সোমবার, ১৯ এপ্রিল, ২০২১
ক্রীড়া সংবাদ
রোমাঞ্চকর জয় রাজশাহীর
ক্রীড়া ডেস্ক:
Published : Tuesday, 24 November, 2020 at 6:07 PM
রোমাঞ্চকর জয় রাজশাহীরবঙ্গবন্ধু টি-২০ টুর্নামেন্টের উদ্বোধনী ম্যাচে রোমাঞ্চকর জয় পেয়েছে রাজশাহী। আর এই জয়ে বড় ভূমিকা রেখেছেন মেহেদী হাসান। প্রতিপক্ষ বোলারদের চাপে দল দিশাহারা। লোয়ার অর্ডারে নামলেন তিনি। এরপর শুরু ঝড়ো ব্যাটিং। বিধ্বংসী ব্যাটিংয়ে প্রতিপক্ষ বোলারদের নাস্তানাবুদ করে নিজের দলকে স্বস্তি এনে দেন।
রাজশাহীর রান যখন ৫ উইকেটে ৬৫, তখন ক্রিজে আসেন মেহেদী। এরপর ৩২ বলে ৩ চার ও ৪ ছক্কায় ৫০ রানের ঝড়ো ইনিংস খেলেন। তাকে সঙ্গ দেওয়া কাজী নুরুল হাসান সোহান ২০ বলে ২ চার ও ৩ ছক্কায় করে ৩৯ রান। দুই জনের ব্যাটিংয়ে ঢাকার বিপক্ষে রাজশাহী ৯ উইকেটে তোলে ১৬৯ রান।
জবাবে রোমাঞ্চকর ম্যাচে ১৬৭ রানের বেশি করতে পারেনি ঢাকা। ২ রানের জয়ে বঙ্গবন্ধু টি-২০ দারুণ শুরু করলো রাজশাহী।
ব্যাটিংয়ের পর বোলিংয়েও মেহেদী রাখেন অবদান। শেষ ওভারে জয়ের জন্য ঢাকাকে ৯ রান করতে হতো। মেহেদীর প্রথম তিন বলে ব্যাটই লাগাতে পারেননি মুক্তার আলী। চতুর্থ বলে স্লগ করে বাউন্ডারি হাঁকালেও পঞ্চম বল আবারও ডট। কিন্তু পায়ের নো বলে ঢাকা বাড়তি আরও একটি বল পায়। ফ্রি হিট ও পরের বলও কাজে লাগাতে ব্যর্থ মুক্তার।
টস হেরে ব্যাটিং করতে নেমে ৬৫ রান তুলতে ৫ উইকেট হারায় রাজশাহী। দুই ওপেনার নাজমুল হোসেন শান্ত ও আনিসুল ইসলাম ইমন ভালো শুরু করলেও হাল ছেড়ে দেন। শান্ত ১৬ বলে করেন ১৭। ইমন ২৩ বলে করেন ৩৫ রান।
ভালো করতে পারেননি তিন সিনিয়র রনি তালুকদার ৬, মোহম্মদ আশরাফুল ৫ ও ফজলে মাহমুদ ০। বিপর্যয়ে পড়া দলকে টেনে তোলেন সোহান ও মেহেদী। দুইজন ষষ্ঠ উইকেটে ৪৯ বলে করেন ৮৯ রান। তাতে রাজশাহী ১৬৯ রানের বড় স্কোর পায়।
বল হাতে ঢাকাকে নেতৃত্ব দিয়েছেন মুক্তার আলী। ৪ ওভারে ২২ রানে নিয়েছেন ৩ উইকেট। একটি করে উইকেট পেয়েছেন রানা, নাসুম ও নাঈম।
পরে ব্যাটিংয়ে নেমে ঢাকা শুরুতে হারায় ইয়াসির আলী রাব্বিকে। মেহেদীর বলে এলবিডব্লিউ হন ডানহাতি ব্যাটসম্যান। এরপর নাঈম ও তানজিদের দারুণ ব্যাটিংয়ে রাজশাহীর পেসাররা এলোমেলো হয়ে যায়। দুই বাঁহাতির আগ্রাসনে পাওয়ার প্লেতে ঢাকা তোলে ৫২ রান। আরাফাত সানি বোলিংয়ে এসে নাঈমকে ফেরান ২৬ রানে। তানজিদ ১৮ রানে রান আউট হন।
এরপর মুশফিকুর রহিম ও আকবর আলীর দারুণ জুটি গড়ে দলের জয়ের সম্ভাবনা জাগান। আকবর খোলস থেকে বেরিয়ে দারুণ ব্যাটিং করেন। মুশফিক দিচ্ছিলেন দায়িত্বশীলতার পরিচয়। কিন্তু এক ওভারের ব্যবধানে দুই ব্যাটসম্যানের বিদায়ে ঢাকা পথ হারায়। ফরহাদ রেজাকে তুলে মারতে গিয়ে মিড উইকেটে ক্যাচ দেন ২৯ বলে ৩৪ রান করা আকবর। পরের ওভারে ইবাদতকে স্কুপ খেলতে গিয়ে উইকেটের পেছনে ক্যাচ দেন ৩৪ বলে ৪১ রান করা মুশফিক।
মুশফিকের বিদায়ের পর ১৭ বলে ৩৬ রান লাগতো ঢাকার। ওই ওভারে ৬ রান তোলেন দুই নতুন ব্যাটসম্যান সাব্বির রহমান ও মুক্তার। তবে ১৯তম ওভার দারুণভাবে কাজে লাগান তারা। ফরহাদ রেজাকে মিড উইকেট, ডিপ মিড উইকেট ও লং অন দিয়ে তিনটি ছক্কা হাঁকান মুক্তার। ১৯তমও ওভারে ২১ রান পায় ঢাকা। তাতে শেষ ওভারে ছড়ায় রোমাঞ্চ। ঢাকার জন্য ৯ রান মামুলী হলেও মেহেদী রাঙান শেষটা। মাত্র ৬ রান দিয়ে ম্যাচটা নিজের করে নেন। ডানহাতি অফস্পিনার পেয়েছেন ম্যাচ সেরার পুরস্কারও



সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft