শনিবার, ০৮ মে, ২০২১
বিনোদন
আনুশকাকে যে কারণে বিয়ে করেননি প্রভাস
বিনোদন ডেস্ক :
Published : Friday, 13 November, 2020 at 7:10 PM
আনুশকাকে যে কারণে বিয়ে করেননি প্রভাস ‘বাহুবলী’ করার পর থেকেই প্রভাস-আনুশকা জুটির প্রেমের গুঞ্জন দক্ষিণী ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিতে কান পাতলেই শোনা যায়। ভক্তদের সকলেরই আশা যত তাড়াতাড়ি সম্ভব বাস্তব জীবনেও সাত পাকে বাঁধা পড়ুক প্রভাস-আনুশকা। কিছুদিন আগেই দুবাইয়ে প্রভাস জীবনের ঝুঁকি নিয়ে ‘সাহো’ শ্যুটিং করছেন শুনে উদ্বিগ্ন আনুশকা সেখানে ছুটে গিয়েছিলেন বলে শোনা যায়।
এরকমই প্রভাস-আনুশকার সম্পর্ক নিয়ে নানান কথা মাঝে মধ্যেই শোনা যায়। যদিও প্রভাস বা আনুশকা কেউই কখনও তাদের সম্পর্কে কথা স্বীকার করেননি। তার শুধুই ভালো বন্ধু বলে দাবি করে এসেছেন দুজনেই।
তবে সম্প্রতি, একটি বিশেষ সূত্রে জানাচ্ছে, প্রভাস কখনও আনুশকার সঙ্গে বিবাহ বন্ধনে বাঁধা পড়বেন না। যার প্রধান কারণ হল প্রভাসের পরিবার।
গেল ১৫ বছর ধরে দুজনের মাঝে বন্ধুত্ব অটুট রয়েছে। বিষয়টিকে গভীর প্রেম বলে ভাবেন এ দুই তারকার ভক্ত-অনুরাগীরা। দুজনকে ঘিরে গণমাধ্যমেও অনেক কথাই বলা হয়েছে। তারা চুটিয়ে প্রেম করছেন, শিগগিরই বন্ধনে আবদ্ধ হবেন এমন খবরও প্রকাশ হয়েছে। তবে এসব কথার সবই গুজব বলে হেসে উড়িয়ে দিয়েছেন প্রভাস ও আনুশকা দুজনই।
এ বিষয়ে আনুশকার বক্তব্য, ‘আমার আর প্রভাসের ১৫ বছরের বন্ধুত্ব। প্রভাসকে আমি রাত তিনটায়ও ফোন করে বকবক করতে পারি। ও আমার “থ্রি এএম ফ্রেন্ড”।’
কাছাকাছি বক্তব্য প্রভাসের। তিনি বলেছেন, আনুশকার সঙ্গে সবচেয়ে বেশি সিনেমা করেছি। লোকে আমাদের জুটিটা উপভোগ তরে। তাই অমনটা বলে আনন্দ পায়। বাস্তবে আমাদের মধ্যে বন্ধুত্ব ছাড়া আর কিছুই নেই।
আনুশকা -প্রভাসের এমন বক্তব্যে গুঞ্জন আরও চাঙা হয়ে ওঠে। দীপিকা-রণবীর সিংয়ের উদাহরণ দিয়ে ভারতীয় সিনেপ্রেমীরা বলছেন, এমন বন্ধুত্ব থেকেই তো প্রেম হয় আর প্রেম থেকে বিয়ে। পর্দার এ জুটি বাস্তবে মালাবদল করতে বাঁধা কোথায়।
১৫ বছর ধরে ‘খুবই ভালো বন্ধু’ ৪১ বছর বয়সী প্রভাস আর ৩৯ বসন্ত পার করা আনুশকা শেঠি। জনসমক্ষেও তাঁদের দুজনের বেশ স্বাচ্ছন্দ্য, সাবলীল সম্পর্ক বারবার ধরা পড়েছে ক্যামেরার চোখে। কিন্তু দুজনে ডুবে ডুবে জল খাচ্ছেন কি না, এমন প্রশ্নের উত্তরে দুজনেই বলেছেন মুখস্থ সেই উত্তর, ‘না, আমরা খুবই ভালো বন্ধু।’ প্রভাস একটু ব্যাখ্যা করে বলেছেন, ‘ওর সঙ্গে সবচেয়ে বেশি সিনেমা করেছি, সময় কাটিয়েছি, বন্ধুত্বও হয়েছে, তাই লোকে অমন বলে।’
আর আনুশকা বলেছেন, ‘আমার আর প্রভাসের ১৫ বছরের বন্ধুত্ব। প্রভাসকে আমি রাত তিনটায়ও ফোন করে বকবক করতে পারি। ও আমার “থ্রি এএম ফ্রেন্ড”।’ প্রভাস আর আনুশকার প্রেমকাব্য নিয়ে দিস্তার পর দিস্তা লেখা হলেও কেউ কখনোই স্বীকার করেননি প্রেমের কথা। আবার দুজনেই এই বিয়ে করছেন করবেন করে কেউ বিয়েও করেননি। কে জানে, হয়তো দীপিকা পাড়ুকোন আর রণবীর সিংয়ের মতো এই দুই ভালো বন্ধুও বিয়ের ঘোষণা দিতে পারেন।
কিন্তু গত দুই বছর ধরে প্রভাসের মামা পারিবারিক বিবৃতিতে বলে আসছেন, এ বছরই বিয়ে করবেন প্রভাস। কিন্তু বিয়ের খোঁজ নেই! শোনা গেছে, বিয়ের জন্য ২৩ বছর বয়সী ইঞ্জিনিয়ার মেয়েও ঠিক করা হয়েছে প্রভাসের জন্য। কিন্তু এসব কোনো কিছু নিয়েই টুঁ শব্দটি করেননি প্রভাস। প্রেম, বিয়ে নিয়ে প্রশ্ন করা প্রশ্নের উত্তরে সব সময় লাজুক হাসি দিয়েই এড়িয়ে গেছেন। সালমান খানের পর প্রভাস ভারতের সেকেন্ড মোস্ট এলিজিবল ব্যাচেলর। ‘সাহো’ সিনেমার প্রচারণায় কাপিল শর্মার শোতে বলা হয়েছিল, প্রভাসের বিয়ের জন্য নাকি পাঁচ হাজার প্রস্তাব জমা পড়েছে। প্রভাস অবশ্য হেসে মাথা নাড়িয়ে বলেছেন, এসব নাকি গুজব।
জানা যাচ্ছে, প্রভাসের পরিবার নাকি ভীষণই রক্ষণশীল। তারা কখনও আনুশকাকে প্রভাসের স্ত্রী হিসাবে মেনে নেবেন না। কারণ আনুশকা কেন প্রভাসের পরিবার নাকি ‘লাভ ম্যারেজ’-এরই বিরোধী। বিশেষ করে প্রভাসের বাবা এবং কাকা দুজনেই অ্যারেঞ্জ ম্যারেজের পক্ষে, আর প্রভাস তার বাবা ও কাকার খুব কাছের। তাই পরিবারের বিরুদ্ধে গিয়ে তিনি কখনওই আনুশকাকে বিয়ে করবেন না। এমনকি এই কারণে তারা নাকি তাদের সম্পর্ককে বন্ধুত্বের থেকে এগিয়ে নিয়ে যাননি বলে এক সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছেন প্রভাসের পরিবারের ভীষণই ঘনিষ্ঠ এক ব্যক্তি।
তাই প্রভাস-আনুশকার ভক্তরা যারা বাস্তবে তাদের বিবাহ বন্ধনে বাধা পড়তে দেখতে চান, তাদের স্বপ্ন হয়ত চিরকালই অধরাই রয়ে যাবে।




সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft