শনিবার, ০৮ মে, ২০২১
দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চল
ঝিকরগাছায় টাকা আদায় করতে শিশুর গায়ে আগুন!
কাগজ সংবাদ :
Published : Thursday, 8 October, 2020 at 7:18 PM
ঝিকরগাছায় টাকা আদায়
করতে শিশুর গায়ে আগুন!যশোরের ঝিকরগাছার বাঁকড়া গ্রামে আল-আমিন (৬) নামে এক শিশুর অগ্নিদগ্ধ হওয়া নিয়ে রহস্যের সৃষ্টি হয়েছে। শিশুর মা তামান্নার অভিযোগ, তার স্বামী শিশু সন্তানকে পুড়িয়ে হত্যার চেষ্টা চালিয়েছে। তবে, পিতা দাউদ হাজির দাবি, তিনি সন্তানের শরীরে আগুন দেননি, শাশুড়ি সাকিরন বিবি তার সম্পত্তি আত্মসাতের জন্যে এ নাটক সাজিয়েছেন।
হাসপাতাল সূত্র জানায়, বুধবার আল-আমিন ও তার নানী সাকিরন বিবি ঘরের দরজা খুলে ঘুমিয়ে ছিলেন। রাতের সে কোনো সময় একদল দুর্বৃত্ত তাদের ঘরে প্রবেশ করে আল-আমিনের গায়ে পেট্রোল দিয়ে আগুন ধরিয়ে দিয়ে পালিয়ে যায়। পরে পরিবারের লোকজন তাকে উদ্ধার করে যশোর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে।
অপর একটি সূত্র জানায়, বাঁকড়া গ্রামের দাউদ হাজি ৭০ বছরের বৃদ্ধ। ছয় বছর আগে একই গ্রামের সাকিরন ও তার মেয়ে তামান্না (২৫) তার  বাড়িতে গৃহপরিচারিকার কাজ করতেন। তিন বছর আগে তামান্না আদালতে মামলা করেন, তার দু’বছরের সন্তান আল-আমিনের পিতা দাউদ হাজি। ওই সময় আদালত ডিএনএ টেস্টের মাধ্যমে নিশ্চিত হন দাউদ হাজি আল-আমিনের পিতা। তখন ঝিকরগাছা থানা পুলিশের মাধ্যমে দাউদ হাজি আট লাখ টাকা দিয়ে ঘটনার মীমাংসা করে নেন। এরপরও বাদীপক্ষ আদালতে নারাজি দাখিল করেন। ছয় মাস আগে আদালতের মাধ্যমে দাউদ বাদী সাকিরনকে আরও পাঁচ লাখ টাকা দেন মামলা নিষ্পত্তির জন্যে। এ পর্যন্ত বৃদ্ধ মামলাটি নিষ্পত্তির জন্যে বাদীকে  মোট ১২ লাখ টাকা দিয়েছেন বলে স্বজনরা জানিয়েছেন। এরপর বাদী আরও ১০ লাখ টাকা দাবি করেন। যদি তার দাবিকৃত টাকা না দেওয়া হয় তাহলে শিশু আল-আমিনকে হত্যা করে দায় বৃদ্ধ দাউদ হাজির উপর চাপাবেন বলে হুমকি দেন।
দাউদ হাজি জানান, এ ঘটনা মীমাংসার জন্যে তামান্নার মা সাকিরনকে ১২ লাখ টাকা দেওয়া হয়েছে। সন্তানের সকল খরচ বহন করার দায়িত্ব নিয়েছেন। প্রতিমাসে সন্তানের ভরণ পোষণ দেন। সাকিরন তার কাছে আরও ১০ লাখ টাকা দাবি করছেন। টাকা দিতে অস্বীকার করায় আল-আমিনকে পুড়িয়ে হত্যার চেষ্টা করে তাকে ফাঁসানো হচ্ছে। একই ঘরে সাকিরন ও আল-আমিন ঘুমিয়ে ছিলেন। আল-আমিন অগ্নিদগ্ধ হলেও সাকিরনের কিছু হয়নি। এটি বিশ্বাস করার মতো না বলে জানান দাউদ হাজি। মূলত তার কাছ থেকে নতুন করে টাকা আদায় করতে নতুন নাটক সাজিয়েছেন সাকিরন। এ ঘটনার সঠিক তদন্তের দাবি জানিয়েছেন দাউদ হাজি।




সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft