দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চল
শিরোনাম: কেশবপুরে আ’লীগের ৮ ও বিএনপির ৪ কাউন্সিলর       ইউপি নির্বাচনে যাবে না বিএনপি       ধুলিয়ানী ইউপি চেয়ারম্যান আতিয়ার রহমানের ইন্তেকাল       নড়াইলের প্রথম নারী মেয়র আঞ্জুমান আরার দায়িত্ব গ্রহণ        ভোট কেন্দ্রে সমর্থকের কান্ড       যশোর পৌরসভায় নৌকার পক্ষে প্রচারণা       পুলিশি ধাওয়া খেয়ে আসামি পুকুরে লাফ দিয়ে অজ্ঞান        হাত তোলা থেকে ইভিএম-সব আমলেই ভোট দিলেন তারা        কেশবপুরে দ্বিতীয়বার মেয়র হলেন রফিকুল       যশোরে একদিনে তিন হাজার মানুষের টিকা গ্রহণ      
ডাকাতিয়ায় গয়না চুরির অভিযোগ করে হুমকিতে ভুক্তভোগীরা
কাগজ সংবাদ
Published : Tuesday, 26 January, 2021 at 8:34 PM, Count : 121
ডাকাতিয়ায় গয়না চুরির অভিযোগ করে হুমকিতে ভুক্তভোগীরাযশোরের ডাকাতিয়া দক্ষিণপাড়ায় স্বর্ণালংকার চুরির ঘটনায় থানায় অভিযোগ করে বিপাকে পড়েছেন ভুক্তভোগী পরিবার। পালানোর সময় ধাওয়া খেয়ে জুতো ফেলে যাওয়া চিহ্নিত অভিযুক্ত ও তার লোকজন ভুক্তভোগী পরিবারের সদস্যদের নানামুখি হুমকি দিয়ে চলেছে। এ ব্যাপারে পুলিশ তদন্ত শুরু করেছে।
থানায় অভিযোগ দেয়াসহ ডিসি এসপির কাছে গণস্বাক্ষর সম্বলিত স্মারকলিপি দেয়া হয়েছে। অভিযুক্তকে নিয়ে এর আগেও চুরি সংক্রান্ত বিষয়ে শালিশ বিচার হয়েছে।
থানা ও ডিসি এসপির বিভিন্ন দপ্তরে দেয়া অভিযোগে বলা হয়েছে, ২২ জানুয়ারি গভীর রাতে ডাকাতিয়া দক্ষিণপাড়ার নুর আলীর বাড়িতে চড়াও হয় চোর চক্র। ওইদিন নুর আলীর স্ত্রী হাসি বেগম ও ছেলে ইমরান হোসেন হিরার ঘুমিয়ে পড়ার সুযোগ নেয় একই গ্রামের শাহ জামালের ছেলে ইমরান হোসেন (৩৩) ও তার সহযোগীরা। তারা জানালা দিয়ে হাত বাড়িয়ে ঘুমিয়ে থাকা হাসি বেগমের গলায় থাকা এক ভরি ওজনের স্বর্ণের চেইন খুলে নেয়। এছাড়া বাঁশের লাঠি ব্যবহার করে জানালা দিয়ে নুর আলীর প্যান্ট জানালার কাছে এনে পকেট থেকে ৬ হাজার টাকা নেয়। চেইন ও টাকা নিয়ে সটকে পড়ার সময় জানালার পাশে শব্দ হয়। এসময় হাসি বেগম, ছেলে হিরাসহ ওই পরিবারের লোকজন ধাওয়া করেন। এসময়  ইমরান হোসেন ডান পায়ের জুতো ফেলে পালিয়ে যান। চোর চিনে ফেলার পরও ভুক্তভোগী পরিবারের সদস্যরা ওই রাতেই জুতো পাড়ার লোকজনকে দেখান। তারাও ওই জুতো শনাক্ত করেন। অভিযুক্ত চোর ইমরান হোসেন ও তার সহযোগীদের খোঁজাখুঁজি শুরু হয়। প্রমাণ মিললেও ইমরান হোসেন উল্টো হুমকি দেন। এ ঘটনায় ২৩ জানুয়ারি থানায় অভিযোগ করেন নুর আলীর ছেলে ইমরান হোসেন হিরা। অভিযোগটি তদন্তের জন্য অফিসার ইনচার্জ যশোর পুরাতন কসবা ফাঁড়ির পুলিশকে দায়িত্ব দেন। অভিযোগ তদন্ত করছেন এসআই জাহিদ হোসেন।
এদিকে, চুরির ব্যাপারে থানায় অভিযোগকারী হিরা ও তার মামাতো ভাই মোজাম্মেল হোসেন সোহাগ জানিয়েছেন, থানায় যাওয়ায় তারা এখন হুমকিতে রয়েছেন। স্বর্ণালংকার চুরি করে পালানোর সয়ম হাসি বেগম ধাওয়া করে ইমরানকে চিনেও ফেলেন। এমনকি সে জুতো ফেলে  যায়, যা গ্রামবাসী শনাক্তও করেন। এর আগেই একই গ্রামের মন্টুর পুকুর থেকে মাছ চুরি করে ধরা পড়ে ইমরান হোসেন। ওই সময় চাঁচড়ার কয়েক ব্যবসায়ীর অভিযোগে মন্টুর দোকানের সামনে শালিশ বসে। স্থানীয় মেম্বার নাজিম উদ্দিনের সামনে সে সময় ক্ষমা চেয়ে রক্ষা পায় ইমরান হোসেন। এখন থানায় অভিযোগ করা ও ডিসি এসপিকে জাননোয় প্রাণনাশের হুমকিতে রয়েছেন তারা।
এ ব্যাপারে পুরাতন কসবা পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ আকিকুল ইসলাম গ্রামের কাগজকে জানিয়েছেন, অভিযোগটি তিনি পেয়েছেন। এ ব্যাপারে তদন্ত শুরু করা হয়েছে। দ্রুতই কার্যকরি ব্যবস্থা নেয়া হবে।





« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »


সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft