন্য হতে চলেছে বলে জানিয়েছে মোবাইল ফোন অপারেটররা। আগামী দু’একদিনের মধ্যেই নতুন ব্যালেন্স রিচার্জ না করলে এই মোবাইল সংযোগগুলো থেকে আর কোন সেবা নেওয়া যাবে না।
অপারেটররা বলছেন, তাদের নিজেদের নেটওয়ার্কের মনিটরিং সিস্টেম থেকেই তারা জানছে, ২৫ থেকে ২৭ এপ্রিল এই তিন দিনের মধ্যে সবগুলো অপারেটরেই অসংখ্য নম্বরে আর কোন ব্যালেন্স থাকবে না।
রবি বলছে, তাদের ক্ষেত্রে সংখ্যাটি ৩৫ লাখের মতো। গ্রামীণফোনের সংখ্যা এর চেয়ে অনেক বেশি। আর বাংলালিংক ও টেলিটকেরও কিছু নম্বর আছে এই হিসেবের মধ্যে।
বলা হচ্ছে, করোনার কারণে যেহেতু গলি-মহল্লার দোকান-পাট খুলতে পারছে না সে কারণে অনেক গ্রাহকের মোবাইলে রিচার্জ করাও সম্ভব হচ্ছে না।
আবার এক মাস আগে যখন সরকার ছুটি ঘোষণা করেছিল তখন অনেক মোবাইল ফোন ব্যবহারকারীই এক মাসের প্যাকেজ নিয়ে হয়ত নিশ্চিন্ত হয়ে ঘরে ঢুকেছেন। কিন্তু এখন হয়ত রিচার্জ করার জন্যে বিকল্প কোন ব্যবস্থা পাচ্ছেন না।
বিষয়টি নিয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপ করছিলেন রবি’র চিফ করপোরেট অ্যান্ড রেগুলেটরি অ্যাফেয়ার্স অফিসার সাহেদ আলম। তিনি বলেন, এক মাসের ব্যালেন্স রিচার্জ করে বাড়িতে যাওয়া গ্রাহকদের সংখ্যাই বেশি আছে তালিকায়।
অপারেটরগুলো জানাচ্ছে, মোবাইলে রিচার্জের অনেকগুলো বিকল্প তারা আগে থেকেই চালু করেছেন। কিন্তু অধিকাংশ মানুষই মোবাইল ফাইন্যান্সিয়াল সেবা (এমএফএস) বা অনলাইন ব্যাংকিং সেবার বাইরে রয়েছে। আর এসব মানুষদের জন্যে হাট-বাজার বা বাড়ির পাশের রিচার্জের দোকানই ছিল ভরসার জায়গায়।
যেহেতু করোনার কারণে অনেক দোকানই খুলতে পারছে না সে কারণে তাদের পক্ষে ব্যালেন্সও নেওয়া সম্ভব হচ্ছে না।
অপারেটররা বলছেন, এমএফএস-এর মাধ্যমে মোবাইল রিচার্জ করা গ্রাহকের সংখ্যা এই সময়ে অনেক বৃদ্ধি পেয়েছে। তারাও চেষ্টা করছেন যতটা সম্ভব মানুষকে ডিজিটাল সেবায় নিয়ে আসতে। কিন্তু সেই অর্থে বড় অংকের গ্রাহকদের এ সেবার আওতায় আনা সম্ভব হয়নি।
এর বাইরে ছোটখাটো আরো কিছু উদ্যোগও নিয়েছেন অপারেটররা। সমস্যা সমাধানের জন্যে রবি যেমন তার গ্রাহকদের বিনামূল্যে ব্যালেন্স ট্রান্সফারের সুবিধা চালু করেছে। এজন্যে গ্রাহকের বাড়তি কোনো খরচ হবে না।
বিপদের সময় চাইলে রবি-এয়ারটেলের এক গ্রাহক অন্য গ্রাহককে ৫ টাকা থেকে ১০০ টাকা পর্যন্ত ব্যালেন্স ট্রান্সফার করতে পারবেন।
তাদের অ্যাপ থেকে যেমন ব্যালেন্স ট্রান্সফার করা যাবে একই সঙ্গে ইউএসএসডি কোড ও এসএমএস-এর মাধ্যমেও কাজটি করা যাবে। তাদের এই সেবাটি ১৬ মে পর্যন্ত চলবে। 



সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft