মঙ্গলবার ৩১ জানুয়ারি ২০২৩ ১৮ মাঘ ১৪২৯
                
                
☗ হোম ➤ এক্সক্লুসিভ
এবারো সক্রিয় আসলাম সিন্ডিকেট
কেন্দ্রীয় কারাগারে দরপত্র জমা দেওয়া নিয়ে আতঙ্কে ঠিকাদাররা
বিপ্লব রহমান :
প্রকাশ: রোববার, ১৩ নভেম্বর, ২০২২, ১১:৪৬ পিএম |
আগামীকাল মঙ্গলবার যশোর কেন্দ্রীয় কারাগারের খাদ্যের দরপত্র জমা দেওয়ার তারিখ নির্ধারণ করা হয়েছে। ইতিমধ্যে অনেক ঠিকাদার দরপত্র কিনেছেন। এখন ওই দরপত্র জমা দিতে পারবেন কিনা তা নিয়ে সংশয় তৈরি হয়েছে ঠিকাদারদের মধ্যে। প্রতিবারের ন্যায় এবারো হুমকি ধামকি দিয়ে দরপত্র ছিনিয়ে নেওয়ার ষড়যন্ত্র শুরু হয়েছে বলে অভিযোগ করছেন দরপত্র কেনা ঠিকাদাররা। যদিও কেন্দ্রীয় কারাগার কর্তৃপক্ষ এ ধরনের কর্মকান্ড রুখে দিতে তৎপর রয়েছে।
ঠিকাদাররা জানিয়েছেন, যশোর কেন্দ্রীয় কারাগারের সবচেয়ে বড় কাজ খাদ্য কেনা। এ কারণে এই টেন্ডারের দিকে নজর থাকে অনেকেরই। কিন্তু একটি চক্র এই কাজ নিজেদের কব্জায় রেখে বেশি দামে সরবরাহ করতে অন্য ঠিকাদারদের দরপত্র জমা দিতে বাধা  দেয়। এবারও সেই অপচেষ্টা শুরু হয়েছে। আগামী বছরের জানুয়ারি থেকে জুন মাস পর্যন্ত খাদ্য সরবরাহ করতে দরপত্র আহ্বান করেছে কারা কর্তৃপক্ষ। যে দরপত্র আগামীকাল জমা দিতে হবে। ঠিকাদারদের অভিযোগ, প্রতিবছরই তারা দরপত্র কেনেন। কিন্তু স্থানীয় একটি মহল তাদেরকে হুমকি ধামকি দিয়ে দরপত্র জমা দিতে বাধা দেন। শুধু তাই না, তারা দরপত্রও কেড়ে নেন। যদি তাদের কথামতো কাজ না করা হয় তাহলে নানা ধরনের হুমকি ধামকিও দেয়া হয়। এ ধরনের আচরণ দীর্ঘ কয়েক বছর ধরে চলে আসছে। একপর্যায়ে ওই চক্রের হাতে চলে যায় সকল দরপত্র। গতবারও একই ধরনের ঘটনা ঘটেছে। ওইসময় ঠিকাদারদের দরপত্র ড্রপিং না করার জন্য ভয়ভীতি দেখানো হয়। শেষমেষ বলা হয় তাদেরকে কিছু টাকা দেওয়া হবে। অথচ আজও সেই টাকা দেওয়া হয়নি।
ঠিকাদারদের অভিযোগ,বরাবরের মতোই ওই শক্তিশালী সিন্ডিকেটটি তাদের নানা ধরনের হুমকি ধামকি দেওয়া শুরু করেছে। এ কারণে ঠিকাদারদের কেউ কেউ নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন। এ বিষয়ে প্রযোজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি জানিয়েছেন তারা।
সূত্র আরও জানায়, যশোর কেন্দ্রীয় কারাগারের খাবার সরবরাহের অধিকাংশ দরপত্র আসলাম এন্টারপ্রাইজের দখলে থাকে। ওই প্রতিষ্ঠানের মালিক আসলাম হোসেন সুমন নামে এক যুবলীগ নেতাকে ব্যবহার করেন। বিভিন্ন নামে দরপত্র কিনে তারাই জমা দেন। পরে আসলাম হোসেন নিজেই পুরো বিষয়টি নিয়ন্ত্রণ করেন।
এ বিষয়ে আসলাম হোসেন বলেন, বানিয়ে বলেছেন। এখন বিএনপির কোনো চারা নেই। আমি বিএনপির লোক। আমি কীভাবে ভয়ভীতি দেখাবো। নিয়মমাফিক সবকিছু হয়।
যশোর কেন্দ্রীয় কারাগারের জেলার ফোরকান ওয়াহিদ বলেন, তিনি নতুন এসেছেন। এর আগে এই কারাগারে কী হয়েছে না হয়েছে সে বিষয়ে তার কিছুই জানা নেই। তবে, এবার এমন কোনো কিছু হওয়ার সুযোগ নেই বলে দাবি করেন। তিনি আরও জানান, এবার কিছু ব্যতিক্রমী উদ্যোগও নেওয়া হয়েছে। যাতে করে সকলের অংশ নেওয়ার সুযোগ থাকছে। নিয়ম মেনে যেই আসবে সেই সিডিউল কিনতে ও জমা দিতে পারবেন।
উল্লেখ্য, গত পহেলা নভেম্বর খাবার সরবরাহের জন্য জাতীয় দু’টি পত্রিকায় দরপত্র আহ্বানের বিজ্ঞপ্তি দেয় কেন্দ্রীয় কারাগার কর্তৃপক্ষ। সেখানে আটটি প্যাকেজে শতাধিক পণ্যের দরপত্র আহ্বান করা হয়। ওইসব পণ্যের মধ্যে রয়েছে মাছ, মাংশ, সবজি, জ্বালানি, মশলা, সিগারেটসহ নানা ধরনের পণ্য। দরপত্র বিক্রির শেষ সময় নির্ধারণ করা হয় ১৪ নভেম্বর দুপুর আড়াইটা পর্যন্ত। জমাদানের সময় নির্ধারণ করা হয়েছে আগামীকাল সকাল নয়টা থেকে বেলা ১২টা পর্যন্ত। একইদিন বেলা সাড়ে ১২ টায় দরপত্রের বাক্স খোলা হবে। ২২ নভেম্বর দরপত্র মূল্যায়ন করা হবে। 


গ্রামের কাগজ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন


সর্বশেষ সংবাদ
সাবেক মেয়র, সচিব ও প্রশাসনিক কর্মকর্তার নামে মামলা
যশোর বোর্ডের একটি স্কুলের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশ
যশোরে এলজিইডির মানববন্ধন
সিরাজসিংহায় বাড়ি ছাড়ার হুমকি দেয়া হচ্ছে এক পিতৃহারাকে
জাল জখমি সনদে স্বামীর বিরুদ্ধে মামলা করে কারাগারে স্ত্রী
ডলার সংকটে রমজানে বাড়তে পারে খেজুরের দাম
পাকিস্তানের পেশোয়ারে মসজিদে বোমা বিস্ফোরণে নিহত ২৮
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
সভাপতি সুমন, সম্পাদক আরিফ
সাবেক মেয়র, সচিব ও প্রশাসনিক কর্মকর্তার নামে মামলা
বাঙালির কিছু বিখ্যাত বংশ পদবীর ইতিহাস
নর্দমায় ছুড়ে ফেলা স্বর্ণ উদ্ধার করলো পুলিশ, আটক এক
উন্নত বাংলার স্বপ্ন দেখিয়েছেন শেখ হাসিনা: সাবেক এমপি মনির
বেসরকারি হাসপাতালের ফি নির্ধারণ করা হচ্ছে : স্বাস্থ্যমন্ত্রী
বিএনপিকে জনগণ পালাবার সুযোগ দেবে না : তথ্যমন্ত্রী
আমাদের পথচলা | কাগজ পরিবার | প্রতিনিধিদের তথ্য | অন-লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য | স্মৃতির এ্যালবাম
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন | সহযোগী সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০২৪৭৭৭৬২১৮২, ০২৪৭৭৭৬২১৮০, ০২৪৭৭৭৬২১৮১, ০২৪৭৭৭৬২১৮৩ বিজ্ঞাপন : ০২৪৭৭৭৬২১৮৪, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
কপিরাইট © গ্রামের কাগজ সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত | Developed By: i2soft