মঙ্গলবার, ১৯ জানুয়ারি, ২০২১
দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চল
এবার ভারত থেকে ফিরতেও করোনা নেগেটিভ সনদ লাগবে বাংলাদেশিদের
কাগজ সংবাদ :
Published : Thursday, 26 November, 2020 at 10:19 PM
এবার ভারত থেকে ফিরতেও করোনা নেগেটিভ সনদ লাগবে বাংলাদেশিদের ভারত থেকে ফেরা বাংলাদেশি পাসপোর্টধারীদের ফিরতে করোনা নেগেটিভ সনদ আনার নির্দেশ দিয়েছে বাংলাদেশের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে কার্যকর হতে পারে এ নির্দেশ।
গত বুধবার বিকেলে এ ধরনের নির্দেশনা এসেছে বেনাপোল ইমিগ্রেশন স্বাস্থ্যবিভাগে। এ সিদ্ধান্ত স্থলপথের পাশাপাশি রেল ও আকাশ পথে কার্যকর হবে।
বেনাপোল ইমিগ্রেশন স্বাস্থ্যবিভাগের মেডিকেল অফিসার সুজন সেন জানান, আগে বাংলাদেশিদের ভারতে যাওয়ার জন্যে এবং ভারতীয়দের বাংলাদেশে প্রবেশে করোনা নেগেটিভ সনদ বাধ্যতামূলক ছিল। তবে, এবার বাংলাদেশিদের ভারত থেকে ফেরার সময় এবং ভারতীয়দের ভারতে ফেরার সময় করোনা নেগেটিভ সনদ দেখাতে হবে বলে নির্দেশনা  দেয়া হয়েছে। ইতিমধ্যে বাংলাদেশে অবস্থানরত ভারতীয়দের আসা ও যাওয়ার সময় করোনা পরীক্ষার সনদ গ্রহণের কার্যক্রম শুরু হয়েছে।
ইমিগ্রেশনের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আহসান হাবিব জানান, পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক প্রজ্ঞাপন হাতে পেয়েছি। ভারতে যাওয়া ও ভারত থেকে ফেরার সময় ৭২ ঘণ্টার মধ্যে দেশি-বিদেশি সব যাত্রীর করোনা পরীক্ষার নেগেটিভ সনদ সাথে থাকতে হবে বলে জানানো হয়েছে। বর্তমানে পূর্বের নিয়মে কার্যক্রম চলছে। পরবর্তী নির্দেশনা পৌঁছানো মাত্র করোনা সংক্রমণ প্রতিরোধে ইমিগ্রেশন পুলিশ যথাযথ দায়িত্ব পালন করবে।
ভারতগামী একজন যাত্রী বলেন, বাংলাদেশ থেকে যত লোক ভারতে যায়, সেই তুলনায় মাত্র পাঁচ শতাংশ ভারতীয় আসে বাংলাদেশে। জরুরিভাবে ভারত ভ্রমণে বাংলাদেশে করোনা পরীক্ষা করতে এক হাজার পাঁচশ’ টাকা লাগছে। ভারতে বাংলাদেশিদের জন্যে করোনা পরীক্ষার ফি কত পড়বে তা এখনো পর্যন্ত জানা যায়নি। দু’বার করোনা পরীক্ষায় অর্থের পাশাপাশি ভোগান্তি বাড়বে আমাদের। এক্ষেত্রে রাষ্ট্রীয় পর্যায়ে আলোচনা করে পরীক্ষা কার্যক্রম সহজ আর কম খরচে করার আহ্বান জানান তিনি।
কলকাতায় যাওয়ার যোগাযোগ ব্যবস্থা সহজ হওয়ায় এ পথে চিকিৎসা, ব্যবসা ও ভ্রমণে পাসপোর্টধারী যাত্রীরা বেশি যাতায়াত করে থাকে। প্রতিবছর এ পথে ভারত-বাংলাদেশের মধ্যে প্রায় ৩০ লাখ দেশি-বিদেশি যাত্রী যাতায়াত করে। এদের কাছ থেকে ভ্রমণকর বাবদ রাজস্ব আদায় হয় একশ’ কোটি টাকার কাছাকাছি।
চীনে ছড়িয়ে পড়া করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বাংলাদেশ ও প্রতিবেশী দেশ ভারতে ছড়িয়ে পড়লে প্রতিরোধ হিসেবে দু’ দেশের সরকার নানা ব্যবস্থা গ্রহণ করে। এরমধ্যে গত ১৩ মার্চ ভারত সরকারের নিষেধাজ্ঞায় যাতায়াত বন্ধ হয় বাংলাদেশিদের। বাংলাদেশেও আটকে পড়ে ভারতীয়রা। এতে বিশেষ করে গুরুতর রোগীরা চিকিৎসার জন্যে যেতে না পেরে বেকায়দায় পড়ে। যোগাযোগ বন্ধ থাকায় ব্যবসায়ীরাও বড় ধরনের লোকসানে ছিল। পরবর্তীতে পাঁচ মাস পর প্রথমে বাংলাদেশে আটকেপড়া ভারতীয়দের দেশে ফেরার সুযোগ হয়। সর্বশেষ, ভারত সরকার বাংলাদেশিদের মেডিকেল আর বিজনেস ভিসায় যাতায়াতের সুযোগ দেয়।




সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft