বুধবার, ২৭ জানুয়ারি, ২০২১
আক্কেল চাচার চিঠি (আঞ্চলিক ভাষায় লেখা)
মিনমিনে ছাগলে পাতা খাওয়ার যম !
Published : Saturday, 5 December, 2020 at 10:05 PM
মিনমিনে ছাগলে পাতা খাওয়ার যম !কুটিকালে মুরুব্বীগের মুকি কত কতা শুনতাম। সব কতার হেজেমানে সে সুমায় কত্তি পারিনি। একন ঠ্যাক খাইয়ে খাইয়ে বুজদিচি এ সব কতার মানে কি। ইশকুলির হাইতনেয় যে কয়দিন হাটিছি তকন মাজে মদ্দি গরু নিয়ে রচনা লিকতাম সে জন্যি আশপাশে মাটে ময়দানে গরু দেকলি চিনতি পারি। কিন্তুক কোনদিন মানুস নিয়ে রচনা লিকিও নি, পড়িওনি সেজন্যি মানুস চিনতি গুড়াগুড়ি ভুল হয়। মুকি মুকি চাউর এট্টা পোবাদ আচে মিন মিনে ছাগল পাতা খাওয়ার যম।
হটাস দেকলি মনে হবে ভাজা মাছডাও উল্টোয় খাতি পারে না, কিন্তুক ঝোপ বুইজে ইরাম কোপ মাইরে দেবে এক কোপেই উইলে যাওয়ার মতোন দশা। লোকের সুমকি কবে সুমাজডা নষ্ট হইয়ে গ্যালো কিচু হারামি লোকের জন্যি, ইরাম কাজ তারা করে কিরাম কইরে! ওগের মনে কি কোন মায়াদয়া নেই! সব সীমারের গুষ্টি হইয়ে গেচে। তাইগের কতা শুনলি জানডা জুড়োয় যাবে। মনে হবে আহারে দুইনেডা গরাপ হইয়ে যাইতো খালি আল্লার এই খাস বান্দাডা মানে আসমানের ফেরেশতাডা ছিলো বিলে রইক্কে, শুদু  তার জন্যি একনো মাটি উলোট পালোট হচ্চে না। অতচ সুযোগ পালি সেইতিই তলশুড়া কইরে ইরাম মাল হজমি করবে, খাওয়ার পর এট্টু ঢেকুরও উটপে না। হাড়ির মদ্দি মুক গুইজে দিয়ে তলা পন্তিক চাইটে খাবে কিন্তুক মুক দেইকে বুজারও জো থাকপে না যে এই মালই খাইয়ে চুয়া কইরেচে। আগে বুজতাম না একন বুজদিচি। আশপাশে সাতে সুংখানু ইরাম লোকের মাতে মিশা পইড়ে গেচে যাইগের সাতে পদ্দা ছাড়া মিশেও তাইগের দাতের বুদ্দিও আইজ পন্তিক পালাম না। অতচ তাইগের জন্যি কইলজে কাইটে রাইন্দেও দিচি। সারাজীবন যারে দেইকে আসতিচি সাত চড়েও কতা কয় না, একদিন যদি মাঝ রাত্তিরি জানাজানি হয় গাটিতি অস্তর নিয়ে ঘোরে আর রাইতে পাটির পালের গুদা, ইরাম কতা জানতি পাল্লি শীতির রাত্তিরিও গা ঘাইমে সুতায় যাওয়া জুগাড় হয়। তকন নিজির বুকি নিজি ছ্যাপ দিয়ে ডল্লিও ভয় কমে না, বাপরে বাপ এদ্দিন কার সাতে বসত কত্তিলাম।
এ সব নিয়ে কতা উসাতিই এক মুরুব্বী কলে, দেড়ি কতার অনেক দোষ, ভাইবে চিন্তে কতা কইস। এ সব মারফতি ব্যাপার স্যাপার জাহিরি কত্তি যাইসনে। যা জানিচিস মাড়ি আইটে থাক। না কলি গুন, কলি খুন। যে কয়দিন বাচিস গুনি হইয়ে থাক। আর যট্টুক জানিছিস জানের কাফফারা হিসেবে জুমার ঘরে এট্টা মিলাদ দিয়ে দে। যাতে শনি কাইটে যায়।
ইতি-
অভাগা আক্কেল চাচা
০১৭২৮৮৭১০০৩



সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft