বুধবার, ২৫ নভেম্বর, ২০২০
আক্কেল চাচার চিঠি (আঞ্চলিক ভাষায় লেখা)
মিছে কতায় ডবডবে চাইদ্দিক!
Published : Monday, 16 November, 2020 at 8:11 PM
মিছে কতায় ডবডবে চাইদ্দিক!একন চারিদিকি মিছে কতার জয়জয়কার। গাঙে যিরাম পট কইচুড়ি দিয়ে কুষ্টা জাগ দিলি কুষ্টা তলায় থাকে দেকা যায় না, সিরাম একন সত্যির ঘাড়ে মিত্যে ইরাম কইরে চইড়ে বইয়েচে যে সত্যি কুষ্টার মতো জাগে চইলে গেচে। সুমাজে ইরাম মানুসও আচে যাইগের মুকি মিত্যেডা শিল্পোর মতো হইয়ে গেচে। শুনতি কি মিঠে লাগে, কিন্তুক আগা গুড়া পুরোডাই মিছে কতা।
মুবালি যদি কেউ জানতি চায় কনে আছিস তালি বেশীর ভাগই মিছে কতা কয়। অনেকে আচে কোনটোয় যাওয়ার কতা, যাতি দেরী হইয়ে গেচে যদি শোনে কতদূর? হয়ত বাড়ি জামা প্যান পইত্তেচে, তবু কবে এই চইলে আয়চি। কুচো ছেলেপিলের পেরেম পিরিতির বাজার সয়লাব মিছে কতায়। এক পেমিক তার পেমিকারে মুবাল কইরে কচ্চে, বাবু কনে আছাও? পেমিকা কচ্চে এই তো মাত্তর ওযু কইরে ঘরে আসলাম, নামাজে দাড়াব। তুমি কনে আছো, কি কত্তিচাও সুনা? পেমিক কচ্চে আমি রেস্টুরেন্টে, তুমার তিন টেবিল পিছনে বইসে তজমি টিপতিচি। এট্টু ঘাড় ফিরোয় দেকো। কুটিকালে শুনতাম মিছে কতা কলি জিবে খইসে পড়ে। এই নিয়ে কতা হচ্চিল। একজন কলে, কতাডা যদি সত্যি হইতো তালি বহুত নিতা আর যারা টিবিতি খবর পড়ে তাগের মুকি জিবেই থাইকতো না। মিছে কতা সুমাজে এত দুরায়েচে যে, এট্টা সত্যি কতা কলি কেউ বিশ্বেস কত্তি চায় না। কিন্তুক এট্টা মিছে কতা গাবায় দিলি চোকির পলকে সব জাগায় ছড়ায় যায়। মুরুব্বীরা কইয়ে থাকে ঢাকের বাড়ির আগে চুপার বাড়ি দৌইড়োয় হয়ত সেই কারনে।
সেদিন এট্টা গল্প পড়লাম, এক কুকড়ো আরাক কুকড়োরে কচ্চে, কিরে কয়দিন ধইরে পাশের বাড়ি মোরগডারে ফেসবুকি দেকতিচি নে ফ্যারাডা কি? তাই শুইনে পাশের খোপের কুকড়ো কচ্চে, তারে দেকপি কনতে। ফেসবুকি পেরেম করিল দেশী কুকড়ো ভাইবে। পরে একদিন সাইজে গুইজে গিলো দেকা কত্তি। যাইয়ে দেকে দেশী কুকড়ো নাম ধইরে ভুয়ো আইডি চালাতো শিয়েল। ব্যস গেলিই কট।
তেবে গ্যালো কালকে মিছে কতা নিয়ে জুরালো এক বয়ান দেচেন আমাগের তত্যমুন্ত্রী হাসান চাচা। তিনি কইয়েচেন, রাজনীতিতি মিছে কতায় কোন পদক থাকলি ফাস্টো হতেন বিএমপির নিতা ফখরুল চাচা। উনি ফাস্টো হলো, কেউ না কেউ সেকেন, থার্ড হবেন আর কিলাসে তো মাত্তর একজন থাকে না। তার মানে কি দাড়াইলো কওদিনি বাপু!
ইতি-
অভাগা আক্কেল চাচা
০১৭২৮৮৭১০০৩



সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft