শিরোনাম: সখি ভালোবাসা কারে কয় !       বিচারক স্বামীর বিরুদ্ধে যবিপ্রবি শিক্ষকের সংবাদ সম্মেলন        রেলস্টেশন এলাকায় দু’যুবককে হত্যাচেষ্টা ঘটনায় অভিযুক্ত ১০        এবার যশোরে এতিমখানা থেকে চাল ডাল তেল চুরি       পুরাতনকসবা ঘোষপাড়া ও পালবাড়ি এলাকায় মাদক সিন্ডিকেট সক্রিয়        শীতের সাথে শুরু হয়েছে গরম কাপড় বিক্রি       প্রাথমিকের শিক্ষার্থীদের একই রোল হচ্ছে পরের ক্লাসে       মণিরামপুরে ভোক্তা অধিকারের অভিযান       যৌতুক মামলায় স্বামীর কারাদণ্ড       নৌকার পক্ষে না থাকলে বহিস্কার      
ব্যথার মাঝেও আনন্দ নিয়ে দুর্গাপূজায় প্রতিমা বিসর্জন
স্বপ্না দেবনাথ
Published : Monday, 26 October, 2020 at 9:03 PM
ব্যথার মাঝেও আনন্দ নিয়ে দুর্গাপূজায় প্রতিমা বিসর্জনশেষ হলো মহাআনন্দ যজ্ঞ। অশুভ শক্তিকে পরাজিত করে শুভ শক্তির বিজয়ে প্রতিমা বিসর্জনের মধ্য দিয়ে এবছরের মতো বাঙালি সনাতন ধর্মবিশ্বাসীদের সবচেয়ে বড় উৎসব দুর্গাপূজার সমাপ্তি ঘটেছে। সোমবার সকালে শাস্ত্রীয় রীতি অনুসারে দশমী বিহীত পূজা শেষে মন্দিরে মন্দিরে দর্পন বিসর্জন হয়। স্থান ভেদে বিকেল এবং সন্ধ্যায় যথাযথ পরম্পরা মেনে প্রতিমা বিসর্জন হয়েছে। দেবী এবার এসেছিলেন দোলায় চড়ে। জগতের মঙ্গল কামনায় শস্যপূর্ণ বসুন্ধরা উপহার দিতে ফিরে গেলেন গজে।
সকাল থেকেই ম-পে ম-পে ছিল বিদায়ের সুর, বিসর্জনের ব্যথা। বিসর্জনের মাধ্যমেই পুনরায় আগমনের আশা সঞ্চারিত হয়।  বিসর্জনের এ তাৎপর্য থেকে অবশ্য সকলে ব্যথার মাঝেও আনন্দে মাতে। চলে সিঁদুর খেলা, মিষ্টিমুখ, ছবি তোলা আর ঢাকের তালে তালে নাচ। যদিও বৈশ্বিক মহামারি করোনার সংক্রমণ এড়াতে এবছর ধর্মীয় আচার অনুষ্ঠান সংক্ষিপ্ত করা হয়।
যশোর শহরে প্রতিমা বিসর্জনের অন্যতম পরিচিত জায়গা লালদিঘি। এবছরও ধর্মীয় আচার মেনে এ দিঘিতে বিভিন্ন মন্দিরের প্রতিমা বিসর্জন হয়েছে। এবার শোভাযাত্রার মাধ্যমে প্রতিমা বিসর্জন হয়নি। পূজা উদযাপন পরিষদ ও পৌর কর্তৃপক্ষের তত্ত্বাবধানে অনানুষ্ঠানিকভাবে বিসর্জন হয়। প্রতি ম-প থেকে সরাসরি ঘাটে গিয়ে প্রতিমা বিসর্জন দিয়েছেন স্ব স্ব মন্দির থেকে আগত ভক্তরা। এর আগে সন্ধ্যা সাড়ে পাঁচটায় লালদিঘির রাজু মঞ্চে আয়োজিত অনাড়ম্বর আয়োজনে প্রধান অতিথি হিসেবে প্রতিমা নিরঞ্জন কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন জেলা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ও যশোর-৬ আসনের সংসদ সদস্য শাহীন চাকলাদার। এ সময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহসভাপতি আব্দুল মতিন, জেলা পূজা পরিষদের সভাপতি অসীম কুন্ডুু, সাধারণ সম্পাদক যোগেশ দত্ত, সদর উপজেলা পূজা পরিষদের সভাপতি দুলাল সমাদ্দার, সাধারণ সম্পাদক দেবেন্দ্রনাথ ভাস্করসহ পূজা পরিষদ এবং আওয়ামী লীগ ও যুবলীগের নেতৃবৃন্দ। সন্ধ্যা থেকে রাত অবধি চলা বিসর্জন কার্যক্রম পরিদর্শনে আসেন কোতোয়ালি থানার ওসি মনিরুজ্জামানসহ সামাজিক, সাংস্কৃতিক, রাজনৈতিক ও পেশাজীবী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ। চৌরাস্তা মন্দিরের প্রতিমা দিয়ে বিসর্জন কার্যক্রম শুরু হয়।
প্রধান অতিথি তার বক্তৃতায় বলেন, অসাম্প্রদায়িক দেশ বাংলাদেশ। করোনা পরিস্থিতিতে সার্বজনীন উৎসব দুর্গাপূজা উদযাপনে কিছু বিধি নিষেধ করা হয়। এমন নিষেধাজ্ঞা গত ঈদুল ফিতর ও আজহাতেও ছিল। এটা সকলের স্বার্থে। পূজা নির্বিঘœ করতে পূজা আয়োজকদের আর্থিক প্রণোদনা দেওয়ার জন্যে প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানান তিনি।     





« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »


সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft