শনিবার, ০৫ ডিসেম্বর, ২০২০
ক্রীড়া সংবাদ
যশোর জেলা ক্রীড়া সংস্থা
এক যুগেরও বেশি হয় না হকি লিগ
ক্রীড়া সংবাদ
Published : Thursday, 24 September, 2020 at 12:46 AM
এক যুগেরও বেশি হয় না হকি লিগসারা বছরই যশোর জেলায় হকির চর্চা থাকলেও লিগ হয় না এক যুগেরও বেশি সময়। সর্বশেষ লিগের খেলা মাঠে গড়িয়েছিল ২০০৪-২০০৫ মৌসুমে। সেই লিগে পৃষ্ঠপোষকতা ও আর্থিক সহযোগিতা করেছিল আজকের কাগজ। হকির সাথে সংশ্লিষ্ট ক্লাবগুলো যথাসময়ে জেলা ক্রীড়া সংস্থার ঘোষিত সূচি অনুযায়ী এন্ট্রি হয়। ক্লাব প্রতিনিধিরা ভোটও দেন। কিন্তু মূল লক্ষ্য অর্জিত হয়নি কখনো। এক অর্থে ভোটেই তৃপ্ত ক্লাব প্রতিনিধিরা। খেলা মাঠে গড়ালো কী না গড়ালো সেটি বিবেচ্য বিষয় না তাদের কাছে।
অনেক হকি খেলোয়াড় ও সংগঠক জানিয়েছেন, ২০০৮, ২০১৫, ২০১৬ ও ২০১৭ সালে যশোরের মাটিতে অনুষ্ঠিত হয়েছে স্কুল হকি টুর্নামেন্ট। ২০১৬ সালে অনুষ্ঠিত হয়েছে মুন্না-জনি স্মৃতি সিক্স-এ সাইড হকি টুর্নামেন্ট। বাংলাদেশ হকি ফেডারেশনের উদ্যোগে ডেভেলপমেন্ট প্রোগ্রাম হয়েছে চার বার। জাতীয় ক্রীড়া পরিষদের অর্থায়নে তিন বার অনুষ্ঠিত হয়েছে প্রতিভা অন্বেষণ কর্মসূচি। ২০১৪ সালে অনুষ্ঠিত হয়েছে ক্রীড়া পরিদপ্তরের অর্থায়নে স্কুল শিক্ষার্থীদের ট্রেনিং প্রোগ্রাম।
জাতীয় পর্যায়ে যশোর জেলা দল অংশ নিয়েছে ১২ বার। ২০১৭ সালে অনুষ্ঠিত জাতীয় যুব হকিতেও অংশ নেয়। কিন্তু ২০১৮ সালের মে মাসে অনুষ্ঠিত জাতীয় হকি লিগে অংশ নেয়নি। এটি ছিল হকির কপালে পেরেক ঠুকে দেওয়ার মতো সিদ্ধান্ত।
এই জেলা থেকে এক সময় জাতীয় দলে প্রতিনিধিত্ব করেছেন কাওছার আলী ও তাজ হোসেন তাজ। পরবর্তী সময়ে উঠে এসে জাতীয় দলে প্রতিনিধিত্ব করেছেন আশিকুজ্জামান। এছাড়া, ঢাকার স্বনামধন্য ক্লাবগুলিতে খেলেছেন অসংখ্য খেলোয়াড়। এখন সেই মানের খেলোয়াড় নেই এটি সত্য। কিন্তু খেলোয়াড় সংকট নেই, দাবি হকির সাথে সংশ্লিষ্টদের।
যশোরে যে কয়টি ইভেন্টের চর্চা অব্যাহত রয়েছে তার মধ্যে হকি অন্যতম। বছরের অধিকাংশ সময় সরকারি এমএম কলেজ চত্বরে, স্টেডিয়াম মাঠে, বাস্কেটবল গ্রাউন্ডে, পুলেরহাটে হকির চর্চা হয়ে থাকে।
যশোর জেলা ক্রীড়া সংস্থার হকি পরিষদে পুনরায় সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছেন মাহমুদ রিবন। তিনি ১২ বছর ধরে বাংলাদেশ হকি ফেডারেশনের কার্যনির্বাহী পরিষদের সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করে চলেছেন।
মাহমুদ রিবন জানান, হকি লিগ মাঠে না গড়ানোর জন্যে দু’টি অন্তরায় রয়েছে। প্রথমত মাঠ, দ্বিতীয়ত গোলরক্ষকের সরঞ্জামাদির সংকট। এই সংকট কাটিয়ে উঠতে পারলে নিয়মিত হকি লিগ মাঠে গড়ানো সম্ভব। তিনি আরও জানান, গোলরক্ষকের সরঞ্জামাদি ক্রয় করতে গেলে ন্যূনতম ৭০ হাজার টাকা প্রয়োজন।
হকি পরিষদের সভাপতি নির্বাচিত হয়েছেন জাতীয় দলের সাবেক হকি খেলোয়াড় ও বিকেএসপির কোচ কাওছার আলী। সে দৃষ্টিকোণ থেকে আশা করা যায় হকির আরও উন্নতির পাশাপাশি লিগের খেলা নিয়মিত মাঠে গড়াবে।
এছাড়া, সহসভাপতি নির্বাচিত হয়েছেন এসএম বদর উদ্দীন ও রবিউল ইসলাম রবি। যুগ্ম সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছেন হাসান রনী ও তৌফিকুল ইসলাম। সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন নজরুল ইসলাম, খায়েরুজ্জামান বাবু, নবীরুজ্জামান, রাহাত আনোয়ার, আনোয়ারুল হক মিন্টু, হাসান মিনু ও দেলোয়ার হোসেন দিলশান। আগামীকাল প্রকাশিত হবে লন টেনিস নিয়ে প্রতিবেদন।




সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft