বুধবার, ২১ এপ্রিল, ২০২১
দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চল
যশোরে পৃথক মামলায় তিনজনের কারাদণ্ড
কাগজ সংবাদ
Published : Tuesday, 24 November, 2020 at 8:47 PM
যশোরে পৃথক মামলায় তিনজনের কারাদণ্ডযশোরে মাদক ও চুরি মামলায় পৃথক দু’মামলায় দু’জনের কারাদন্ড দিয়েছেন আদালত। আদালত সূত্র জানায়, মাদক মামলায় জালাল শেখ নামে এক ব্যক্তিকে ছয় মাসের সশ্রম কারাদন্ড ও দু’ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও এক মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ড দেয়া হয়েছে। মঙ্গলবার এক রায়ে জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মঞ্জুরুল ইসলাম এ সাজা দেন। সাজাপ্রাপ্ত জালাল শেখ অভয়নগরের বুইকারা গ্রামের জয়নাল শেখের ছেলে। তিনি বর্তমানে পলাতক রয়েছেন।
মামলার অভিযোগে জানা গেছে, ২০১৪ সালের ২ মে অভয়নগর থানা পুলিশ গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বুইকারা ইট ভাটার সামনে অভিযান চালায়। এ সময় জালালকে আটক ও তার কাছে থেকে ২১ পুরিয়া গাঁজা উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় এসআই গৌতম কুমার পাল বাদী হয়ে অভয়নগর থানায় মামলা করেন। অপর দিক, মারামারি ও চুরি মামলায় দুই ভাইকে ভিন্ন মেয়াদে কারাদন্ড দিয়েছে একটি আদালত। ঘটনার সাথে জড়িত থাকার অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় এ মামলার অপর চার আসামিকে খালাস দিয়েছে আদালত। সাজাপ্রাপ্তরা হলো যশোর সদরের আন্দুলিয়া গ্রামের শাহাজান মোল্লার ছেলে আক্তার হোসেন ও আব্দুল মান্নান। মঙ্গলবার চিফ জুডিসিয়াল ম্যজিস্ট্রেট মোঃ শাহাদত হোসেন এক রায়ে এ সাজা দিয়েছেন। সাজাপ্রাপ্ত আক্তার হোসেন ও আব্দুল মান্নান কারাগারে আটক আছে।  
মামলার অভিযোগে জানা গেছে, আসামিদের সাথে জমি নিয়ে একই গ্রামের মতিয়ার রহমানের বিরোধ চলছিল। ২০১০ সালের ১০ ডিসেম্বর সকালে মতিয়ার ও তার ছেলে ৩৫ হাজার ৩শ’ টাকা নিয়ে পাওনাদার নরেন্দ্রপুর গ্রামের হাবিবুরকে দেয়ার উদ্যেশে বাড়ি থেকে বের হন। পথিমধ্যে আসামিদের বাড়ির সামনের পৌছালে পূর্বশত্রুতার জের ধরে তাদের আটকে মারপিট ও কুপিয়ে টাকা ছিনিয়ে নেয়। চিৎকারে আশে পাশের লোকজন এগিয়ে আসলে আসামিরা পালিয়ে যায়। এ ব্যাপারে ১৪ ডিসেম্বর মতিয়ার রহমান বাদী হয়ে ছয় জনকে আসামি করে হত্যা চেষ্টা ও চুরির অভিযোগে আদালতে মামলা করেন। আদালতের আদেশে ১৫ ডিসেম্বর কোতয়ালি থানায় নিয়মিত মামলা হিসেবে রুজু হয়। এ মামলার তদন্ত শেষে ৩০ ডিসেম্বর এজাহারনামীয় ছয় জনকে অভিযুক্ত করে আদালতে চার্জশিট জমা দেন তদন্ত কর্মকর্তা এসআই মাহমুদ আল ফরিদ ভুইয়া। এ মামলায় দীর্ঘ সাক্ষ্য গ্রহণ শেষে আসামি আক্তার হোসেনের বিরুদ্ধে ৩২৬ ধারার অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় তিন বছর কারাদন্ড ও পাঁচ হাজার টাকা জরিমানা, ৩৭৯ ধারার অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় এক বছর কারাদন্ড ও এক হাজার টাকা জরিমানা এবং আব্দুল মান্নানের বিরুদ্ধে ৩২৪ ধারার অভিযোগে প্রমাণিত হওয়ায় এক বছর কারাদন্ড ও এক হাজার টাকা জরিমানার আদেশ দিয়েছেন বিচারক। অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় কামরুল হোসেন, বদিয়ার রহমান, সাত্তার ও একরামকে খালাস দিয়েছেন আদালত।






সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft