বুধবার, ২৭ জানুয়ারি, ২০২১
দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চল
অ্যান্টিজেন টেস্টের যাত্রা শুরু যশোরে
ফয়সল ইসলাম
Published : Saturday, 5 December, 2020 at 11:50 PM
অ্যান্টিজেন টেস্টের যাত্রা শুরু যশোরেযশোর থেকেই শুরু হলো করোনাভাইরাস সংক্রমিত রোগী শনাক্তের অ্যান্টিজেন পরীক্ষা। শনিবার সকাল সাড়ে ১০টায় ভার্চ্যুয়াল মাধ্যমে যশোর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে এ পরীক্ষার উদ্বোধন করেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক। বাছাইকৃত তিনজন রোগীর পরীক্ষার মাধ্যমে কার্যক্রমের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করা হয়।
পরীক্ষা কার্যক্রম তদারকিতে ছিলেন যশোর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডাক্তার দিলীপ কুমার রায় ও সিভিল সার্জন ডাক্তার শেখ আবু শাহীন।
শনিবার যশোর ছাড়াও দেশের ৯টি জেলায় একযোগে অ্যান্টিজেন পরীক্ষা শুরু হয়েছে। অন্য জেলাগুলো হলো মেহেরপুর, গাইবান্ধা, পঞ্চগড়, জয়পুরহাট, ব্রাহ্মণবাড়িয়া, পটুয়াখালী, মুন্সিগঞ্জ, মাদারীপুর ও সিলেট।
উদ্বোধনকালে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, মুজিববর্ষে দেশের ১০ জেলায় অ্যান্টিজেন পরীক্ষা শুরুর মাধ্যমে স্বাস্থ্যখাতের আরেকটি মাইলফলক সৃষ্টি হলো। করোনাভাইরাসে সংক্রমিতদের শনাক্তে আগে থেকেই দেশে একশ’ আটটি পিসিআর ল্যাবে পরীক্ষা হয়ে আসছে। নতুন করে দশটি জেলায় অ্যান্টিজেন পরীক্ষা শুরু হলো।
স্বল্প সময়ে করোনাভাইরাসে সংক্রমিত রোগী শনাক্তের জন্যই এই অ্যাটিজেন পরীক্ষার ব্যবস্থা করা হলো। এ কার্যক্রমের মাধ্যমে দেশের স্বাস্থ্যসেবাকে আরও এক ধাপ এগিয়ে নেয়া সম্ভব হবে। সরকারের পক্ষ থেকে করোনাভাইরাস প্রতিরোধী টিকা সঠিক সময় নিয়ে আসার টেষ্টা করছে। সামাজিক সুরক্ষা টিকা হিসেবে মাস্ক পরাকে গুরুত্ব দিতে হবে। স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে।
তিনি বলেন আরও, অ্যান্টিজেন পরীক্ষাটি বাধ্যতামূলকভাবে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার নির্দেশনা অনুযায়ী করা হবে। এ পরীক্ষার জন্যও নাক বা মুখ গহ্বর থেকে নমুনা সংগ্রহ করা হয়। কোনো ব্যক্তির নমুনায় যদি নেগেটিভ ফলাফল আসে, তাহলে তাকে আবারও আরটি-পিসিআর পরীক্ষা করা হবে।
স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের সচিব আবদুল মান্নানের সভাপতিত্বে ভার্চ্যুয়াল সভায় আরও বক্তব্য দেন স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডাক্তার আবুল বাশার মোহাম্মদ খুরশিদ আলম, অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডাক্তার নাসিমা সুলতানাসহ অন্যান্য সংশ্লিষ্ট জেলার হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ও সিভিল সার্জনগণ।
সভায় মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (পরিকল্পনা ও উন্নয়ন) অধ্যাপক ডাক্তার মীরজাদি সেব্রিনা ফ্লোরা।
অ্যান্টিজেন টেস্টের যাত্রা শুরু যশোরেসিভিল সার্জন ডাক্তার শেখ আবু শাহীন জানান, ভৌগোলিক অবস্থানের কারণে যশোর জেলা করোনা সংক্রমণের ঝুঁকি বেশি। তাছাড়াও এ জেলায় রয়েছে দেশের বৃহৎ স্থলবন্দর, বিমানবন্দর এবং রেলওয়ে স্টেশন। ফলে অ্যান্টিজেন পরীক্ষার মাধ্যমে করোনা রোগী শনাক্ত ও তাদের চিকিৎসা সেবায় নতুন দিগন্তের সূচনা করবে। কারণ অ্যান্টিজেন পরীক্ষার মাধ্যমে দ্রুততম সময়ের মধ্যে করোনা সংক্রমিত রোগী শনাক্ত সম্ভব হবে। এর ফলে আক্রান্তদের দ্রুত সময়ের মধ্যে চিকিৎসা বা আইসোলেশনে চিকিৎসা নিশ্চিত করা যাবে। এতে করে অধিক সংক্রমণ হ্রাস পাবে।
যশোর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডাক্তার দিলীপ কুমার রায় জানান, যে সকল রোগীর সাত দিন ধরে জ্বর, সর্দি, কাশিসহ করোনার অন্যান্য উপসর্গ পাওয়া যাবে, শুধুমাত্র তাদের অ্যান্টিজেন পরীক্ষা করা হবে। করোনা ইউনিটে দায়িত্বে থাকা মেডিকেল অফিসার অনুপম দাসের নেতৃত্বে প্রশিক্ষিত তিনজনের একটি দল অ্যান্টিজেন পরীক্ষা কার্যক্রম পরিচালনা করবেন। প্রতিদিন বেলা ১১টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত ৬০ থেকে ৮০জন রোগীর অ্যান্টিজেন পরীক্ষা করার প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে। স্বাস্থ্য অধিদপ্তর থেকে ৫শ’ কিট আনা হয়েছে। চাহিদা অনুযায়ী পর্যাপ্ত পরিমাণে কিট আনা হবে।





সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft