বৃহস্পতিবার, ২৯ অক্টোবর, ২০২০
দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চল
চাঞ্চল্যকর ১৭ লাখ টাকা ডাকাতি
আলোচনায় রাজনৈতিক গডফাদার
দেওয়ান মোর্শেদ আলম
Published : Friday, 2 October, 2020 at 12:00 AM
আলোচনায় রাজনৈতিক গডফাদারযশোর কোতোয়ালি থানা প্রাচীরের একশ’ গজ দূরে ফিল্মিস্টাইলে ১৭ লাখ টাকা ছিনতাইয়ের ঘটনায় জড়িতরা সবাই শনাক্ত হয়েছে। চাঞ্চল্যকর এই ঘটনার নেপথ্যে একজন রাজনৈতিক গডফাদার রয়েছেন বলে তদন্তে উঠে আসায় গোটা শহরে নানামুখি আলোচনা হচ্ছে। বৃহস্পতিবার যশোর পুলিশের প্রেস ব্রিফিংয়ে তার নাম প্রকাশ না করায় তিনি কে তা নিয়ে তুমুল হৈচৈ শুরু হয়েছে।
এদিকে, ২৯ সেপ্টেম্বর ঘটনার পর থেকে পুলিশের শতাধিক অফিসার টানা অভিযানের পর ঘটনায় জড়িত পাঁচ দুর্বৃত্তকে আটক করতে সক্ষম হয়েছেন। উদ্ধার হয়েছে দু’ লাখ ৪৮ হাজার পাঁচশ’ টাকা। প্রেস ব্রিফিং থেকে পুলিশ সুপার হুঁশিয়ারি দিয়েছেন হোয়াইট কালার ক্রিমিনালদেরও ছাড় নেই। যশোরবাসীর নিরাপত্তার প্রশ্ন্ েসংশ্লিষ্ট সবাইকে আইনের আওতায় আনা হবে।
২৯ সেপ্টেম্বর দুপুরে ইউনাইটেড কমার্সিয়াল ব্যাংকের নিচে শ’ শ’ মানুষের সামনে ছুরিকাঘাত করে ও বোমা ফাটিয়ে আর এন রোডের আগমনী মোটর্সের ১৭ লাখ টাকা ছিনতাই হয়। ৭/৮ জনের একদল দুর্বৃত্ত বকচরের হাবিবুর রহমান কুটি মিয়ার ছেলে এনামুল হককে এলোপাতাড়ি ছুরিকাঘাত করে টাকার ব্যাগ নিয়ে সিটিপ্লাজা এলাকা (গোহাটা রোড) দিয়ে পালিয়ে যায়। ব্যাংকের সিসি টিভি ফুটেজ থেকে ছিনতাই, বোমবাজি ও  ছুরিকাঘাতের দৃশ্য দেখে তাৎক্ষণিকভাবে অভিযানে নেমে পড়ে পুলিশ।
পুলিশ সুপার মুহাম্মদ আশরাফ হোসেনের নির্দেশনায় যশোর জেলা গোয়েন্দা শাখা, কোতোয়ালি থানা পুলিশ, সদর ফাঁড়ি পুলিশ, চাঁচড়া ফাঁড়ি পুলিশসহ আরও কয়েকটি ইউনিটের একশ’ পুলিশ অফিসার ঘটনায় জড়িতদের শনাক্ত ও আটকে অভিযান শুরু করেন। সিসি টিভি ফুটজে থেকে ছবি বানিয়ে পুলিশের কয়েকটি টিম যশোর শহর ও শহরতলীর বিভিন্ন স্পটে সোর্স কাজে লাগান। তারা টানা দু’ দিন মাঠে থেকে ঘটনায় জড়িত সবাইকে শনাক্ত করেছেন। ঘটনায় ৮ থেকে ১০ জন জড়িত। ঘটনায় সরাসরি জড়িত যশোর শহরের এমন চিহ্নিত ও দাগি পাঁচজনকে আটক করেছে পুলিশ। এদের প্রত্যেকের নামে হত্যাসহ একাধিক মামলা রয়েছে। এরা হচ্ছে যশোরের পুলিশ লাইন টালিখোলার শফি দারোগা ভাড়াটিয়া মুনছুর মোল্লার ছেলে টিপু (৪৫), বারান্দী মোল্লাপাড়ার রবিউল ইসলাম রিকশাওলার ছেলে সাঈদ ইসলাম শুভ (২৪),  ধর্মতলা হ্যাচারি পাড়ার রুহুল আমিনের ছেলে বিল্লাল হোসেন ওরফে ভাগ্নে বিল্লাল (২২), সিটি কলেজপাড়া ব্যাটারি পট্টির নিজাম উদ্দিনের ছেলে রায়হান ((২৮) ও পূর্ববারান্দী মালোপাড়ার মৃত মুফতি আলী হুসাইনের ছেলে ইমদাদুল হক (২১)। তাদের কাছ থেকে দু’ লাখ ৪৮ হাজার পাঁচশ’ টাকা ও ছিনতাই কাজে ব্যবহৃত দু’ টি চাকু, ব্যাগ, মোবাইল ফোন ও অ্যাপাচি ৪ ভি মোটরসাইকেল জব্দ করা হয়।
এদিকে, আলোচিত এ ঘটনায় আসামি আটক ও টাকা উদ্ধার সংক্রান্তে পুলিশি সাফল্য তুলে ধরে ১ অক্টোবর  দুপুর ১টায় প্রেস ব্রিয়িং করেন যশোরের পুলিশ সুপার মুহাম্মদ আশরাফ হোসেন। তিনি জানান, আটক টিপু টাকা বহনকারী ভুক্তভোগী এনামুল হকের দু’শ’ টাকা দিন হাজিরার কর্মচারী। তার বহু দিনের লোভ ছিল আগমনী মোটর্স ও এনামুলের ফল ব্যবসার টাকার উপর। টিপুই ছিনতাইয়ের পরিকল্পনা করে। এজন্যে সে সুযোগও খুঁজতে থাকে। এর আগেও তার কয়েকটি মিশন মিস হয়েছে। শেষ পর্যন্ত সে ফল ব্যবসায়ী জামাই রাজ্জাকের সহায়তা নেয়। এরপর জামাই রাজ্জাক বিভিন্ন এলাকা থেকে উঠতি দাগি সন্ত্রাসীদের যোগাড় করা ও মিশন ‘সফল’ করার দায়িত্ব নেয়।
পুলিশ সুপার জানান, এই ছিনতাইয়ে যশোরের একজন হোয়াইট কালার ক্রিমিনাল সংশ্লিষ্ট রয়েছেন। যিনি রাজনৈতিক গডফাদারও হতে পারেন। তাকে নজরদারিতে রাখা হয়েছে। দ্রæত সংশ্লিষ্টদেরও আটক করে আইনে সোপর্দ করা হবে। যশোরবাসীর নিরাপত্তার প্রশ্নে কোনো অপরাধী বা হোয়াইট কালার ক্রিমিনালের ছাড় নেই।
প্রেস ব্রিফিং এ উপস্থিত ছিলেন যশোরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ) সালাউদ্দি সিকদার, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ডিএসবি তৌহিদুল ইসলাম, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ক সার্কেল গোলাম রব্বানী, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সদর সার্কেল অপু সরোয়ার,  যশোর কোতোয়ালি থানার ওসি মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান, জেলা গোয়েন্দা শাখার ওসি সৌমেন দাস।
এদিকে এই ডাকাতিতে একজন রাজনৈতিক গডফাদার জড়িত পুলিশের এমন তথ্যে যশোরে তুমুল হৈচৈ শুরু হয়েছে। বৃহস্পতিবার দুপুর থেকে মধ্যরাত পর্যন্ত যশোরে ট্যক দ্যা টাউন ছিল আসলে কে সেই রাজনৈতিক গডফাদার। কি তার নাম। কোন দলের নেতা। পুলিশ তাকে আটক করেছে নাকি আটক করতে পারছেনা। এসব নিয়ে নানা আলোচনা হয়েছে। দৈনিক গ্রামের কাগজ দপ্তরে ফোন করেও অনেকে জানতে চেয়েছেন কে সেই রাজনৈতিক গডফাদার।  








আরও খবর
সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft