মঙ্গলবার ৩১ জানুয়ারি ২০২৩ ১৮ মাঘ ১৪২৯
                
                
☗ হোম ➤ এক্সক্লুসিভ
প্রধানমন্ত্রীর জনসভায় আগত যানবাহন নিয়ন্ত্রণে থাকবে ৫শ’ ফোর্স
৫ হাজার গাড়ির জন্য ১০ পার্কিং স্পট
দেওয়ান মোর্শেদ আলম :
প্রকাশ: মঙ্গলবার, ১৫ নভেম্বর, ২০২২, ১২:৩৭ এএম |
২৪ নভেম্বর যশোরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জনসভা উপলক্ষে বিশাল গণ জমায়েতের জন্য বাস প্রাইভেট মাইক্রো মিলিয়ে ৫ হাজারের মত যানবাহন আসবে বলে টার্গেট জেলা আওয়ামী লীগ ও ট্রাফিক বিভাগ যশোরের। এর মধ্যে ৪ হাজার গাড়ি পার্কিংয়ের জন্য ইতিমধ্যে ১০টি পার্কিং স্পট নির্ধারণ করা হয়েছে। এরমধ্যে এমপি মন্ত্রীদের জন্য ৪টি স্পট, অন্য ভিআইপিদের জন্য ১টি স্পট ও আওয়ামী লীগ নেতা কর্মী ও শুভানুধ্যায়ীদের বাস প্রাইভেট ও মাইক্রো পার্কিংয়ের জন্য আরো ৫টি পার্কিং এলাকা নির্ধারণ করা হয়েছে।
জনসভা উপলক্ষে যশোর শহরের বাইরে থেকে আসা গাড়িগুলো অনুষ্ঠানের দিন সকাল থেকে ওই পার্কিং ব্যবহার করতে পারবে। জনসভার দিন শহরে স্বচ্ছ ট্রাফিক ব্যবস্থা এবং পরিচ্ছন্ন পার্কিং কার্যক্রম তদারকি ও শৃঙ্খলার জন্য অফিসার মিলিয়ে ট্রাফিক সংশ্লিষ্ট ৫শ’ ফোর্স কাজ করবে দিনব্যাপি। তবে ২৪ নভেম্বরের আগে প্রয়োজনে পার্কিং এলাকা আরো বাড়তে পারে, কিংবা পার্কিং স্পট রদবদল হতে পারে বলেও দাবি ট্রাফিক বিভাগের।
আর ৮ দিন পর যশোরে আসছেন প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা। তাকে স্বাগত জানাতে ব্যাপক প্রস্তুতি ও কর্মযজ্ঞ চলছে দলীয় ফোরামে এবং প্রশাসনে। তাকে এক নজর দেখতে এবং কথা শুনতে অধির আগ্রহে থাকা যশোরাঞ্চলের গণমানুষ সভাস্থলে আসতেও নিচ্ছেন প্রস্তুতি। যশোরে একদিকে এগিয়ে চলেছে সভাস্থল সজ্জার কাজ। আবার নিরাপত্তা ও শৃঙ্খলা নিয়েও বসছে দফায় দাফায় সভা।
দলীয় সূত্র জানিয়েছে, এই বিশাল গণজমায়েত নিয়ে যশোর জেলা আওয়ামী লীগের সংশ্লিষ্ট উপ কমিটি যানবাহন নিশ্চিত করতে কাজ করছে। জেলা আওয়ামী লীগ প্রধানমন্ত্রীর সভায় ৫ লাখ লোকের টার্গেট করছে। আর এই গণমানুষের সিংহভাগ আসবে শহরের বাইরে থেকে। বৃহত্তর যশোর ৪ জেলা এবং যশোরে ৮টি উপজেলা থেকে আসবে আওয়ামী লীগ ও তার অঙ্গ সংগঠনগুলোর নেতা কর্মী এবং সমর্থক। এর জন্য প্রায় ৫ হাজার গাড়ি যশোরে আসতে পারে। বৃহত্তর যশোর ছাড়াও বাইরের জেলা থেকেও গাড়ি সংগ্রহের চেষ্টা করা হচ্ছে। এদিকে ওই যানবাহনগুলো পরিচ্ছন্ন ও শৃঙ্খলার সাথে পার্কিংয়ের জন্য যশোর সদর ট্রাফিক বিভাগ কাজ শুরু করেছে।
টাফিক সূত্র জানিয়েছে, প্রাথমিকভাবে ছোট বড় মিলিয়ে ১০টি পার্কিং এলাকা নির্ধারণ করা হয়েছে। প্রতিমন্ত্রীদের গাড়ি যশোর বাদশা ফয়সল ইসলামী ইন্সটিটিউট, পূর্ণ মন্ত্রীদের গাড়ি মুসলিম একাডেমি স্কুল মাঠে পার্কিং করবেন। এছাড়া আগত পূর্ণ মন্ত্রীগণের গাড়ি এমএম কলেজের দক্ষিন গেট দিয়ে প্রবেশ করিয়ে কলেজ মাঠে পার্কিং করতে পারবেন। গাড়ি রেখে তারা  স্টেডিয়ামের পেছনের এমএম কলেজের গেট দিয়ে সভাস্থলে যেতে পারবেন। এমপিদের গাড়ির জন্য যশোর টাউন হল মাঠ নির্ধারণ করা হয়েছে। এছাড়া যশোর শহরের দক্ষিণাঞ্চল থেকে আসা ভিআইপিদের গাড়ি পার্কিংয়ের জন্য যশোর জেলা স্কুল মাঠ নির্ধারণ করা হয়েছে। সাধারণ নেতাকর্মীবাহী বাস মাইক্রো প্রাইভেট টামিনাল হয়ে শংকরপুর বাবলাতলার রাস্তায় পার্কিং করতে পারবে।
নড়াইল থেকে সাধারণ নেতা কর্মীদের বহন করে নিয়ে আসা বাস, প্রাইভেট মাইক্রোসহ অন্য ভার্সনের যানবাহনগুলো পার্কিং করতে হবে যশোর সরকারি সিটি কলেজ মাঠে। সেখানে জায়গা সংকুলান না হলে মণিহার থেকে খুলনামুখি মুড়লি পর্যন্ত চওড়া রাস্তার দুইপাশে পার্কিং করা যাবে। আর খুলনার দিক থেকে আসা যানবাহনগুলো মণিহার এলাকা থেকে মুড়লির একই রাস্তায় পার্কিং করবে। এছাড়া ওই রুটের গাড়ি মুড়লি থেকে শংকরপুর টার্মিনাল  হয়ে শংকরপুর বাবলাতলা রাস্তায় পার্কিং করতে পারবেন সরকারি মুরগি খামারের আগ পর্যন্ত। মাগুরা থেকে আসা যানবাহনগুলো খাজুরা স্ট্যান্ডের আগে নেতা কর্মী সমর্থকদের নামিয়ে দিয়ে উপশহর এলাকায় পার্কিং করবে। উপশহর ডিগ্রি কলেজ মাঠ, ঈদগাহ মাঠ ওই এলাকার রাস্তাগুলো ব্যবহার করতে পারবে পার্কিংয়ের জন্য। এছাড়া ঝিনাইদহ রুট থেকে আসা বাস প্রাইভেট মাইক্রোগুলো ধর্মতলায় নেতাকর্মী সমর্থকদের নামিয়ে দেবে। আর গাড়ি পার্কিং করতে হবে ধর্মতলা ছুটিপুর রাস্তায় জামতলা পর্যন্ত। এছাড়া ছুটিপুরসহ যশোর শহরের পশ্চিমাঞ্চলের নেতাকর্মীদের গাড়ি ওই এলাকার এক নির্ধারিত স্থানে পার্কিং করতে হবে। এছাড়া যশোর শহর বিশেষ করে পৌরসভার মধ্যে সকল প্রকার যানবাহন আগের দিন থেকেই চলাচল বন্ধ ঘোষণা করা হবে। একইসাথে ট্রাফিক বিভাগ ও জেলা আওয়ামী লীগ বিশেষ সমন্বয় সভা করে এসব ব্যাপারে আগামি ২৪ নভেম্বরের আগেই আরো একটি চূড়ান্ত রুপরেখা প্রদান করবে পার্কিং বিষয়ে। যশোর শহরের বিমানবন্দর রোড, শিক্ষা বোর্ড রোড, জনগুরুত্বপূর্ণ ও ব্যস্ত এলাকা দড়াটানা, নিউমার্কেট, মণিহার এলাকা, চাঁচড়া চেকপোস্ট, ধর্মতলা, আরবপুর মোড়, পালবাড়ী মোড়, মুজিব সড়ক, গাড়ীখানা রোড, এম.কে রোড, আর এন রোড, রেলরোড, সদর হাসপাতাল রোড, চিত্রারমোড়, মণিহার মোড়, জর্জ কোর্ট মোড়, জেলখানা মোড়, কাঠেরপুল-বড়বাজার এলাকাসহ আরও কয়েকটি এলাকায় ট্রাফিক বিভাগ সভার দিন এবং সভার আগের দিন ট্রাফিক কার্যক্রম কঠোর এবং জোরদার করবে। প্রধানমন্ত্রীর ওই জনসভা উপলক্ষে গাড়ি পার্কিং এবং ট্রাফিক ব্যবস্থা সুশঙ্খল রাখতে অফিসারসহ ট্রাফিক সংশ্লিষ্ট ৫শ’ ফোর্স থাকবে।
এ ব্যাপারে যশোর সদর ট্রাফিক ইন্সপেক্টর শুভেন্দু ব্যানার্জী গ্রামের কাগজকে জানিয়েছেন, প্রাথমিকভাবে ওই ১০টি পার্কিং এলাকা নির্ধারণ করা হয়েছে। এরপরও জেলা আওয়ামী লীগের সাথে তারা বসবেন। তাদের টার্গেটের উপর গাড়ির ধারণা করা হয়েছে। প্রাথমিকভাবে মনে করা হচ্ছে দুই হাজার বাস ও দুই হাজার প্রাইভেট মাইক্রো আসতে পারে সভা উপলক্ষে। এছাড়া ভিআইপি, মন্ত্রী এমপি মিলিয়ে আরো ১ হাজার ধরলে মোট ৫ হাজার গাড়ি হয়ে যেতে পারে। সে হিসেবেই ওই ১০ পার্কিং এলাকা নির্ধারণ করা হয়েছে। এখনও সময় আছে। প্রয়োজনে পার্কিং এরিয়া ও স্পট আরো বাড়ানো হবে। জনসভার দিন শহরে কোনো যানবাহন প্রবেশ করবেনা। শহরের অংশ পায়ে হেটেই যেতে হবে। আর পায়ে হেটে যাওয়ার জন্যও একটি রোডম্যাপ করা হচ্ছে, যা পরে মিডিয়াকে জানানো হবে।
এ ব্যাপারে যশোর জেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি আব্দুল মজিদ গ্রামের কাগজকে জানিয়েছেন, তারা প্রধানমন্ত্রীর ঐতিহাসিক এই জনসভায় ৫ লাখ লোক সমাগমের টার্গেট করছেন। এর বেশিরভাগ লোকই আসবে শহরের বাইর থেকে। এর জন্য ৫ হাজার গাড়ি আসতে পারে। বৃহত্তর যশোরের ৪ জেলা ছাড়াও খুলনা বিভাগের ১০ জেলা থেকেও কমবেশি মানুষ জনসভায় আসবেন। সেই আলোকে বাইরের জেলা থেকেও গাড়ি সংগ্রহ করার চেষ্টা চলছে। একটি শান্তিপুর্ণ ঐতিহাসিক জনসভা উপহার দেয়ার চেষ্টা করছে জেলা আওয়ামী লীগ। এরপর যানবাহনের দিকটিও সুন্দরভাবে দেখা হচ্ছে। এরজন্য ট্রাফিক বিভাগের সাথে সমন্বয় করে পার্কিং এলাকা নির্ধারণ করা হচ্ছে।














গ্রামের কাগজ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন


সর্বশেষ সংবাদ
সাবেক মেয়র, সচিব ও প্রশাসনিক কর্মকর্তার নামে মামলা
যশোর বোর্ডের একটি স্কুলের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশ
যশোরে এলজিইডির মানববন্ধন
সিরাজসিংহায় বাড়ি ছাড়ার হুমকি দেয়া হচ্ছে এক পিতৃহারাকে
জাল জখমি সনদে স্বামীর বিরুদ্ধে মামলা করে কারাগারে স্ত্রী
ডলার সংকটে রমজানে বাড়তে পারে খেজুরের দাম
পাকিস্তানের পেশোয়ারে মসজিদে বোমা বিস্ফোরণে নিহত ২৮
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
সভাপতি সুমন, সম্পাদক আরিফ
সাবেক মেয়র, সচিব ও প্রশাসনিক কর্মকর্তার নামে মামলা
বাঙালির কিছু বিখ্যাত বংশ পদবীর ইতিহাস
নর্দমায় ছুড়ে ফেলা স্বর্ণ উদ্ধার করলো পুলিশ, আটক এক
উন্নত বাংলার স্বপ্ন দেখিয়েছেন শেখ হাসিনা: সাবেক এমপি মনির
বেসরকারি হাসপাতালের ফি নির্ধারণ করা হচ্ছে : স্বাস্থ্যমন্ত্রী
বিএনপিকে জনগণ পালাবার সুযোগ দেবে না : তথ্যমন্ত্রী
আমাদের পথচলা | কাগজ পরিবার | প্রতিনিধিদের তথ্য | অন-লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য | স্মৃতির এ্যালবাম
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন | সহযোগী সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০২৪৭৭৭৬২১৮২, ০২৪৭৭৭৬২১৮০, ০২৪৭৭৭৬২১৮১, ০২৪৭৭৭৬২১৮৩ বিজ্ঞাপন : ০২৪৭৭৭৬২১৮৪, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
কপিরাইট © গ্রামের কাগজ সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত | Developed By: i2soft