রবিবার, ২৮ ফেব্রুয়ারি, ২০২১
দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চল
মহেশপুরে খননের নামে রাস্তা ও খালপাড় ছেঁটেই ১১০ টন গম হজম
মহেশপুর (ঝিনাইদহ) থেকে ফিরে নিজাম উদ্দিন শিমুল
Published : Wednesday, 1 July, 2020 at 12:38 AM
মহেশপুরে খননের নামে রাস্তা ও খালপাড় ছেঁটেই ১১০ টন গম হজমঝিনাইদহের মহেশপুর উপজেলায় কাবিখার ২য় কিস্তির বিশেষ প্রকল্পে খাল ও রাস্তা ছেঁটেই ১১০ মেট্রিক টন গম হজম করা হয়েছে।
এ উপজেলায় কাজের বিনিময়ে খাদ্য কর্মসূচির বিশেষ প্রকল্পের আওতায় ১১০ মেঃ টন গম বরাদ্দ আসে। প্রকল্পে ৩টি খাল ও ২টি রাস্তা সংস্কারের কর্মসূচি নেয়া হয়। সরেজমিনে খোঁজখবর নিয়ে দেখা গেছে, রাস্তাগুলির কোন রকমে ঘাস ছেঁটে হালকা মাটি ছিটিয়ে কাজ সমাপ্ত করা হয়েছে। খাল ৩টির কোন রকম পাড় ছেঁটে সীমিত কিছু মাটি খনন করে শেষ করা হয়েছে। প্রকল্পগুলির মধ্যে রয়েছে উকড়ির বিল হতে গোকুলনগর পর্যন্ত সাড়ে ৯শ মিটার খাল। এ প্রকল্পে বরাদ্দ ৩২.৫ মেঃ টন গম। এখানে আংশিক কাজ হয়েছে।
প্রকল্পের সভাপতি স্বরুপপুর ইউপি চেয়ারম্যান মিজানুর রহমানের সাথে যোগাযোগ করলে তিনি বলেন, আমি খাতা কলমে সভাপতি হলেও বাস্তবে একটি সিন্ডিকেট এই কাজ করছে। কাজ সঠিকভাবে না হওয়ায় তিনি নিজেই কাজ বন্ধ করে দিয়েছেন। এসবিকে ইউনিয়নের কাকিলাদাড়ি মাঠে ৮৬০ মিটার খাল খনন প্রকল্পে ২০.৫ মেঃ টন গম বরাদ্দ করা হয়েছে। প্রকল্পের সভাপতি রফিকুল ইসলাম বিপলু মেম্বার বলেন, তিনি কাজটি সঠিকভাবে করেছেন কিন্তু সরেজমিনে খোজ নিতে গেলে এলাকাবাসী জানায়, খালটির কাজ কোন রকম  ছেঁটে-ছুটে শেষ করা হয়েছে। এলাকাবাসীর দাবি ২০ভাগ কাজও হয়নি।
যাদবপুর ইউনিয়নের জলুলী গ্রামে খাল খননের জন্য ২০ মেঃ টন গম বরাদ্দ হয়। প্রকল্পের সভাপতি যাদবপুর ইউপি চেয়ারম্যান শহিদুল ইসলামের সাথে যোগাযোগ করলে তিনি প্রকল্প সম্পর্কে কিছুই বলতে পারেননি। প্রকল্পের দৈর্ঘ্য কত মিটার, কি পরিমাণ কাজ হয়েছে কিছুই জানেন না তিনি। তার বক্তব্য - ২টা ডিওতে স্বাক্ষর করেছি মাত্র।
শ্যামকুড় ইউনিয়নের ডাকাতিয়া মাঠের রাস্তা সংস্কার প্রকল্পে ২২ মেঃ গম বরাদ্দ করা হয়। প্রকল্পের সভাপতি শ্যামকুড় ইউপি চেয়ারম্যান আমান উল্লাহ জানান, তিনি যথাযথভাবে কাজ শেষ করেছেন। কিন্তু প্রকৃতপক্ষে রাস্তা ছাঁটা ছাড়া আর কিছুই করা হয়নি।
আজমপুর ইউনিয়নের মদনপুর গ্রামের মনির খানের বাড়ি হতে মাঠের রাস্তা সংস্কারের জন্য ১৫ মেঃ টন গম বরাদ্দ করা হয়। ঐ রাস্তারও একই অবস্থা। এলাকাবাসী জানায়, কোন রকমে রাস্তায় মাটি ছিটিয়ে দেওয়া হয়েছে। প্রকল্পের সভাপতি আজিজুর রহমান মন্টু বলেন, প্রকল্পের ডিজাইন অনুযায়ী কাজ শেষ করা হয়েছে।
এ বিষয়ে উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন অফিসের প্রকৌশলী বেনজামিন বলেন, ৫টি প্রকল্পের মধ্যে ৪টি শেষ হয়েছে এবং স্বরুপপুর ইউনিয়নের একটি আংশিক(৩০০মিটার) কাজ হয়েছে। এই প্রকল্পের অর্থ বিডি করে ব্যাংকে রাখা হয়েছে।
উপজেলা নির্বাহী অফিসার শাশ্বতী শীল বলেন, প্রকল্পগুলি তার পক্ষে পরিদর্শন করা সম্ভব হয়নি। খোঁজখবর নিয়ে পরে জানাতে পারবেন।
স্থানীয় সংসদ সদস্য এ্যাড. শফিকুল আজম খাঁন চঞ্চল বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর অঙ্গিকার দুর্র্নীতি মুক্ত বাংলাদেশ গড়া তিনি এসব প্রকল্প যথাযথভাবে তদারকি করার জন্য কর্তৃপক্ষকে অনুরোধ জানান।



সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft