বৃহস্পতিবার, ২৪ জুন, ২০২১
দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চল
সরেজমিন: বাঘারপাড়ার নারিকেলবাড়িয়া ইউনিয়ন
দ্বন্দ্বের কারণে নয় মেম্বরের বিরুদ্ধে থানায় গাছ চুরির অভিযোগ !
স্টাফ রিপোর্টার, বাঘারপাড়া (যশোর)
Published : Saturday, 20 June, 2020 at 12:26 AM
দ্বন্দ্বের কারণে নয় মেম্বরের বিরুদ্ধে থানায় গাছ চুরির অভিযোগ !
চেয়ারম্যানের সাথে দ্বন্দ্বের কারণে নয়জন ইউপি মেম্বরের বিরুদ্ধে থানায় কথিত গাছ চুরির অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। যশোরের বাঘারপাড়া উপজেলার নারিকেলবাড়িয়া ইউনিয়নে এই ঘটনা ঘটেছে। চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ এনে যে নয়জন মেম্বর অনাস্থা প্রস্তাব এনেছিলেন তাদেরকেই এই মামলায় আসামি করা হয়েছে। এলাকাবাসীর ধারণা, ভূমি সহকারীকে দিয়ে চেয়ারম্যান পরিকল্পিতভাবে অভিযোগটি করিয়েছেন। একসাথে নয়জন মেম্বরের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়েরের বিষয়টিকে ‘গোলমেলে’ বলছে পুলিশও।
সরেজমিনে জানা গেছে, যে গাছ চুরির অভিযোগ তোলা হচ্ছে তা বিক্রির সমুদয় টাকা গেছে স্থানীয় মসজিদের ফান্ডে।
এদিকে, মেম্বর-চেয়ারম্যানরা পরস্পরকে দুষলেও পুলিশ বলছে, গাছের মালিক ওই গ্রামেরই একজন ব্যক্তি। অভিযোগ পেলেও ওই ঘটনায় কোনো মামলা রেকর্ড হয়নি বলে জানিয়েছেন বাঘারপাড়ার থানার ওসি।
সরেজমিন জানা যায়, গত বুধবার (১৭ জুন) বাঘারপাড়া উপজেলার নারিকেলবাড়িয়া ইউনিয়নের ভূমি সহকারী (নায়েব) আশরাফুজ্জামান পরিষদের নয়জন মেম্বর ও একজন কাঠ ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে থানায় সরকারি গাছ চুরির লিখিত অভিযোগ করেন।
স্থানীয়রা জানান, সম্প্রতি নারিকেলবাড়িয়া ইউনিয়নের পাঁচবাড়িয়া রাস্তার ধারের কয়েকটি বাবলা গাছ ঝড়ে উপড়ে এবং ভেঙে যায়। স্থানীয় লোকজন ও মসজিদ কমিটির সদস্যরা স্থানীয় তিন নম্বর ইউপি সদস্য শহিদুল ইসলামকে গাছগুলো মসজিদ সংস্কারে ব্যয় করার অনুরোধ করেন। মেম্বর শহিদুল ইমলাম বিষয়টি মসজিদ কমিটি ও গ্রামবাসীকে বিবেচনা করে সেগুলো ব্যবহারের মৌখিক সম্মতি দেন। এরপর স্থানীয় বাসিন্দা ও মসজিদ কমিটির সদস্য টিপু সুলতান একজন কাঠ ব্যবসায়ীকে ডেকে চারটি বাবলা গাছ ১২ হাজার টাকায় বিক্রি করে সমুদয় টাকা মসজিদ ফান্ডে জমা দেন।
টিপু সুলতান বলেন, ‘চারটি গাছ মসজিদ কমিটি ও গ্রামের মুরব্বিদের উপস্থিতিতে বিক্রি করে সেই টাকা মসজিদ কমিটির ক্যাশিয়ারের কাছে হস্তান্তর করি।’ তিনি জানান, গাছগুলো ঝড়ে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছিল’।
ইউনিয়ন পরিষদের ভূমি সহকারী (নায়েব) আশরাফুজ্জামানের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, মেম্বররা পরস্পর যোগসাজসে পাঁচটি গাছ বিক্রি করেছেন। তাদের সরকারি সম্পত্তি বিক্রির কোনো এখতিয়ার নেই। সে কারণে মামলা করা হয়েছে। যতদূর জানি, এখনো পর্যন্ত থানায় সেই অভিযোগ মামলা হিসেবে রেকর্ড হয়নি’।
ইউনিয়নের তিন নম্বর ওয়ার্ড মেম্বর শহিদুল ইমলাম বলেন, ‘চেয়ারম্যান তার কোনো কাজে পরিষদকে ডাকেন না। সেকারণে বিগত নয় মাস আমরা কেউই কাউন্সিল অফিসে যাই না। তিনি নোংরা রাজনীতির কারণে আমাদের বিরুদ্ধে এই মিথ্যা অভিযোগ করিয়েছেন’।
এক প্রশ্নের জবাবে শহিদুল মেম্বর বলেন, ‘সম্প্রতি ঝড়ে পাঁচবাড়িয়া এলাকায় রাস্তার ধারের কয়েকটি গাছ পড়ে যায়। তাছাড়া এমপি সাহেবের নির্দেশনায় সেখানকার রাস্তা প্রশস্তকরণের একটি কাজও আমরা করছিলাম। রাস্তার ওপর থেকে গাছ সরানোর সময় গ্রামের মুরব্বি ও মসজিদ কমিটির সদস্যরা গাছগুলো মসজিদ সংস্কারে ব্যবহারে অনুরোধ করেন। তখন মুরব্বি ও মসজিদ কমিটির সদস্যদের বলি আপনারা যেটা ভালো মনে করেন, সেটি করেন। পরে শুনেছি, আমাদের সব মেম্বরের বিরুদ্ধে থানায় মামলা হচ্ছে’।
এ বিষয়ে ইউপি চেয়ারম্যান আবু তাহের আবুল সরদার বলেন, ‘মেম্বররা গত এক বছর কেউই ইউনিয়ন পরিষদে আসেন না। তারা আমার বিরুদ্ধে অনাস্থাও এনেছিলেন। সরকারি সম্পদ ৮-১০টি গাছ বিক্রির কারণে নায়েব সাহেব তাদের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ দিয়েছেন। আমি তো মামলা করতে যাইনি। তবে, সরকারি কোনো সম্পদ বিনষ্ট হলে আমি সরকারের পক্ষেই থাকবো’।
এ বিষয়ে জানতে চাইলে বাঘারপাড়া থানার ওসি সৈয়দ আল মামুন বলেন, ঘটনা জানতে পেরে পুলিশ বিষয়টি খোঁজখবর নিয়েছে। সেখানকার যে গাছের কথা বলা হচ্ছে, তার মালিক মোস্তফা শিকদার নামে এক ব্যক্তি। তাছাড়া ওই এলাকায় কাবিখার যে কাজ হচ্ছে, তা বাস্তবায়ন করছেন দু’/তিনজন ইউপি সদস্য। কিন্তু অভিযোগ করা হচ্ছে নয়জন মেম্বরসহ ব্যবসায়ীকে। বিষয়টি বেশ গোলমেলে। স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যানের বিপক্ষে অনাস্থা প্রস্তাব দিয়েছেন মেম্বররা। সব বিষয় মাথায় রেখে আমরা এগুচ্ছি। এ ঘটনায় এখনো মামলা হয়নি’।

    




 



সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft