রবিবার, ১৩ জুন, ২০২১
দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চল
বারীনগর বাজারে মথুরাপুর ও ললিতাদহ গ্রামবাসীর মধ্যে উত্তেজনা
স্টাফ রিপোর্টার, চুড়ামনকাটি (যশোর)
Published : Friday, 6 November, 2020 at 10:52 PM
বারীনগর বাজারে মথুরাপুর ও ললিতাদহ গ্রামবাসীর মধ্যে উত্তেজনাতুচ্ছ ঘটনায় শুক্রবার সকালে যশোর সদর উপজেলার বারীনগর বাজারে মথুরাপুর ও ললিতাদাহ গ্রামবাসীর মধ্যে দফায় দফায় ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটেছে। এসময় একটি সিএনজিসহ কয়েকটি প্রতিষ্ঠান ভাংচুর হয়। পরে পুলিশ এসে পরিস্থিতি শান্ত করে। এ ঘটনায় বাজারে দু’পক্ষের মধ্যে চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে। যেকোনো সময় ঘটে যেতে পারে বড় ধরনের সংঘর্ষ।
পশুহাটের পাস নিয়ে বৃহস্পতিবার বিকেলে ললিতাদাহ গ্রামের আনোয়ার হোসেনের সাথে মথুরাপুর গ্রামের সুজনের কথা কাটাকাটি হয়। সেসময় হাট মালিকরা বিষয়টি মিমাংসা করে দেন। আনোয়ারের অভিযোগ এর কিছু সময় পর আবারও মথুরাপুর গ্রামের শিমুল, আলামিন ও মিলন এসে আনোয়ারকে মারপিট করে কাছে থাকা টাকা ছিনিয়ে নেয়। এ ঘটনায় আনোয়ার হোসেন ওই তিনজনের বিরুদ্ধে রাতেই যশোর কোতোয়ালি মডেল থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।
অভিযোগের তদন্তে পুলিশ আসলে চরম ক্ষেপে ওঠেন মথরাপুরের ওই তিন যুবক। তারা রাতেই গ্রামের লোকজনকে নিয়ে বৈঠকে বসে পুণরায় আনোয়ারসহ তার গ্রামবাসীর ওপর হামলার পরিকল্পনা করে। সকালে মথুরাপুর গ্রামের লোকজন লাঠিসোটা নিয়ে বারীনগর বাজারে অবস্থান করেন। এ সময় হৈবতপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক সাজেদুল হাসান মিন্টুকে পেয়ে ব্যাপক মারপিট করেন তারা। তাদের ধারণা মিন্টুই আনোয়ারকে দিয়ে থানায় অভিযোগ করিয়েছেন। মিন্টুর ওপর হামলার খবরটি এলাকায় জানাজানি হলে তার গ্রামের মানুষ জোটবদ্ধ হয়ে বারীনগর বাজারে অবস্থান করেন। পরে হামলার ঘটনা ঘটে। এসময় একটি সিএনজি, যাত্রী ছাউনি ও কয়েকটি দোকানে হামলা চালিয়ে ভাংচুর করা হয়। মথুরাপুর গ্রামের সাইফুল ও মিজান এতে আহত হন।
পরে খবর পেয়ে যশোর কোতোয়ালি থানা ও সাজিয়ালী ফাঁড়ি পুলিশ এসে পরিস্থিতি শান্ত করে। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত বাজারে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়। এলাকাবাসীর অভিযোগ পুলিশ চলে গেলে আবারও মারামারি হতে পারে। বাজারে চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে। তবে পুলিশের দাবি বর্তমানে পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে।
এ ব্যাপারে সাজেদুল হাসান মিন্টু জানান, শুক্রবার সকালে কোনো কিছু বুঝে ওঠার আগেই মথুরাপুর গ্রামের শিমুল, আলামিন  ও মিলন তার ওপর হামলা চালিয়ে মারপিট করে।
অপরদিকে মথুরাপুর গ্রামের শাহাজান মেম্বার অভিযোগ করেন, ‘তুচ্ছ একটি ঘটনা নিয়ে মিন্টুর ইন্ধনে আনোয়ার আমার গ্রামের কয়েকজন নিরীহ ছেলের নামে মামলা দায়ের করেছে বলে শুনিছি’। তিনি ওই হামলার জন্যে মিন্টুকেই দায়ী করেছেন।
যশোর কোতোয়ালি মডেল থানার পরির্দশক সুমন ভক্ত জানান, বড় ধরনের সংঘর্ষের আগেই পুলিশ ঘটনাস্থলে হাজির হয়ে পরিস্থিতি শান্ত করে। তিনি আরও বলেন, পরিস্থিতি এখন পুলিশের নিয়ন্ত্রণে। পরিস্থিতি পুরোপুরি শান্ত না হওয়া পর্যন্ত বাজারে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন রাখা হবে বলে তিনি জানান।




সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft