মঙ্গলবার ৩১ জানুয়ারি ২০২৩ ১৮ মাঘ ১৪২৯
                
                
☗ হোম ➤ শিক্ষা বার্তা
জিপিএ-৫ পেয়েছে ৩০৮৯২, সবক্ষেত্রে মেয়েরা এগিয়ে
তাক লাগানো পাসের হার যশোর বোর্ডে
প্রকাশ: সোমবার, ২৮ নভেম্বর, ২০২২, ৯:০৫ পিএম |
পাসের হার : যশোরে ৯৫.০৩ শতাংশ, ঢাকা বোর্ডে ৯০ শতাংশ, ময়মনসিংহে ৮৬.০৭ শতাংশ, রাজশাহীতে ৮৫.৮৮ শতাংশ, কুমিল্লায় ৯১.২৮ শতাংশ, চট্টগ্রামে ৮৭.৫৩ শতাংশ, বরিশালে ৮৯.৬১ শতাংশ, দিনাজপুরে ৮১.১৪ শতাংশ ও সিলেটে ৭৮.৮২ শতাংশ
এম. আইউব
এ বছর এসএসসি পরীক্ষায় পাসের হারে তাক লাগিয়েছে যশোর শিক্ষাবোর্ড। দেশের সবকয়টি বোর্ডের মধ্যে সর্বোচ্চ পাসের হার এখানে। এবারের এসএসসি পরীক্ষায় যশোর শিক্ষাবোর্ডে মোট জিপিএ-৫ পেয়েছে ৩০ হাজার ৮৯২ জন পরীক্ষার্থী। গত বছরের তুলনায় এবার প্রায় দ্বিগুণ জিপিএ-৫ পেয়েছে। ২০২১ সালে জিপিএ-৫ পেয়েছিল ১৬ হাজার ৪৬১ জন। গত বছরের তুলনায় বেড়েছে পাসের হারও। এবার পাসের হার ৯৫.১৭ শতাংশ। গত বছর পাসের হার ছিল ৯৩.০৯ শতাংশ। ফলাফলে মেয়েদের টপকাতে পারেনি ছেলেরা।
যশোর বোর্ডে মেয়েদের টপকাতে পারছে না ছেলেরা। গত কয়েক বছরের পরিসংখ্যান তাই বলছে। এবারও মেয়েরা এগিয়ে রয়েছে। জিপিএ-৫ পেয়েছে ১৭ হাজার ২৭৫ জন মেয়ে। আর ১৩ হাজার ৬১৭ জন ছেলে পেয়েছে জিপিএ-৫। পাসের হারেও এগিয়ে মেয়েরা।
এ বছর পরীক্ষায় অংশ নিতে ফরম পূরণ করে ১ লাখ ৭২ হাজার ৮৩ জন। এদের মধ্যে ১ লাখ ৬৯ হাজার ৫০১ জন পরীক্ষা দেয়। তাদের মধ্যে পাস করেছে ১ লাখ ৬১ হাজার ৩১৪ জন।
পাস করা পরীক্ষার্থীদের মধ্যে বিজ্ঞান বিভাগে ২০ হাজার ৩০১ জন ছেলে ও মেয়ে ১৭ হাজার ৪৬৭ জন, মানবিক বিভাগে ছেলে ৪৮ হাজার ৮৫ ও মেয়ে ৫৩ হাজার ৬২৭ জন এবং ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগে ১২ হাজার ৪৭২ ছেলে ও ৯ হাজার ৩৬২ জন মেয়ে রয়েছে।
এদের মধ্যে জিপিএ-৫ পেয়েছে ৩০ হাজার ৮৯২ জন। এরমধ্যে ছেলে ১৩ হাজার ৬১৭ ও মেয়ে ১৭ হাজার ২৭৫ জন। বিজ্ঞান বিভাগ থেকে ১১ হাজার ৭৭৭ জন ছেলে ও ১১ হাজার ৯২৪ জন, মানবিক বিভাগ থেকে ৮৬২ জন ছেলে ও ৩ হাজার ৭০৩ জন মেয়ে এবং ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগ থেকে ৯৭৮ জন ছেলে ও ১ হাজার ৬৪৮ জন মেয়ে জিপিএ-৫ পেয়েছে। এছাড়া, জিপিএ-৪ থেকে ৫ এর নীচে পেয়েছে ৫৪ হাজার ৭৫০, জিপিএ-৩.৫ থেকে ৪ এর নীচে পেয়েছে ৩২ হাজার ৫৯০, জিপিএ-৩ থেকে ৩.৫ এর নীচে পেয়েছে ২৫ হাজার ১৩০, জিপিএ-২ থেকে ৩ এর নীচে পেয়েছে ১৭ হাজার ১৫৭ এবং জিপিএ-১ থেকে ২ এর নীচে পেয়েছে ৭৯৫ জন।
জেলার মধ্যে পাসের দিক থেকে শীর্ষে রয়েছে সাতক্ষীরা। এই জেলায় সর্বাধিক ৯৭.৩৮ শতাংশ পাস করেছে। দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে যশোর। যশোরে পাসের হার ৯৫.৭৭ শতাংশ। তৃতীয় স্থানে রয়েছে খুলনা। খুলনা জেলায় পাস করেছে ৯৫.৭৫ শতাংশ। কুষ্টিয়ায় ৯৫.৪১, বাগেরহাটে ৯৫.২৮, চুয়াডাঙ্গায় ৯৪.৭০, মেহেরপুরে ৯৪.৩৩, মাগুরায় ৯৩.৭৬, ঝিনাইদহে ৯৩.৫৯ ও নড়াইলে ৯২.৫৫ শতাংশ পাস করেছে।
গত চার বছরের পরিসংখ্যান বিশ্লেষণ করে দেখা গেছে, এ বছর সবকিছু ঊর্ধ্বমুখী। পাসের হার ২০১৯ সালে ৯০.৮৮, ২০২০ সালে ৮৭.৩১, ২০২১ সালে ৯৩.০৯ ও ২০২২ সালে ৯৫.১৭ শতাংশ। জিপিএ-৫ ক্ষেত্রেও হার উপরের দিকে। ২০১৯ সালে জিপিএ-৫ পেয়েছিল ৯ হাজার ৯৪৮, ২০২০ সালে ১৩ হাজার ৭৬৪, ২০২১ সালে ১৬ হাজার ৪৬১ ও সর্বশেষ, ২০২২ সালে ৩০ হাজার ৮৯২ জন পরীক্ষার্থী জিপিএ-৫ পেয়েছে।
এবারের এসএসসি পরীক্ষায় যশোর বোর্ডে ৫১৩ টি স্কুল থেকে শতভাগ পরীক্ষার্থী পাস করেছে। অকৃতকার্য হয়েছে একটি স্কুল থেকে। ওই স্কুলের নাম গালদা খরিঞ্চি গার্লস হাইস্কুল। এটি যশোরের মণিরামপুর উপজেলার শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান। এই স্কুল থেকে একজন পরীক্ষার্থী পরীক্ষা দিলেও সে পাস করতে পারেনি। গত বছরও ওই পরীক্ষার্থী অকৃতকার্য হয় বলে পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক প্রফেসর মাধব চন্দ্র রুদ্র জানিয়েছেন।
এদিকে, দুপুর দেড়টায় শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনির আনুষ্ঠানিক ব্রিফিংয়ের পর প্রেসক্লাব যশোরে পরিসংখ্যান উপস্থাপন করে ব্রিফিং করেন যশোর শিক্ষাবোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক প্রফেসর মাধবচন্দ্র রুদ্র। তিনি বলেন, এবার সংক্ষিপ্ত সিলেবাসে পরীক্ষা গ্রহণ এবং পরীক্ষার্থীদের জন্য নানা অপশন থাকায় পাসের হার বেড়েছে।
ব্রিফিংয়ের সময় উপস্থিত ছিলেন কলেজ পরিদর্শক কেএম রব্বানী, উপ কলেজ পরিদর্শক মদন মোহন দাশ ও উপপরীক্ষা নিয়ন্ত্রক (মাধ্যমিক) ফজলুর রহমান।
অপরদিকে, সকাল থেকে ফল প্রত্যাশীরা তাদের প্রিয় শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ভিড় করতে থাকে। সকাল সাড়ে ১১ টার পর থেকেই অনলাইন এবং মোবাইল ফোনের এসএমএসের মাধ্যমে ফলাফল জেনে আনন্দে মেতে ওঠেন শিক্ষার্থী, অভিভাবক ও শিক্ষকরা। বাজনার তালে তালে আনন্দ, নাচ ও হৈহুল্লোড়ের পাশাপাশি মিষ্টি বিতরণ করেন অনেকে। কাঙ্খিত ফলাফলে খুশি শিক্ষার্থীরা। সন্তানের সাফল্যে আনন্দ অশ্রু ঝরে অনেক অভিভাবকের। এর উল্টো চিত্রও দেখা যায়। কাঙ্খিত ফল না পেয়ে অনেক পরীক্ষার্থী কান্নায় ভেঙে পড়ে।
এদিকে, নয়টি সাধারণ শিক্ষাবোর্ড, মাদরাসা ও কারিগরি শিক্ষাবোর্ড মিলে এবারের পাসের গড় হার ৮৭ দশমিক ৪৪ শতাংশ। গত বছর গড় পাসের হার ছিল ৯৩ দশমিক ৫৮ শতাংশ।
এবার ঢাকা শিক্ষাবোর্ডে পাসের হার ৯০ শতাংশ, ময়মনসিংহে ৮৬.০৭ শতাংশ, রাজশাহীতে ৮৫.৮৮ শতাংশ, কুমিল্লায় ৯১.২৮ শতাংশ, যশোরে ৯৫.০৩ শতাংশ, চট্টগ্রামে ৮৭.৫৩ শতাংশ, বরিশালে ৮৯.৬১ শতাংশ, দিনাজপুরে ৮১.১৪ শতাংশ ও সিলেটে ৭৮.৮২ শতাংশ।
গত ১৫ সেপ্টেম্বর এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা শুরু হয়। করোনা পরিস্থিতি ও বন্যার কারণে দীর্ঘদিন আটকে থাকার পর অনুষ্ঠিত হয় এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা। সাধারণত পরীক্ষা শেষ হওয়ার ৬০ দিনের মধ্যে ফল প্রকাশ করা হয়।
এ বছর নয়টি সাধারণ শিক্ষা বোর্ড, মাদরাসা এবং কারিগরি শিক্ষা বোর্ড মিলিয়ে এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় মোট পরীক্ষার্থী ছিল ২০ লাখের বেশি। এরমধ্যে সাধারণ শিক্ষা বোর্ডগুলোর অধীনে প্রায় ১৬ লাখ এসএসসি পরীক্ষার্থী পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে।
যশোর বোর্ডে সর্বোচ্চ পাসের হার নিয়ে কথা বলেন পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক প্রফেসর মাধব চন্দ্র রুদ্র। তিনি বলেন, এটি স্বাভাবিক ফল। কারণ এ বছর মূল বই থেকে প্রশ্ন হওয়ায় পরীক্ষার্থীরা ভালোভাবে উত্তন দিতে পেরেছে। একইসাথে উত্তর দিতে একাধিক অপশন ছিল। এমসিকিউও অপেক্ষাকৃত সহজ ছিল। মূল বইকে গুরুত্ব দেওয়ায় এমন ফলাফল হয়েছে।



গ্রামের কাগজ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন


সর্বশেষ সংবাদ
দৃষ্টিনন্দন বিনোদন কেন্দ্র ‘স্বপ্নদ্বীপ রিসোর্ট’
পাকিস্তানে মসজিদে হামলা: নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৭২
বিশ্বকাপের সেরা একাদশে জায়গা করে নিলেন স্বর্ণা
কোভিড নিয়ে এখনও বড় ভয় আছে : বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা
বিশ্বজুড়ে করোনায় বেড়েছে মৃত্যু, কমেছে শনাক্ত
সাবেক মেয়র, সচিব ও প্রশাসনিক কর্মকর্তার নামে মামলা
যশোর বোর্ডের একটি স্কুলের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
সাবেক মেয়র, সচিব ও প্রশাসনিক কর্মকর্তার নামে মামলা
সভাপতি সুমন, সম্পাদক আরিফ
বাঙালির কিছু বিখ্যাত বংশ পদবীর ইতিহাস
উন্নত বাংলার স্বপ্ন দেখিয়েছেন শেখ হাসিনা: সাবেক এমপি মনির
যশোর বোর্ডের একটি স্কুলের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশ
বেসরকারি হাসপাতালের ফি নির্ধারণ করা হচ্ছে : স্বাস্থ্যমন্ত্রী
বিএনপিকে জনগণ পালাবার সুযোগ দেবে না : তথ্যমন্ত্রী
আমাদের পথচলা | কাগজ পরিবার | প্রতিনিধিদের তথ্য | অন-লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য | স্মৃতির এ্যালবাম
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন | সহযোগী সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০২৪৭৭৭৬২১৮২, ০২৪৭৭৭৬২১৮০, ০২৪৭৭৭৬২১৮১, ০২৪৭৭৭৬২১৮৩ বিজ্ঞাপন : ০২৪৭৭৭৬২১৮৪, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
কপিরাইট © গ্রামের কাগজ সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত | Developed By: i2soft