মঙ্গলবার, ২৮ সেপ্টেম্বর, ২০২১
দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চল
অধধিপত্য বিস্তার
আবারও অশান্ত নড়াইলের ৩ গ্রাম
কাগজ ডেস্ক :
Published : Saturday, 9 May, 2020 at 3:35 PM
আবারও অশান্ত নড়াইলের ৩ গ্রামঅধধিপত্য বিস্তারের জের ধরে আবারও অশান্ত হয়ে উঠেছে নড়াইলের কামাল প্রতাপ, শালিখা ও আমাদা গ্রাম। গত ৮ বছরে এখানে ৩ জন খুন হয়েছে। এ পর্যন্ত ২০টির মতো সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। দুই শতাধিক ব্যক্তি আহত হয়েছে।
সর্বশেষ পুলিশের ওপর হামলা, পিকআপভ্যান ও বাড়ি ভাংচুর-লুটপাটের ঘটনায় দুটি মামলায় ৬০ জনকে আসামি করা হয়েছে। ফলে ৩টি গ্রাম পুরুষশূন্য হয়ে পড়েছে।
জানা গেছে, গত ৬ মে রাতে সদরের বাঁশগ্রাম ইউনিয়নের কামাল প্রতাপ গ্রামে ৪টি বাড়ি ভাংচুরের সময় পুলিশ এক ব্যক্তিকে আটক করলে ৩ গ্রামের লোকজন পুলিশের ওপর হামলা করে আসামি ছিনতাইয়ের চেষ্টা করে। এ সময় তারা পুলিশের পিকআপভ্যান ভাংচুর করে। পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে ৩ রাউন্ড ফাঁকা গুলি ছোড়ে।
গ্রামবাসী সূত্রে জানা গেছে, গত ৬ মে রাত সাড়ে ১০টার দিকে কামাল প্রতাপ গ্রামের সাফি ম্যোল্যা হত্যা মামলার আসামি আফজাল জমাদ্দার, রাজ্জাক মল্লিক, মন্টু মল্লিক ও মোস্তাক মল্লিকের বাড়ি প্রতিপক্ষ বাদীপক্ষের সেকেন মেম্বর, বাবুল শেখ, সাইফুল মোল্যা ও আফসার মিঞার লোকজন ভাংচুর ও লুটপাট করছিল। এ সময় টহল পুলিশ খবর পেয়ে ভাংচুর ও লুটপাটকারীদের ধাওয়া করে আহাদ খান নামে এক ব্যক্তিকে আটক করে।
রাত সাড়ে ১১টার দিকে পার্শ্ববর্তী আমাদা, শালিখা ও কামালপ্রতাপ গ্রামের প্রায় অর্ধশত ব্যক্তি লাঠিসোটা নিয়ে আসামি ছিনিয়ে নিতে স্থানীয় পুলিশ ক্যাম্পে হামলা করলে কনস্টেবল আশিক ও রাকিব আহত হয়। সন্ত্রাসীরা পুলিশের পিকআপভ্যান ভাংচুর করে। পুলিশ পরিস্থিতি মোকাবিলা করতে ৩ রাউন্ড ফাঁকা গুলি করে।
জানা যায়, সদর উপজেলার বাঁশগ্রাম ইউনিয়নের কামাল প্রতাপ, শালিখা এবং পার্শ্ববর্তী লোহাগড়া উপজেলার লক্ষীপাশা ইউনিয়নের আমাদা গ্রামের বাবুল শেখ, সাইফুল মোল্যা, সেকেন মেম্বর, আফসার মিঞা গ্রুপের সাথে বিদ্যুৎ জমাদ্দার, আফজাল জমাদ্দার, রাজ্জাক মল্লিক, মন্টু মল্লিক ও মোস্তাক মল্লিক গ্রুপের দীর্ঘ ৮ বছর ধরে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে গ্রাম্য দ্বন্দ্ব-সংঘাত চলে আসছে। এ পর্যন্ত দুই গ্রুপের মধ্যে কমপক্ষে ২০ বার সংঘর্ষ হয়েছে। আহত হয়েছে দুই শতাধিক মানুষ এরই জের ধরে প্রতিপক্ষের হাতে গত ৫ বছর পূর্বে কামাল প্রতাপ গ্রামের এসকেন্দার কাজী, ২০১৯ সালের ২৫ এপ্রিল ডাবলু শেখ এবং এ বছরের ১৩ মার্চ সাফি মোল্লা (৩৫) খুন হয়।
সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইলিয়াছ হোসেন ঘটনার বলেন, এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার বিকেলে পুলিশ বাদী হয়ে ২৩ জনের বিরুদ্ধে এবং ক্ষতিগ্রস্থ এক ব্যক্তি ৩৭ জনের বিরুদ্ধে বাড়ি ভাংচুর ও লুটপাটের মামলা করেছে। আসামিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে। বর্তমানে এলাকার পরিস্থিতি এখন শান্ত।
নড়াইলের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জসিম উদ্দিন বলেন, এসব গ্রামে দীর্ঘদিন ধরে গ্রাম্য দ্বন্দ্ব-ক্যাইজা লেগেই আছে। আমি নড়াইলে যোগদানের পর এসব দ্বন্দ্ব মীমাংসার চেষ্টা করছি এবং এ চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে। সর্বশেষ বুধবারের ঘটনায় দোষীদের বিরুদ্ধে পৃথক দুটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।



সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft