দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চল
শিরোনাম: ‘যুবরাজ সালমানের মদদেই খুন হন সাংবাদিক খাশোগি’       স্কুটিতে চড়ে নজিরবিহীন প্রতিবাদ মমতার       কেশবপুরে আ’লীগের চার বিদ্রোহী প্রার্থীকে বহিষ্কার       শৈলকুপা আ’লীগের নির্বাচনী জনসভা জনসমুদ্রে পরিণত       বিশেষ ট্রাউজার পরে খেলবে টাইগাররা       পিসিবি’র প্রস্তাব ফিরিয়ে দিলেন হাফিজ       কলাপাড়ায় সাবেক এমপি পুত্রের বিরুদ্ধে জমি দখল করে মাছের ঘের করার অভিযোগ       কেএমডি যুব পাঠাগারের উদ্যোগে জাতীয় গ্রন্থাগার দিবস উদযাপন       রাণীনগর উপজেলা আ.লীগের সম্মেলন অনুষ্ঠিত       ফুলবাড়ীতে পণ্যে পাটজাত মোড়ক ব্যবহার শীর্ষক উদ্বুদ্ধকরণ সভা অনুষ্ঠিত      
মোংলা বন্দরে ক্ষতির শিকার হচ্ছে বিদেশি জাহাজ, আসতে অনীহা প্রকাশ
এমএম ফিরোজ,মোংলা
Published : Saturday, 23 January, 2021 at 7:49 PM, Count : 725
মোংলা বন্দরে ক্ষতির শিকার হচ্ছে বিদেশি জাহাজ, আসতে অনীহা প্রকাশনাব্যতা সংকটের কারণে মোংলা বন্দর জেটিতে কাত হয়ে গেছে একটি বিদেশি জাহাজ। জাহাজকে ক্ষতির হাত থেকে রক্ষা করতে আকুতি জানিয়েছেন বিদেশি ওই জাহাজের ক্যাপ্টেন। আরেকটি বিদেশি জাহাজ ভেড়ার সময় জেটির পাশে প্যানডার না থাকায় আঘাত ও ঘষায় কারণে দুমড়ে মুচড়ে গেছে। এসব ব্যাপারে পৃথকভাবে বন্দরের চেয়ারম্যান ও হারবার মাস্টারের কাছে লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন ওই দু’ বিদেশি জাহাজের ক্যাপ্টেন।
স্থানীয় শিপিং এজেন্টের সাথে কথা বলে জানা যায়, পাথর বোঝাই এম.ভি তুহিনা নামে বিদেশি একটি জাহাজ গত ১৮ জানুয়ারি বন্দরের ৭ নম্বর জেটিতে ভিড়ে। জেটিতে থাকা অবস্থায় গত বৃহস্পতিবার নাব্যতা সংকটের কারণে দু’টি মুরিংরোপ ছিড়ে গিয়ে ওই জাহাজটি কাত হয়ে যায়। এ কারণে জাহাজটি বর্তমানে ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় রয়েছে।
জাহাজটির স্থানীয় শিপিং এজেন্ট আল-সাফা শিপিং লাইন্সের খুলনার ম্যানেজার সাধন কুমার চক্রবর্তী বলেন, বন্দর জেটির সম্মুখভাগে সাত মিটার গভীরতা রয়েছে বলে বন্দর কর্তৃপক্ষের ঘোষণা রয়েছে। কিন্তু জাহাজটি সেখানে রাখার পর দেখা গেছে চার-সাড়ে চার মিটার গভীরতা রয়েছে সেখানে। যার ফলে ভাটার সময় জাহাজটি কাত হয়ে যায়। এ কারণে ওই জাহাজের ক্যাপ্টেন তাদেরকে এবং বন্দর চেয়ারম্যান ও হারবার মাস্টারকে ‘লেটার অফ পোর্টেস্ট’ (অভিযোগ) করেছেন।  
অপরদিকে, রূপপুর পারমাণবিক কেন্দ্রের মেশিনারি নিয়ে এম ভি ইউ এইচ এল ফোকাস নামে জাহাজটি বৃহস্পতিবার ৯ নম্বর জেটিতে ভেড়ে। ওই সময় জেটির বাইরের অংশে প্যানডার না থাকায় আঘাত ও ঘষায় জাহাজটির বাইরের অংশ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।
জাহাজটির শিপিং এজেন্ট অলসিসের স্থানীয় প্রতিনিধি সাখাওয়াত হোসেন মিলন বলেন, ক্ষয়ক্ষতি উল্লেখ করে এই জাহাজের ক্যাপ্টেনও বন্দর কর্তৃপক্ষের কাছে লিখিত অভিযোগ করেছেন। দুর্ঘটনার শিকার জাহাজের ক্যাপ্টেনরা তাদের মালিককেও ক্ষয়ক্ষতির কথা জানিয়ে এসএমএস করেছেন। একইসাথে এই বন্দর ব্যবহারেও অনীহা প্রকাশ করেছেন তারা।
জেটিতে একইসাথে দু’টি জাহাজ দুর্ঘটনার শিকার হওয়ায় বহির্বিশ্বে মোংলা বন্দরের সুনাম ক্ষুন্ন হচ্ছে বলে দাবি ব্যবহারকারীদের।  
গত বছরের এপ্রিলে বন্দরের ৭ ও ৯ নম্বর জেটি এলাকায় ড্রেজিং করা হয়। মাত্র আট থেকে নয় মাসের মধ্যে ড্রেজিং এলাকা কীভাবে ভরাট হয়ে গেল তা নিয়ে অভিযোগ উঠেছে। এই দুর্ঘটনার জন্য বন্দরের হারবার বিভাগকেই দুষছেন ব্যবহারকারীরা।
এদিকে,হারবার মাস্টার প্রথমে ড্রেজিংয়ের ব্যাপারে বিরোধিতা করলেও দু’টি জাহাজ দুর্ঘটনার দায় এড়াতে তড়িঘড়ি করে ওই এলাকায় ড্রেজিংয়ের ব্যবস্থা নেয়ার জন্য সিভিল ও হাইড্রোলিক বিভাগে চাহিদা জানিয়েছেন। বিষয়টি নিয়ে বন্দর সংশ্লিষ্টদের মধ্যে নানা প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয়েছে।
এসব বিষয়ে বন্দর কর্তৃপক্ষের হারবার মাস্টার কমান্ডার ফখরউদ্দিন বলেন,এম ভি তুহিনা জাহাজের ক্যাপ্টেন অভিযোগ দিয়েছেন,তার জাহাজের তলদেশ মাটিতে আটকে যাচ্ছে ভাটার সময়ে। কিন্তু গত এক মাসে জেটিতে আরও যে জাহাজগুলো ছিল তারা কোনো অভিযোগ করেনি।          
অপরদিকে, জেটিতে প্যানডার না থাকার বিষয়ে ফখরউদ্দিন বলেন,‘যা আছে তাই। রাষ্ট্র যে অবস্থায়  রেখেছে মোংলা বন্দরকে সেভাবেই তাদেরকে থাকতে হবে। যদি না থাকতে পারে তাহলে আসবে না। তিনি বলেন,প্যানডার লাগানোর বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। এ অবস্থায় যতগুলো জাহাজ আসবে তারা একটু সাফার করবে।’






« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »


সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft