শিরোনাম: যশোরে ৪৫৫ ভূমিহীনের জন্য বাড়ি        যশোর আইনজীবী সমিতির নির্বাচনে জাতীয়তাবাদী ফোরামের ভরাডুবি       জয় পেয়েছে চট্টগ্রাম-বরিশাল       সুমাজিক যুগাযোগ মাইদ্যম কি সুমাজিক থাকচে?       মণিরামপুরে ট্রাক থেকে লাফিয়ে পড়ে যুবকের আত্মহত্যা        ম্যারাডোনার জার্সি নিলামে ওঠার প্রস্তাব       বাড়ি থেকে বর্জ্য সংগ্রহ করবে যশোর পৌরসভা       যশোরে নতুন করে ১০ জনের করোনা শনাক্ত        কালীগঞ্জে শিশু দগ্ধ        চাঁচড়া যুব মহিলা লীগের কর্মী সম্মেলন      
ফলোআপ :
১৫ মুক্তিযোদ্ধার ভাতা প্রদানের নির্দেশ
শিমুল ভূইয়া
Published : Friday, 2 October, 2020 at 12:06 AM
 ১৫ মুক্তিযোদ্ধার 
ভাতা প্রদানের নির্দেশযশোর সদর উপজেলায় ভাতা স্থগিত হওয়া ৫২ জন মুক্তিযোদ্ধার মধ্যে  ১৫ জনকে ফের ভাতা প্রদানের নির্দেশ দিয়েে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কামরুজ্জামান। বৃহস্পতিবার সোনালী ব্যাংক কালেক্টরেট ভবন শাখার ম্যানেজারকে এ নির্দেশ দিয়েছেন তিনি। ব্যাংক ম্যানেজারকে দেওয়া ওইপত্রে উপজেলা সমাজসেবা অফিসারও স্বাক্ষর করেছেন।
নতুন করে যাদের ভাতা প্রদানের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে তারা হলেন,
পূর্ববারান্দিপাড়ার সিরাজুল ইসলাম ও আবুল হাসেম, উপশহর ২ নম্বর সেক্টরের সরাফত হোসেন, ঘোপ জেল রোডের মুস্তাক আলী, লোন অফিসপাড়ার রবিউল ইসলাম, পুরাতন কসবার রশিদা বেগম, কাজীপাড়ার মাসরুদা খাতুন, আড়পাড়ার নুরুন্নাহার, বিরামপুরের লিয়াকত আলী, পাঁচবাড়িয়ার নবীরননেসা, সুলতানপুরের ফাতেমা, খোজারহাটের চিয়ারবানু, বারান্দিপাড়ার জামেলা বেগম, এনায়েতপুরের আব্দুল মতলেব ও ঘোপ নওয়াপাড়া রোডের গোলাম মোস্তফা।  
এ বিষয়ে সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কামরুজ্জামান বলেন, মন্ত্রণালয় থেকে মোবাইল ফোনের মাধ্যমে তাকে জরুরি ভিত্তিতে ভাতা বন্ধের নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল। পরে ১৫ জন মুক্তিযোদ্ধা তাদের প্রামাণ্য কাগজপত্র উপস্থাপন করেন। মন্ত্রণালয় থেকে তাকে পুনরায় ভাতা চালুর নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বলেন, যাদের হাইকোর্টে রিট করা আছে তাদের কাগজপত্র জমা দেওয়ার জন্যে বলা হয়েছে। ওই কাগজপত্র মন্ত্রণালয়ে পাঠাবেন। সেখান থেকে পরে নির্দেশনা আসার পর পরবর্তী পদক্ষেপ নেওয়া হবে। এ বিষয়ে নতুন করে ভাতা পাওয়া আব্দুল মোতালেব বলেন, তিনি একজন প্রকৃত মুক্তিযোদ্ধা। তার স্বপক্ষে সকল প্রমাণপত্র রয়েছে। তারপরও তার এলাকার মোশারফ হোসেন, নেকমান ও কাওছার শত্রæতা করে তার বিরুদ্ধে বিভিন্ন ধরনের অভিযোগ দিয়ে হয়রানি করে যাচ্ছেন। চেয়ারবানুর ছেলে শুকুর আলী জানান,তিনি একজন পুলিশ সদস্য। মুক্তিযোদ্ধা কোটায় তার চাকরি। অথচ দৌলতদিহির মোশারফ ও শ্যামনগরের লুৎফর তার বাবাকে রাজাকার বানানোর পাঁয়তারা করছে। ইতিমধ্যে বিভিন্ন জায়গায় অভিযোগও দিয়েছে তারা। মহিউদ্দিনের ছেলে সরাফত হোসেন মুন্নাসহ বেশ কয়েক জনের সাথে কথা বললে তারা জানান, মুক্তিযোদ্ধা সংসদ নির্বাচনে একটি পক্ষের হয়ে কাজ না করায় তাদের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রমূলক ভাবে এ ধরণের কর্মকান্ড করা হচ্ছে।




« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »


সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft