বৃহস্পতিবার, ১৭ জুন, ২০২১
আক্কেল চাচার চিঠি (আঞ্চলিক ভাষায় লেখা)
কি কল্লি এগের হুশ হবে ?
Published : Wednesday, 10 June, 2020 at 6:04 PM
সেদিন আমার এক ভাইপো ফেসবুকি এট্টা লিকা দেকালো। কিডা যেন লিকা ছাইড়েচে ভবিষ্যত পোজন্ম ইতিহাস পড়তি যাইয়ে জানবে এই বঙ্গে কিচু মানুস ছিলো যারা শুদু বাজারে যাইয়েই খ্যায় হইয়ে গেচে। একনো আমাগের দেশের ম্যালা মানসির ধারনা শুদু মুকি মাকস বানলিও করোনা তারে চিনতি পারবে না। চিনতি না পাল্লি ধত্তিও পারবে না। এ বিশ^াসে  মুকি সেই মার্চ মাসে কিনা মাকস পইরে তামান জাগা মচ্চি মুলামে বেড়াচ্চে। এই মাকস ও  যে পাইট পরিস্কার কত্তি হয় তা কিডা কারে বুজোবে। সেদিন বাজারে শুনলাম এক ঘটনা। এক লোক দুপার বেলা সাইকেল চালায় আইসে দাড়াতিই মাথা ঘুইরে পইড়ে গেচে। স¹লি করোনা রুগী ভাইবে ফাড়িক কাটার তালে ব্যস্ত। খানিকটে পরে তার এলেকার একজন আইসে তারে দেইকে কচ্চে আরে একসাতে বাড়িত্তি বারোলাম ভালো মানুস হ্যানে আইসে কি হইলো। দৌড়োয় যাইয়ে কলেত্তে পানি আইনে মাতায় পানি ঢাইলে তার হুশ ফিরোয়েচে। পরে অজ্ঞান হওয়ার রহস্য জানা গেলে কয়দিন ধইরে বিয়ানবেলায় যুইত কইরে দাত ডলে না মাকস পইরে মুক আটা, নিজির মুকির গন্দোয় নিজিই বেহুশ হইয়ে পইড়েচে। মাকস পরার নিয়ম কি আর এট্টা মাকস কয়দিন পরা যায় ইডা শতকরা কয়জন জানে তা নিয়েও সন্দেহ হচ্চে। গ্যালো মার্চ মাসের ১০ তারিকি  যেনে করোনা রুগী ছিলো মাত্তর ৩ জন স্যানে জুন মাসের ১০ তারিকি রুগীর সংখ্যা ৭৪ হাজার ৮শ ৬৫ জন। কাল পন্তিক দেশে মউতির সংখ্যা হাজার ছাড়ায় গেচে। কি সব্বেরাশে কতা কও দিনি বাপু ! বিশে^র বাঘা বাঘা দেশ যেকেনে পাটায় পইড়েচে সেকেন আমরা সুমানে চুপা বাইড়োয় চলতিচি। মাতার কিরে দিয়েই কারো বাইরি যাওয়া থামানো যাচ্চেনা। যারা প্যাটের তাগিদি কাজের জন্যি বাইরি যাচ্চে তাগের কতা আলাদা কিন্তুক ভানাচির জন্যি যারা যাচ্চে তাগের ঠেকাবে কিডা। রাস্তায় বারোলি বুজার জো নেই দেশে করোনাভাইরাস দিনকে দিন ইরাম কইরে বাইড়ে চলেচে। পতে গাড়ি ঘুড়া আর মানসির জন্যি পা ফেলার জাগা নেই,কিডা কার আগে যাবে তার চোক শন্যি কইরে পাল্লাপাল্লি চইলতেচে। কনে যাওয়ার জন্যি এই পাল্লাপাল্লি ? কিডা কতি পারে সুমকির দুই মাস পরে কি হবে, আমিও যে চিটিডা লিকতি পারবো তারইবা গিরান্টি কনে ?
ইতি
অভাগা আক্কেল চাচা
০১৭২৮ ৮৭১০০৩



সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft