বৃহস্পতিবার, ২৬ নভেম্বর, ২০২০
তথ্য ও প্রযুক্তি
কোম্পানির অস্বীকার
গ্রামীণফোনের কলড্রপে গ্রাহকরা অতিষ্ঠ
কাগজ সংবাদ :
Published : Monday, 26 October, 2020 at 10:11 PM
গ্রামীণফোনের কলড্রপে গ্রাহকরা অতিষ্ঠদেশের সর্ববৃহৎ মোবাইলফোন অপারেটর গ্রামীণফোনের ভয়েস কল ড্রপ সমস্যা প্রকট আকার ধারণ করেছে। এতে গ্রাহকরা চরম ভোগান্তির পাশাপাশি আর্থিক ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছেন। তবে গ্রামীণফোন কর্তৃপক্ষ কল ড্রপের বিষয়টি মানতে নারাজ। তাদের দাবি সিমের কার্যকারিতা কমে যাওয়া এবং মোবাইল সেটে ত্রুটি থাকায় কল ড্রপ হচ্ছে। তবে কল ড্রপ হলে সংশ্লিষ্ট নাম্বারে বোনাস মিনিট দেয়া হচ্ছে। এসএমএস-এর মাধ্যমে তা নিশ্চিতও করা হচ্ছে।
যশোরে গ্রামীণফোনের একাধিক গ্রাহক অভিযোগ করেছেন, ২৬ অক্টোবর সোমবার সকাল থেকে কল ড্রপের কারণে জর্জরিত হতে হয়েছে। অতিপ্রয়োজনীয়তায় মোবাইলে যোগাযোগ করে কথা শেষ হওয়ার আগেই সংযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে। এমনও হয়েছে এক থেকে পাঁচবার কল করে কথা বলতে হয়েছে। এতে সকলকে সময়ের অপচয়, ভোগান্তি ও আর্থিক ক্ষতির মুখে পড়তে হয়েছে।
যশোরের সিভিল সার্জন ডাক্তার শেখ আবু শাহীনের ব্যবহৃত ০১৭১৬৪৪৮৩৮২ নাম্বারে গ্রামের কাগজের সিনিয়র স্টাফ রিপোর্টার ফয়সল ইসলামের ০১৭১৩৪০৫১৫৭ নাম্বার থেকে সন্ধ্যা ৬টা ১৮ মিনিটে যোগাযোগ করা হয়। মাত্র ৩৬ সেকেন্ডের মাথায় কল ড্রপ হয়। এরপর সন্ধ্যা ৬টা ২০ মিনিট থেকে শুরু করে রাত ৭টা ৪৮ মিনিট পর্যন্ত পাঁচ দফা কল করে প্রয়োজনীয় কথা সম্পন্ন হয়। এছাড়াও রেনেসাঁ হসপিটাল এন্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টারের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মনিরুজ্জামান মনিরের ০১৭৩৩৮৩৬৪২৫ নাম্বারে সন্ধ্যা ৬টা ৫৫ মিনিটে যোগাযোগ স্থাপন করা গেলেও এক মিনিট ৬ সেকেন্ডের মাথায় কল ড্রপ করে। গ্রামীণফোন এতোগুলো কল ড্রপের মাসুল বাবদ বোনাস এক মিনিট দিয়েছে।
গ্রামের কাগজের সম্পাদক মবিনুল ইসলাম মবিন জানান, সোমবার তার ব্যবহৃত ০১৭১১৮৩৮১১ নাম্বার থেকে বিভিন্নজনের সাথে যোগাযোগ করতে গিয়ে বারবার কল ড্রপের কবলে পড়েছেন। সকাল ৯টা ১৫ মিনিট থেকে শুরু করে সারাদিনই যন্ত্রণা ভোগ করেছেন। গ্রামীণফোনের কর্পোরেট এবং স্টার গ্রাহক হিসেবে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে সেবা পাওয়ার বদলে নানা সমস্যার সম্মুখিন হতে হচ্ছে।
তিনি অভিযোগ করেন, বিকেলে অ্যাডভোকেট আরিফুল ইসলাম শান্তির ব্যবহৃত ০১৭৫৭৮২৫৬৭৯ নম্বরের সাথে জরুরি প্রয়োজনে একাধিকবার কল করা হয়। কিন্তু সংযোগ স্থাপনের কয়েক সেকেন্ডের মধ্যে কল ড্রপের শিকার হতে হয়েছে। এতে প্রয়োজনীয় কথা বলা অসম্ভব হয়ে পড়ে। এক পর্যায়ে বাধ্য হয়ে বিটিসিএল টেলিফোনের মাধ্যমে কথা বলতে হয়েছে। এ রকম অনেক মানুষের সাথে যোগাযোগ করতে গিয়ে কল ড্রপের যন্ত্রণা ভোগ করতে হয়েছে। গ্রামীণফোন সাতবার কল ড্রপের কারণে তাকে বোনাস মিনিট দিয়েছে। বিভিন্ন স্থান থেকেও গ্রামের কাগজ দপ্তরে ফোন করে সোমবার এমন অভিযোগ করা হয়েছে।
কল ড্রপের সমস্যা কেন হচ্ছে এবং এ থেকে রেহাই পাওয়ার উপায় জানতে ০১৭১৩৪০৫১৫৭ নাম্বার থেকে গ্রামীণফোনের হটলাইন নাম্বার ১২১-এ কল করা হয়। কলটি রিসিভ করেন কাস্টমার কেয়ার এক্সিকিউটিভ মেহেরাব। তিনি এক বাক্যেই অস্বীকার করেন গ্রামীণফোনের গ্রাহকরা কল ড্রপের শিকার হচ্ছেন না। বিচ্ছিন্নভাবে যদি কোনো নাম্বার থেকে কল ড্রপ হয়ে থাকে তাহলে ওই গ্রাহকের সিমের কার্যকারিতা কমে যাওয়াসহ মোবাইল সেটের সমস্যা থাকতে পারে। তিনি জোর দাবি করেন গ্রামীণফোনের টেকনিক্যাল কোনো সমস্যা নেই। এমনকি কোনো কাজও হচ্ছে না।
 




সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft