জাতীয়
শিরোনাম: খুলনা বিভাগে ছাড়িয়েছে তিন লাখ        যশোরসহ ১৬ নার্সিং ইনস্টিটিউটকে কলেজ ঘোষণা       প্রতারণা মামলায় এক ব্যবসায়ীর দুই বছরের কারাদন্ড       যমেক হাসপাতালে ডায়াবেটিস পরীক্ষা ফ্রি        বেনাপোলে র‌্যাবের হাতে ইয়াবাসহ মাদক ব্যবসায়ী আটক        সাত শর্তে দু’বোনকে প্রবেশনে মুক্তি       যশোরে ডাক্তার ছেলের বিরুদ্ধে অসহায় বৃদ্ধা মায়ের মামলা       ৮ কোটি টাকার সম্পত্তি জবরদখলে রেখেছে সাড়াপোলের বিল্লাল চক্র       জড়িতদের আটক ও শাস্তির দাবিতে ঝাটা মিছিল       নৌকার বিজয় হলে শেখ হাসিনার হাত শক্তিশালী হবে: কেশবপুরে মোজাম্মেল হক       
মৃত্যু কমলেও বেড়েছে শনাক্তের হার
ঢাকা অফিস:
Published : Saturday, 20 February, 2021 at 5:14 PM, Count : 104
মৃত্যু কমলেও বেড়েছে শনাক্তের হারশুক্রবারের তুলনায় শনাক্তের হার বেড়েছে। একটানা বেশকিছু দিন ধরে শনাক্তের হার তিনের নিচে থাকলেও গত সোমবার তা বেড়ে ৩.১৫ হয়। এরপর বেশ কয়েকদিন এই হার কমে তিনের নিচে ছিল। কিন্তু আজ সেই হার বেড়ে তিনের বেশি অর্থাৎ শনাক্তের হার হয়েছে ৩.১৪। গতকাল যা ছিল ২.৬৮।
দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় আরো ৫ জনের প্রাণ কেড়ে নিয়েছে করোনাভাইরাস (কভিড-১৯)। এ নিয়ে ভাইরাসটিতে মোট মারা গেলেন আট হাজার ৩৪২ জন। ২৪ ঘণ্টায় নতুন রোগী শনাক্ত হয়েছেন আরো ৩৫০ জন। ফলে দেশে মোট শনাক্ত রোগীর সংখ্যা দাঁড়ালো ৫ লাখ ৪৩ হাজার ২৪ জনে।
শনিবার বিকেলে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা স্বাক্ষরিত করোনা বিষয়ক এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।
বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে, সারাদেশে সরকারি ও বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় ২১৪টি ল্যাবে নমুনা সংগ্রহ ও পরীক্ষা হয়েছে। এর মধ্যে আরটি-পিসিআর ল্যাব ১১৭টি, জিন-এক্সপার্ট ২৯টি, র‌্যাপিড অ্যান্টিজেন ৬৮টি। এসব ল্যাবে ২৪ ঘণ্টায় নমুনা সংগ্রহ হয়েছে ১১ হাজার ২২ জনের। মোট নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে ১১ হাজার ১৪৮টি। এ পর্যন্ত নমুনা পরীক্ষা হয়েছে ৩৯ লাখ ৩৩ হাজার ৬৩৭টি।
ঢাকা সিটিসহ দেশের বিভিন্ন হাসপাতালে ও বাড়িতে উপসর্গবিহীন রোগীসহ গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ৪২৪ জন। এ পর্যন্ত মোট সুস্থ হয়েছেন চার লাখ ৯০ হাজার ৮৯২ জন।
এতে আরো জানানো হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় শনাক্তের হার তিন দশমিক ১৪ শতাংশ। এ পর্যন্ত শনাক্তের হার ১৩ দশমিক ৮০ শতাংশ এবং শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৯০ দশমিক ৪০ এবং শনাক্ত বিবেচনায় মৃত্যুর হার এক দশমিক ৫৪ শতাংশ।
গত বছরের ৪ এপ্রিলের পর ৯ জানুয়ারি সর্বপ্রথম শনাক্তের হার ৫ শতাংশের ঘরে নামে। এরপর ১৭ জানুয়ারি ৪ শতাংশের ঘরে আসে। তার পরের দুদিন সামান্য বেড়ে ৫ শতাংশ হারে রোগী শনাক্ত হয়। ২০ জানুয়ারি থেকে ২৬ জানুয়ারি পর্যন্ত শনাক্তের হার থাকে চার শতাংশে। যদিও এর মাঝে একদিন এই হার ৩ শতাংশে নেমেছিল। এরপর ২৯ জানুয়ারি শনাক্ত হয় ৩.৭৬ শতাংশ। গত ৩১ জানুয়ারি রোববার শনাক্তের হার ৩.০২ শতাংশ। ৩ ও ৫ ফেব্রুয়ারিতে শনাক্তের হার নেমেছে যথাক্রমে ২.৯২ ও ২.৭৯ শতাংশে। ৬ ফেব্রুয়ারি সেই শনাক্তের হার সর্বনিম্ন ২ দশমিক ৫১ শতাংশে নেমেছে। ১৪ ফেব্রুয়ারি রোববার শনাক্তের হার গত দশ মাসে সর্বনিম্ন ২ দশমিক ২৬ শতাংশ হয়। ১৬ ফেব্রুয়ারি মঙ্গলবার শনাক্তের হার দাঁড়ায় ২ দশমিক ৬৮ শতাংশ হয়। ১৮ ফেব্রুয়ারিও একই শনাক্ত হার ছিলো।
বিজ্ঞপ্তিতে নাসিমা সুলতানা জানান, ২৪ ঘণ্টায় মৃত ৫ জনের মধ্যে তিনজন পুরুষ, নারী দুইজন। এদের সবাই ঢাকা বিভাগের। হাসপাতালে ৪ জন ও বাড়িতে একজন মারা গেছেন।
মৃতদের বয়স বিশ্লেষণে দেখা যায়, ৬০ বছরের ঊর্ধ্বে ৪ জন, ৫১ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে একজন রয়েছেন।
এই পর্যন্ত পুরুষ ৬ হাজার ৩১৪ এবং নারী দুই হাজার ২৮ জন মারা গেছেন।
বাংলাদেশে করোনাভাইরাসের প্রথম সংক্রমণ ধরা পড়েছিল গতবছর ৮ মার্চ; তা সোয়া ৫ লাখ পেরিয়ে যায় গত ১৪ জানুয়ারি। এর মধ্যে গতবছরের ২ জুলাই ৪ হাজার ১৯ জন কোভিড-১৯ রোগী শনাক্ত হয়, যা এক দিনের সর্বোচ্চ শনাক্ত।
প্রথম রোগী শনাক্তের ১০ দিন পর গতবছরের ১৮ মার্চ দেশে প্রথম মৃত্যুর তথ্য নিশ্চিত করে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। এ বছরে ২৩ জানুয়ারি তা আট হাজার ছাড়িয়ে যায়। এর মধ্যে গত বছরের ৩০ জুন এক দিনেই ৬৪ জনের মৃত্যুর খবর জানানো হয়, যা এক দিনের সর্বোচ্চ মৃত্যু। গত ১২ ফেব্রুয়ারী ও আজ ২০ ফেব্রুয়ারী ৫ জন করে মৃত্যু হয়, যা ৯ মাসের মধ্যে একদিনে সর্বনিম্ন। এর আগে, গত বছরের ৬ মে করোনায় ৩ জনের মৃত্যু হয়েছিল।




« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »


সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft