সম্পাদকীয়
শিরোনাম: খুলনা বিভাগে ছাড়িয়েছে তিন লাখ        যশোরসহ ১৬ নার্সিং ইনস্টিটিউটকে কলেজ ঘোষণা       প্রতারণা মামলায় এক ব্যবসায়ীর দুই বছরের কারাদন্ড       যমেক হাসপাতালে ডায়াবেটিস পরীক্ষা ফ্রি        বেনাপোলে র‌্যাবের হাতে ইয়াবাসহ মাদক ব্যবসায়ী আটক        সাত শর্তে দু’বোনকে প্রবেশনে মুক্তি       যশোরে ডাক্তার ছেলের বিরুদ্ধে অসহায় বৃদ্ধা মায়ের মামলা       ৮ কোটি টাকার সম্পত্তি জবরদখলে রেখেছে সাড়াপোলের বিল্লাল চক্র       জড়িতদের আটক ও শাস্তির দাবিতে ঝাটা মিছিল       নৌকার বিজয় হলে শেখ হাসিনার হাত শক্তিশালী হবে: কেশবপুরে মোজাম্মেল হক       
প্রসঙ্গ: রোহিঙ্গা ফেরত নেয়ার প্রতিশ্রুতি
Published : Tuesday, 16 February, 2021 at 9:55 PM, Update: 16.02.2021 10:10:19 PM, Count : 177
প্রসঙ্গ: রোহিঙ্গা ফেরত নেয়ার প্রতিশ্রুতিমিয়ানমারের সেনাশাসন ও গণতান্ত্রিক শাসন সে দেশের জন্য অনেক পার্থক্য। কারণ, সে দেশে ২০১২ সাল থেকে ধীরে ধীরে যে গণতান্ত্রিক পরিবর্তন হয়, তাতে তাদের আর্থিক ও সামাজিক অবস্থার অনেক বেশি পরিবর্তন হয়েছে। বিদেশি বিনিয়োগও বেড়েছে। মোটা দাগে এশিয়ায় একটি প্রতিশ্রুতিশীল অর্থনীতির দেশের পথে তারা এগোতে শুরু করেছিল। তবে বাংলাদেশের কাছে মিয়ানমারের গণতান্ত্রিক সরকার ও সেনা সরকার একইভাবে উপস্থিত হয়। কারণ সেনা সরকারের আমলেও তারা তাদের দেশ থেকে রোহিঙ্গাদের বাংলাদেশে বিতাড়িত করে। আর গণতান্ত্রিক শাসনামলে তো পুরো গণহত্যার মাধ্যমে ৮ লাখের মতো রোহিঙ্গাকে বাংলাদেশে আসতে বাধ্য করে। তাই বাংলাদেশের মানুষের কাছে মিয়ানমারের এ পরিবর্তন খুব দাগ কাটেনি। এমনকি একসময়ে সু চির প্রতি এ দেশের মানুষের যে ভালোবাসা ছিল, তারও প্রকাশ দেখা যায়নি। আর এটাই স্বাভাবিক।
তবে এর ভেতর গত ৮ ফেব্রুয়ারি তাদের সেনাশাসক দেশ ও বিদেশের উদ্দেশে দেয়া ভাষণে যেসব কথা বলেছেন, তার ভেতর দিয়ে তিনি বিদেশি বিনিয়োগকারী ও অন্যান্য দেশের সঙ্গে তাদের যে ব্যবসা আছে, সেগুলো চলমান রাখার আশ্বাস দিয়েছেন। আর বাংলাদেশের জন্য তিনি বলেছেন, রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন-প্রক্রিয়া অব্যাহত থাকবে। জেনারেলরা শেষ অবধি কতটা কথা রাখেন, তা একটি বড় প্রশ্ন। তারপরেও আশা করা যায়, মিয়ানমারের জেনারেল রোহিঙ্গাদের বিষয়ে তার কথা রাখবেন। তবে এখানে বাংলাদেশকে শুধু মিয়ানমার ও চায়নার ওপর নির্ভর করে বসে থাকলে চলবে না। বাংলাদেশকে পশ্চিমা বিশ্বে তাদের রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন কূটনীতি অব্যাহত রাখতে হবে। কারণ, মিয়ানমারের জেনারেল এই যে সুর নরম করেছেন, এর মূল কারণ কিন্তু পশ্চিমা বিশ্বকে মনে রেখে। আগে যে সময় মিয়ানমারের জেনারেলরা দীর্ঘদিন সামরিক শাসন বজায় রেখেছেন, সে সময়ের বিশ্ব আর বর্তমান বিশ্ব ভিন্ন। এখন শুধু চায়নার ওপর নির্ভর করে মিয়ানমারের চলা সম্ভব নয়। পশ্চিমা বিশ্ব যদি অর্থনৈতিক অবরোধ দেয়, তাহলে জান্তা শাসক নিঃসন্দেহে মুশকিলে পড়বেন। অন্যদিকে তার দেশের ভেতর বিক্ষোভ যা আশঙ্কা করা হয়েছিল, তার থেকে বেশি হচ্ছে। 
মিয়ানমারের সামরিক জান্তাদের সব মিলিয়ে সুর নরম করতে হয়েছে। বাংলাদেশকে তাই এর সুবিধা নিতে হবে। দ্রুত যাতে জেনারেল রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নেয়ার কাজ করেন, সে লক্ষ্যেই এগিয়ে যেতে হবে।










« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »


সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft