স্বাস্থ্যকথা
শিরোনাম: ইউনিকের আদলে প্রতারণা ফাঁদ পেতেছেন সাবেকরা       মুজিবনগর-কোলকাতা সড়ক চালুর পথে        মুজিববর্ষ উপলক্ষে কারাগারে ব্যাডমিন্টন প্রতিযোগিতা        যশোর পুলিশের চৌকস শ্রেষ্ঠত্বে এডিশনাল এসপি রব্বানীসহ ৮ অফিসার পুরস্কৃত       পরিবেশবান্ধব শিল্পকে বেগবান করতে যশোরে বিফবিয়ার কর্মশালা       যশোরে পৃথক মামলায় দু’জনের কারাদণ্ড       হৈবতপুরে এক দম্পতিকে মারপিট        বাঘারপাড়ায় আটক সুমন পাল রিমান্ডে       ভ্যাকসিন নিলেন যশোরের পৌরমেয়র রেন্টু       শার্শায় এজেন্ট ব্যাংকের ছিনতাই হওয়া টাকা উদ্ধার, এসপির ব্রিফিং      
করোনা প্রতিরোধে টিকা নিলেন ১ শতাংশ মানুষ
দক্ষিণ পূর্ব এশিয়ায় শীর্ষে বাংলাদেশ
ঢাকা অফিস
Published : Friday, 19 February, 2021 at 9:30 PM, Count : 688
দক্ষিণ পূর্ব এশিয়ায় শীর্ষে বাংলাদেশশুক্রবার পর্যন্ত দেশের সাড়ে ১৮ লাখ অর্থাৎ, মোট জনসংখ্যার এক শতাংশের কিছু বেশি মানুষ টিকাদান কর্মসূচির আওতায় এসেছে। যা পার্শ্ববর্তী দেশ ভারত এখনো সম্পন্ন করতে পারেনি।
বিশেষজ্ঞরা বলছেন, করোনা টিকা দেয়ার অনুপাতিক হারে দক্ষিণ ও দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ায় শীর্ষে বাংলাদেশ। আওয়ার ওয়ার্ল্ড ইন ডেটার তথ্য অনুযায়ী, প্রতিবেশী দেশ ভারত, পাকিস্তান, ইন্দোনেশিয়া রয়েছে বাংলাদশের পেছনে। এ ধারা অব্যাহত থাকলে ফেব্রুয়ারির শেষ নাগাদ পৌঁছে যেতে পারে সর্বোচ্চ টিকা দেয়া প্রথম দশ দেশের তালিকায়।
তবে ইসরায়েলসহ বিশ্বের ২৫টির মতো দেশের জনগোষ্ঠীর এক শতাংশ মানুষ টিকাদান কর্মসূচির আওতায় এসেছে।
১৯ ফেব্রুয়ারি বেলা সাড়ে ১১টায় রাজধানীর তোপখানা রোডের বাংলাদেশ মেডিক্যাল অ্যাসোসিয়েশন (বিএমএ) মিলনায়তনে বাংলাদেশ হেলথ রিপোর্টার্স ফোরাম আয়োজিত ‘করোনা সংক্রমণের গতিবিধি ও টিকা’ শীর্ষক এক আলোচনা সভায় একথা বলেন সরকারের জাতীয় রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানের (আইইডিসিআর) প্রধান বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা এএসএম আলমগীর।
তিনি বলেন, ‘এখনই মাঠ লেভেলে ভ্যাকসিন দেওয়া হবে না। আমরা হাসপাতালভিত্তিক ভ্যাকসিনেশন করছি। আমাদের রেজিস্ট্রেশন অনুযায়ী একসঙ্গে ধাপে ধাপে ৬০ লাখ মানুষকে ভ্যাকসিন দেওয়া হবে। এর আগে কাউকেই দ্বিতীয় ডোজ দেওয়া হচ্ছে না। বাংলাদেশ তিন কোটি ভ্যাকসিন কিনেছে। ভারত থেকে ২০ লাখ উপহার পেয়েছি। আমাদের হাতে তিন কোটি ২০ লাখ ভ্যাকসিন আছে। বিশ্বজুড়ে ন্যায্যতার ভিত্তিতে সুষ্ঠুভাবে টিকা সরবরাহের প্রতিশ্রুতি নিয়ে গড়া জোট কোভ্যাক্স থেকে মোট জনসংখ্যার ২০ শতাংশ মানুষকে টিকা দেওয়ার জন্য সহায়তা দেবে। তাদের সঙ্গে আলোচনা চলছে ৩০ শতাংশ মানুষকে টিকা দেওয়ার ব্যবস্থা করার জন্য।’
তিনি আরও বলেন, আগামী জুনের মধ্যেই কোভ্যাক্সের এক কোটি ২৮ লাখ ভ্যাকসিন পাবো। এর প্রথম চালান মার্চে ৫০ লাখ এসে যাবে। এর মধ্যে ২২ ফেব্রুয়ারি ভারত থেকে কেনা আরো ২০ লাখ ভ্যাকসিন আসবে।
সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, করোনা মহামারি ঠেকাতে করোনা টিকা দেয়া হচ্ছে বিশ্বের নানা দেশে। আওয়ার ওয়ার্ল্ড ইন ডাটা-র তথ্য অনুযায়ী, বিশ্বে প্রায় ১৭ কোটি ডোজ টিকা দেওয়া হয়েছে। আর এক্ষেত্রে সবার আগে থাকা যুক্তরাষ্ট্র দিয়েছে প্রায় ৬ কোটি, চীন ৫ কোটি ৫২ লাখ, যুক্তরাজ্য ১ কোটি ৫১ লাখ, ভারত ৮২ লাখ আর ইজরায়েল ৬৩ লাখ। তবে প্রতি ১০০ জনে বিপরীতে টিকা দেয়ার হার বিবেচনায় সবচেয়ে এগিয়ে ইসরায়েল। ১৭ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত তারা শতকরা ৭৭ দশমিক চার-আট জনকে টিকা দিয়েছে দেশটি। এই অনুপাত ভারতে ০ দশমিক ছয়-আট, পাকিস্তানে ০ দশমিক শূন্য-দুই, ইন্দোনেশিয়ায় ০ দশমিক ছয়-চার। এ অবস্থায় দেশে ৭ ফেব্রুয়ারি শুরু হয়ে জ্যামিতিক হারে বেড়েছে টিকা দেওয়ার হার। বৃহস্পতিবার পর্যন্ত দেয়া হয়েছে ১৮ লাখ ৪৮ হাজারের বেশি ডোজ, এর অনুপাত শতকরা একজন। এ হার দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ায় সবচেয়ে বেশি। সাধারণের আগ্রহ এ ধারায় থাকলে ফেব্রুয়ারির শেষ নাগাদ ৩০ থেকে ৩৫ লাখ ডোজ টিকা দেয়া যাবে। আর তাতে সর্বোচ্চ টিকা দেয়া প্রথম দশ দেশের কাতারে পৌঁছাবে বাংলাদেশ।
প্রধানমন্ত্রীর ব্যক্তিগত চিকিৎসক ও ইউজিসি অধ্যাপক ডা. এবিএম আবদুল্লাহ বলেন, গত চার সপ্তাহ যাবৎ আমাদের দেশের সংক্রমণ পাঁচ শতাংশের নিচে। এটি আমাদের জন্য স্বস্তির খবর। তবে আমরা যেন আত্মতৃপ্তিতে না ভুগি। কারণ করোনা সংক্রমণ কমছে এটি ভালো খবর। এটি ধরে রাখতে হবে। এটি একটি বৈশ্বিক সমস্যা। সারা পৃথিবীতে ছড়িয়ে গেছে। যারা বিদেশ থেকে আসছে তাদের থেকেও নজর রাখতে হবে।
এসময় অনলাইনে যুক্ত ছিলেন একুশে পদকপ্রাপ্ত অনুজীব বিজ্ঞানী অধ্যাপক ডা. সমীর কুমার সাহা, প্রধানমন্ত্রীর ব্যক্তিগত চিকিৎসক ও ইউজিসি অধ্যাপক ডা. এবিএম আবদুল্লাহ, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের জনস্বাস্থ্য বিষয়ক উপদেষ্টা ডা. আবু জামিল ফয়সাল।




« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »


সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft