রবিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর, ২০২১
দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চল
ঈদের বাজারে দেশি পোষাকের সরবরাহ বেশি
মিনা বিশ্বাস :
Published : Thursday, 14 May, 2020 at 12:55 AM
ঈদের বাজারে দেশি পোষাকের সরবরাহ বেশিসবচেয়ে বড় উৎসবে প্রস্তুতিও হয় বড়সড়। আর তাই ঈদুল ফিতরকে সামনে রেখে বাড়ছে কেনাকাটার ব্যস্ততা। দুর্যোগ কিংবা প্রতিকূলতা সব কিছুকে ছাপিয়ে যশোরের বিভিন্ন বয়সী মানুষের চলাচল এখন বিপনীবিতান কেন্দ্রীক। কেনাকাটাও চলছে কমবেশি। পরিবারের ছোট কিংবা বড় সদস্য-আপনজনদের জন্য সবার কেনাকাটার তালিকাটাও বেশ দীর্ঘ। বর্তমানে সে তালিকায় রয়েছে কিশোরী, তরুণী ও বিভিন্ন বয়সী নারীদের ওয়ান পিছ, টু-পিছ, থ্রি-পিছ, লেহেঙ্গা কিংবা গাউন।
ঈদ উপলক্ষে যশোরের বিপনীবিতানগুলোতে পাওয়া যাচ্ছে দেশি বিদেশি বাহারি সব পোষাক। নিম্নবিত্ত ও মধ্যবিত্তের বাজার বলে খ্যাত ইনস্টিটিউট মার্কেট, কালেক্টরেট মার্কেট, এইচএমএম রোড, চৌরাস্তা মোড় কিংবা অভিজাত শপিংমল জেস টাওয়ার, সিটি প্লাজা, মুজিব সড়কস্থ ফ্যাশন হাউজে পাওয়া যাচ্ছে স্টিচ ও ননস্টিচ থ্রি পিছ, ওয়ান পিছ, গাউন ও লেহেঙ্গা। সব ধরণের ক্রেতাদের কথা মাথায় রেখে বিভিন্ন দামের পোষাক রাখা হয়েছে এসব শোরুমে।
যশোর ইনস্টিটিউট মার্কেট ও কালেক্টরেট মার্কেটে মেয়েদের থ্রিপিচ, লেহেঙ্গা ও গাউন পাওয়া যাচ্ছে সর্বনিম্ন চারশ’ টাকা থেকে সর্বোচ্চ পাঁচ হাজার টাকার মধ্যে। অন্যদিকে এইচএমএম রোড, চৌরাস্তা মোড়, জেস টাওয়ার, সিটি প্লাজা এবং মুজিব সড়কস্থ ফ্যাশন হাউজে মেয়েদের পোষাক পাওয়া যাচ্ছে সর্বনিম্ন পাঁচশ’ টাকা থেকে সর্বোচ্চ ১২ হাজার টাকায়। এসব পোশাকের মধ্যে দেশি সুতি ভয়েলের ওপর হাতের কাজের ওয়ান পিচ ও থ্রিপিচ পাওয়া যাচ্ছে পাঁচশ’ টাকা থেকে এক হাজার পাঁচশ’ টাকায়। পাকিস্তানি থ্রিপিচ তিন হাজার টাকা থেকে সাড়ে পাঁচ হাজার টাকা। ইন্ডিয়ান থ্রিপিচ দু’হাজার টাকা থেকে পাঁচ হাজার টাকা।
এইচএমএম রোডের শিউলী থিপিচের ম্যানেজার সোহাগ শিকদার বলেন, গাউন ও লেহেঙ্গার চাহিদা থাকলেও এবারে থ্রিপিচের বিক্রি বেশি। অন্যদিকে চৌরাস্তা মোড়ের ফ্যাশন হাউজ ফোঁড় এ পাওয়া যাচ্ছে নিজস্ব কারিগরদের তৈরি দেশি বুটিকসের ওয়ান পিচ ও থ্রিপিচ। পাঁচশ’ টাকা থেকে তিন হাজার টাকায় পাওয়া যাবে এসব পোষাক। ফোঁড়ের সত্ত্বাধিকারী মামুনুর রশীদ বলেন, গত দশ বছরে বেশ একটা পরিবর্তন এসেছে। গুণগত মানের কারণে বিদেশি কাপড়ের পরিবর্তে দেশি কাপড়ের চাহিদা বেড়েছে। বিদেশি কাপড়ের প্রতি নির্ভরশীলতা কমেছে। বিভিন্ন ফ্যাশন হাউজ এক্ষেত্রে বেশ অবদান রাখছে। এটা অত্যন্ত ভালো দিক।
সিটি প্লাজার অধরা শোরুমের বিক্রেতা মানিক চক্রবর্তী বলেন, ‘গত বারের তুলনায় এবার পোষাকের বিক্রি তেমন নয়। তবে ঈদের আগে আমরা কিছুটা হলেও হয়তো ক্ষতি পুষিয়ে নিতে পারবো।’
অন্যদিকে মুজিব সড়কের ফ্যাশন হাউজে একই সাথে দেশি ও বিদেশি ওয়ান পিচ, থ্রিপিচ ও লেহেঙ্গা পাওয়া যাচ্ছে। ফ্যাশন হাউজ রঙ এর বিক্রেতা রুবেল হোসেন বলেন, মেয়েদের অন্যান্য কাপড়ের চেয়ে থ্রিপিরে বিক্রি বেশি।      




সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft