বৃহস্পতিবার, ২৬ নভেম্বর, ২০২০
আক্কেল চাচার চিঠি (আঞ্চলিক ভাষায় লেখা)
কনে যাচ্চি আমরা ?
Published : Monday, 26 October, 2020 at 10:00 PM
কনে যাচ্চি আমরা ?চারিদিকিত্তে দেশ আগোয় যাচ্চে তাতে কোন দ্বিমত নেই। কিন্তুক নানা ঘটনায় শুদু মনের মদ্দি এট্টা কতা খাবি খাচ্চে দেশ আগোয় গেলিও পাছোয় যাচ্চে মানুস। অবশ্য যারা পাছোয় যাচ্চে তারা মানুস কিনা সিডা আরাট্টা পোশ্ন হতি পারে।  দেশে কেরমে কেরমে আদম সংখ্যা বাড়চে কিন্তুক মানুস কি বাড়চে? নানা ঘটনায় এ সব পোশ্ন সুমকি আইসে যাচ্চে। আগে কুটিকালে শুনতাম মুল্লার দৌইড় মজজিদ পন্তিক একন মানসির দৌইড় ফেসবুক পন্তিক। অবস্তা ইরাম দাড়ায়েচে জ্যান্ত লোকের নামে ফেসবুকি মরা খবর ছড়ায় দিলি সব কাইন্দে জারে জারে হইয়ে যাচ্চে। কিডা আর আগে দেবে সেই পাল্লাপাল্লি কইরে হুড়োয় সব শিয়ার দেচ্চে। অথচ কেউ একবার তলাশ কইরে দেকপে না আসলেই  সে মইরেচে কিনা।  যারা বেশী পরিচিতজন তাগের মরার ভুয়ো খবর বেশী চাউর হয় ফেসবুকি।  এই ফেসবুকির কারনে মাজেমদ্দি ঘের খাইয়ে যাচ্চে আসল সংবাদ মাদ্যম। আর কেন জানিনে আসলের চাইতে ভুয়ো খবরে মানুস টেস পায় বেশী। কোন ঘটনা ঘটলি স¹লি একন ফেসবুকি শিয়ার বা পোস্ট দিলিই যেন জ্বালা জুড়োয় যাচ্চে। আর কোন সুমাজিক দায়বদ্দতা আমাগের নেই ইরাম এট্টা ভাব। দেশে এট্টা কিচু ঘটলি আমাগের দায় কি শুদু কি ফেসবুকি ইনোয় বিনোয় পোস্ট দিয়া? আমাগের আর কোন কি দায়িত্ব নেই ? আর এই ফেসবুক হইয়েচে আরাক সব্বরাশে কল। একন কারো কিচু হলি আগোয় যাওয়ার বদলি কেউ মুবালি ভিডিও করবে, কেউ মইরে পইড়ে থাকা লাশের সাথে সেলপী তোলবে সাতে কার মনে কি হচেচ সিডার চিহ্ন দিয়ে পোস্ট দিলিই জ্বালা জুড়োয় গ্যালো। কেউ কেউ আবার আরাক ঘাট আগোয়ে মরার ছবিতি লিকে দেবে আমারে মাফ কইরে দিস। ভাবডা ইরাম তোর জন্যি জীবনডাও দিতি গিলাম কিন্তুক এট্টুসকুনির জন্যি দিতি পারিনি। আবার ইরাম দিনকাল পইড়েচে আগে পোবাদ ছিলো কারো ঘর পোড়ে কেউ আসে আলুপুড়া খাতি। আর একন কেউ বিপদে পড়ে কেউ আসে ফেসবুকি দিয়ার জন্যি ফটক তুলতি। দুক্কির কতা কি কবো সাধারন লোকজন থাকে বাইরি আর  সব মারালো লোকজন থাকে ফেসবুকি। একাকজন ইরামবড় বীরপুরুষ যদি জাগায় থাইকতো তালি না জানি কি হইয়ে যাইতো। কিন্তু দুক্কু তারাতো ফেসবুক নিয়েই ব্যস্ত জাগায় যাওয়ার তাগের সুমায়ডা কনে !
ইতি
অভাগা আক্কেল চাচা
০১৭২৮৮৭১০০৩





সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft