শুক্রবার, ০৫ মার্চ, ২০২১
দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চল
দেশের ইতিহাসে দ্রুততম রায়: ধর্ষকের যাবজ্জীবন
বাগেরহাট প্রতিনিধি
Published : Monday, 19 October, 2020 at 2:21 PM
দেশের ইতিহাসে দ্রুততম রায়: ধর্ষকের যাবজ্জীবনদেশের ফৌজদারি মামলার ইতিহাসে সবচেয়ে দ্রুততম সময়ে বিচার সম্পন্ন করেছেন বাগেরহাট নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল। ট্রাইব্যুনালের বিচারক জেলা ও দায়রা জজ মো. নূরে আলম মামলা হওয়ার মাত্র ১৭ দিনের মাথায় শিশু ধর্ষণের দায়ে এক ব্যক্তিকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন।
চলতি মাসের ৩ অক্টোবর ওই মামলাটি দায়ের করার পর ১১ অক্টোবর আদালতে মামলার একমাত্র আসামি আব্দুল মান্নান সরদারের বিরুদ্ধে চার্জশিট জমা দেয় পুলিশ। এর এক সপ্তাহ পর সোমবার মামলায় রায়ে আসামির বিরুদ্ধে অপরাধ সন্দেহাতীতভাবে প্রমাণিত হওয়ায় তাকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের পাশাপশি ২০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও এক বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন ২০০০ এর ধারা ৯ (১) বিচারক এই রায় ঘোষণা করেন।
এর আগে বাংলাদেশের ফৌজদারি মামলার ইতিহাসে এত দ্রুততম সময়ের মধ্যে কোনো মামলার বিচারকাজ সম্পাদন হয়নি বলে জানিয়েছেন আইনজ্ঞরা।
মামলা সূত্রে জানা যায়, বাগেরহাটের মোংলা উপজেলার মাকোড়ডোন গ্রামের আশ্রয়ন প্রকল্প এলাকার পিতৃহারা এক শিশুকে প্রতিবেশি আব্দুল মান্নান বিস্কুট খাওয়ানোর লোভ দেখিয়ে নিজের ঘরে নিয়ে ধর্ষণ করে। ওই রাতেই শিশুটির মামা মোংলা থানায় মামলা করার পর পুলিশ আব্দুল মান্নানকে আটক করে। থানা থেকে মামলাটির তদন্তের দায়িত্ব দেওয়া হয় এস আই বিশ্বজিত মুখার্জ্জীকে। তিনি মাত্র এক সপ্তাহের মধ্যে মামলার তদন্ত সম্পন্ন করে ১১ অক্টোবর আদালতে আসামির বিরুদ্ধে চার্জশিট জমা দেন। এর মাত্র এক সপ্তাহ পর সোমবার (১৯ অক্টোবর) বাগেরহাটের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক জেলা ও দায়রা জজ মো. নূরে আলম আসামি আব্দুল মান্নানকে দোষী সাব্যস্ত করে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড, ২০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও এক বছরের কারাদণ্ড প্রদান করেন।  
আদালত সূত্রে জানাগেছে, চাঞ্চল্যকর এই মামলায় আদালত ১২ অক্টোবর চার্জ গঠনের পর ১৩ অক্টোবর বাদীপক্ষের ১৬ জনের সাক্ষ্য গ্রহণ করেন। ১৪ অক্টোবর গ্রহণ করা হয় কিচিৎসক, বিচারিক হাকিম, নারী পুলিশ সদস্য এবং মামলার তদন্ত কর্মকর্তার সাক্ষ্য। ১৫ অক্টোবর আত্মপক্ষ সমর্থনে আসামির সাফাই সাক্ষ্য গ্রহণ করেন আদালত। গত রোববার (১৬ অক্টোবর) মামলার বাদী ও আসামিদের যুক্তিতর্ক শুনানি সম্পন্ন করে সোমবার (১৭ অক্টোবর) রায় ঘোষণার দিন ধার্য্য করেন ট্রাইব্যুনালের বিচারক।
মামলায় রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী ছিলেন এপিপি রনজিৎ কুমার মন্ডল। তিনি জানান, নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে বলা আছে কোনো ধর্ষণের ঘটনায় আসামি সাথে সাথে ধরা পড়লে ১৫ কার্যদিবসের মধ্যে মামলার বিচারকাজ সম্পন্ন করা যাবে। তিনি বলেন, এই রায় ঘোষণার মধ্য দিয়ে বাগেরহাট আদালত দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে।  




সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft